logo
মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

লরেন্সের নয়া মিশন

লরেন্সের নয়া মিশন
জেনিফার লরেন্স
তারার মেলা ডেস্ক

হলিউডে খুব অল্প সময়েই যারা খ্যাতির শীর্ষে উঠে এসেছেন, তাদের মধ্যে একজন জেনিফার লরেন্স। মাত্র ২৫ বছর বয়সে হলিউডে যাত্রা শুরু হয় তার। এরই মধ্যে নাম, যশ, খ্যাতি, বাঘা বাঘা পুরস্কার- সবকিছুই ক্যারিয়ারের ঝুলিতে ভরে নিয়েছেন এই অভিনেত্রী। শুধু তাই নয়, সবচেয়ে সফল অভিনেত্রী হিসেবে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডেও নিজের নাম লেখিয়েছেন আমেরিকান অভিনেত্রী জেনিফার লরেন্স। বিশেষ করে সায়েন্স ফিকশন ফিল্ম সিরিজ 'দ্য হাঙ্গার গেমস' ছবিতে ক্যাটনিস এভারডিন চরিত্রে অভিনয় করে তিনি যে সফলতা অর্জন করেছেন তার ওপর ভিত্তি করেই তিনি এই রেকর্ড গড়েছেন। জেনিফার লরেন্স অভিনীত 'দ্য হাঙ্গার গেমস' ও তার সিকু্যয়েল ফিল্ম 'ক্যাচিং ফায়ার' বিশ্বজুড়ে ৯০০ মিলিয়ন পাউন্ডেরও বেশি উপার্জন করেছে। আর তাতেই সফল অভিনেত্রীর স্বীকৃতি পান জেনিফার।

অভিনয় করে এরই মধ্যে অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডও পেয়েছেন জেনিফার লরেন্স। মাত্র ২২ বছর বয়সে 'সিলভার লাইনিংস পেস্ন-বুক' এনে দিয়েছিল সে পুরস্কার। এ ছাড়াও 'আমেরিকান হাসল' ও 'হাঙ্গার গেমস' ছবিতেও তার অনবদ্য অভিনয় করে দর্শক মনে পেয়েছেন স্থায়ী আসন। ২৫ বছর বয়সী এই তারকা এরই মধ্যে অ্যামি শুমারের সঙ্গে মিলে অন্য একটি ছবির চিত্রনাট্যও? লিখছেন। এবার তিনি ক্যামেরার সামনে থেকে সরে গিয়ে দাঁড়াতে চাইছেন ক্যামেরার পেছনে। একটি ছবির পরিচালক হিসেবে অচিরেই দেখা যাবে তাকে। রয়টার্সকে দেয়া এক সাক্ষাৎ?কারে জেনিফার লরেন্স জানিয়েছেন, নতুন ছবিটি হবে রাসায়নিক অস্ত্র, অ্যাসিড নিরীক্ষাসহ সর্বোপরি গত শতাব্দীর ষাটের দশকের স্নায়ু?যুদ্ধ নিয়ে।

তবে পরিচালনার আগে আরও একটি নতুন ছবিতে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হলেন লরেন্স। ছবিটির নাম এখনও ঠিক না হলেও এরই মধ্যে গল্প ও চিত্রনাট্যের কাজ শেষ হয়েছে। ছবিটি পরিচালনা করবেন পরিচালক লিলা নেগেবিওয়ার। চিত্রনাট্য লিখেছেন এলিজাভেদ স্যান্ডারস। চলতি বছরেই ছবিটির কাজ শুরু হবে বলে এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন লরেন্স। তবে ছবিটি নিয়ে বিস্তারিত কিছু বলেননি তিনি। শুধু বলেছেন, নতুন ছবিতে বিচিত্র এক চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। যা, তার 'দ্যা হাঙ্গার গেমস' এবং 'এক্সমেন' সিরিজের আবহ থেকে পুরোপুরি ভিন্ন ঘরানার।

লরেন্স অভিনীত সর্বশেষ ছবি 'মার্ভেল কমিকস: ডার্ক ফোনিক্স' মুক্তি পায় গত ৭ জুন। এটি ২০১৬ সালে মুক্তি পাওয়া 'এক্সমেন : অ্যাপোক্যালপস' ছবির সিকু্যয়াল। যে ছবির জন্য প্রায় তিন বছর ধরে অপেক্ষায় ছিলেন তিনি।

যদিও গত বছরই সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু একটু দেরিতে হলেও অবশেষে মুক্তি পায় ছবিটি। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন সিমন কিনবার্গ। ছবিতে দেখা যায়, এক্সমেন লড়ছেন ভয়ানক এবং শক্তিশালী শত্রম্নদের সঙ্গে। একটি মিশনে অংশ নিয়ে যুদ্ধ করে গুরুতর আহত হওয়া জিন গ্রে নিজের শক্তির ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। এরপরই নিজের লোকদের সঙ্গেই বাজে আচরণ শুরু করেন তিনি। জিন গ্রে চরিত্রটিকে এবার আরও শক্তিশালী করে পর্দায় হাজির করেছেন পরিচালক। গ্যালাক্সিতে নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে আর জিনের আত্মাকে রক্ষা করতে আবারো একসঙ্গে লড়তে দেখা যায় এক্সমেন পরিবারকে। ছবিটিতে অন্যবদ্য অভিনয়ের সুবাদে লরেন্স যেন আবার নিজেকে দক্ষ অভিনেত্রীর প্রমাণ দিয়েছেন।

\হজেনিফার লরেন্স ২০০৬ সাল থেকে অভিনয়ের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে যুক্ত রয়েছেন। একবার অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড, একবার বাফটা অ্যাওয়ার্ড, তিনবার গোল্ডেন গেস্নাব অ্যাওয়ার্ড, দুবার স্ক্রিন অ্যাক্টরস অ্যাওয়ার্ড, চারবার ক্রিটিকস চয়েস মুভি অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী জেনিফার লরেন্স স্কুল জীবনেই বিভিন্ন নাটকে অভিনয় করতেন। মাত্র ১৪ বছর বয়সে নিউইয়র্ক শহরে নতুন মেধাবী মুখ খোঁজার প্রতিযোগিতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। এরপর লস অ্যাঞ্জেলসে পাড়ি জমান জেনিফার। টিভি সিরিজে ছোটখাটো চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে নিজেকে একটি পর্যায়ে নিয়ে যেতে চেষ্টা শুরু করেন। ছোট পর্দা দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করে একপর্যায়ে বড় পর্দার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন তিনি। প্রথম তাকে বড় পর্দায় দেখা গিয়েছিল 'গোল্ডেন পার্টি' নামের ছবিতে। এরপর 'দ্য পোকার হাউস', 'দ্য বার্নি পেস্নইন উইন্টার বোন', 'লাইক ক্রেজি', 'দ্য বিভার', 'এক্সম্যান : ফার্স্ট ক্লাসে'র মতো ছগিুলোতে অভিনয় করতে নিজেকে দারুণ পরিপক্ব করে তোলেন। সেই পরিপক্বতার প্রমাণ পাওয়া যায় 'দ্য হাঙ্গার গেমস' সিরিজের সিনেমাগুলোয়। এখানে 'ক্যাটনিস এভারডিন' চরিত্রে জেনিফার লরেন্সের দুর্দান্ত অভিনয় দর্শকদের এতটাই আলোড়িত করে যে, 'হাঙ্গার গেমস' সিরিজের ছবিগুলোতে তিনি আবশ্যকীয় তারকায় পরিণত হয়েছেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে