logo
বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ০১ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

এক মন এক প্রাণ

আগামী ৪ আগস্ট বিশ্ব বন্ধু দিবস। বন্ধু শব্দের ব্যঞ্জনা ও পরিভাষা হৃদয় ছোঁয়া। মা-বাবার কাছে যে কথাটি বলার সাহস হয় না, বন্ধুকে সে কথা দিব্যি বলা যায়। চলতে চলতে, কথা বলতে বলতে বন্ধুত্ব তৈরি হয়। শোবিজ অঙ্গনেও একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে তারায় তারায় হয়েছে বন্ধুত্ব। শোবিজের তিন বন্ধুর বন্ধুত্বের গল্প শোনাচ্ছেন - রায়হান রহমান

এক মন এক প্রাণ
অর্চিতা স্পর্শিয়া ও সাফা কবির
শব্দটা ছোট হলেও, বন্ধু শব্দের মানে অনেক বড়। বন্ধুত্বের বন্ধন কংক্রিটের চেয়েও মজবুত। চলার পথে, একজন বন্ধু পাশে থাকা মানেই ফুরফুরে জীবন। এমন ফুরফুরে বন্ধুত্বময় জীবনের দারুণ উদাহরণ শোবিজ অঙ্গনের তিন কন্যা। সাফা কবির, মুমতাহিনা টয়া ও অর্চিতা স্পর্শিয়া। এদের মধ্যে বন্ধুত্ব আজকের নয়। একসঙ্গে কেবল পর্দাই নয়, ভাগাভাগি করেছেন জীবনের অনেক নির্মল সুন্দর দিনগুলোও। কাজের ফাঁকে এখনো একসঙ্গে হলে খুনসুটিতে মেতে উঠেন তারা। সেখানে থাকে না কোনো আদিখ্যেতা, কিংবা ফরমালিটি। প্রাণবন্ত সেসব আড্ডায় শুধু যে কথার পৃষ্ঠে কথা চলে এমনটি নয়, চলে চর থাপ্পড়ও। বন্ধুত্ব তো এমনই হওয়া উচিত। অনেকটা শিল্পী কনক ও কার্তিকের গানের মতো- 'তুমি আমার পাশে বন্ধু হে বসিয়া থাকো, একটু বসিয়া থাকো/ আমি মেঘের দলে আছি, আমি ঘাসের দলে আছি, তুমিও থাকো বন্ধু হে বসিয়া থাকো, একটু বসিয়া থাকো।'

এ গানের সুর ধরে এগোলেই বন্ধুত্বের হৃদ্যতা আন্দাজ করা যায়। এবার শোনা যাক বন্ধুত্বের রসায়ন। শুরুটা হোক মডেল ও অভিনেত্রী সাফা কবিরকে দিয়েই। সাফার মতে, খুব বেশি বন্ধু আমার নেই। এর নেপথ্য কারণও আছে। আমরা অনেকগুলো কাজিন। একই বিল্ডিংয়ে সবাই ছোট থেকে থাকি। হইচই করে রাত-দিন পার করতাম। একটা সময় আমার কাছে বন্ধু বলতে কাজিনরাই ছিল। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সবাই যার যার মতো ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। কর্মব্যস্ততার এ শহরে কাজের সুবাদেই তৈরি হয়েছে অনেক প্রিয়জন, প্রিয় মানুষ। তাদেরই একজন স্পর্শিয়া ও টয়া। একসঙ্গে অনেকবার পর্দায় শেয়ার করেছি বলেই নয়, এ মানুষগুলোর সঙ্গে হৃদ্যতা পর্দার বাহিরেও আছে। যেমন- দেশের বাহিরে কোনো শুটিংয়ে কিংবা দূরে কোথাও শুটিংয়ে গেলে রুম শেয়ার করা, একজনের সমস্যায় আরেকজন এগিয়ে আসা, মন খারাপ হলে ফোন করে কথা বলা- আর কি চাই? আসলে আমরা একে অপরকে বুঝতে পারি। যেদিন থেকে এই বুঝতে পারার বিষয়টি তৈরি হয়েছে, সেদিন থেকেই আমরা একে অপরের বন্ধু হয়ে গেছি। বন্ধুত্ব করার জন্য পরিচিত হইনি। একসঙ্গে চলাফেরা করতে করতেই কবে যে বন্ধু বনে গেছে, নিজেরাও জানি না।

অন্যদিকে মডেল ও অভিনেত্রী মুমতাহিনা টয়া বন্ধুত্বকে সজ্ঞায়িত করতে রাজি নন। টয়ার মতে, শোবিজ অঙ্গনে কাজ করতে গিয়ে অনেকের সঙ্গে জানা শোনার সুযোগ হয়। তবে এসবের মধ্যে সাফার বিষয়টি আলাদা। ও আমার আত্মার মানুষ। সম্পর্কটা সেই 'ভালোবাসা-১০১' থেকেই। আমাদের সম্পর্ক এতই ভালো যে, অবসরে একসঙ্গে বসে বসে ইউটিউবে ভিডিও বানাই। একসঙ্গে হলে আরও কি কি যে করি তার কোনো ঠিক নেই। আমাদের বন্ধুত্ব এমনই। একবার কথা বলা শুরু হলে এর শেষ কোথায় নিজেরাও জানি না। আসলে এমন সম্পর্ক গড়ে উঠে বিশ্বাস আর আস্থায়। জোড় করে বন্ধুত্ব হয় না। মনের মিল হলে এমনি এমনি হয়ে যায়। সাফা ও আমার বেলায় তেমনটিই ঘটেছে।

টিভি অভিনেত্রী থেকে সদ্য চিত্রনায়িকা হওয়া অর্চিতা স্পর্শিয়ার এক কথা, সাফা আমার ভালো বন্ধু। আমি মনে প্রাণে চাই ওর সঙ্গে আজীবন বন্ধুত্ব টিকিয়ে রাখতে। বন্ধুত্বের মাঝেও যে একটা দায়িত্ববোধ থাকে সেটাও ভালোই জানা আছে সাফার। আর আমাদের বন্ধুত্ব এতই মিহি যে, আমরা একসঙ্গে হলে বাচ্চাদের মতো মারামারিও করি। তবে ব্যস্ততার কারণে নিয়মিত দেখা না হলেও যোগাযোগটা ঠিকই হয়। যেমন ওর একটা কাজ আমার ভালো লাগল, ফোন দিয়ে বলা- দোস্ত ফাটায়া দিছিস। আবার আমার একটা ভুল হলে সেটা ধরিয়ে দেয়া। এভাবেই তো বন্ধুত্বের অবয়ব দাঁড়ায়।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে