logo
সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

সংবাদ সংক্ষপে

সংবাদ সংক্ষপে
মুজিববর্ষ স্মরণে স্বপ্নদলের 'ত্রিংশ শতাব্দী'

তারার মেলা রিপোর্ট

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য ভারতের আলোচিত নাট্য সংগঠন 'অনীক' কলকাতার তপন থিয়েটারে আয়োজন করেছে 'দ্বাবিংশ গঙ্গা যমুনা নাট্য উৎসব'। গতকাল বুধবার থেকে শুরু হওয়া এ উৎসব চলবে আগামী ১ মার্চ পর্যন্ত। উৎসবে বাংলাদেশের সাতটি নাট্য প্রযোজানা অংশ নিচ্ছে। উৎসবের দ্বিতীয় দিন আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মঞ্চস্থ হবে নাট্য সংগঠন স্বপ্নদলের দেশ-বিদেশে প্রশংসিত প্রযোজনা 'ত্রিংশ শতাব্দী'। বাদল সরকারের মূল রচনা অবলম্বনে যুদ্ধবিরোধী গবেষণাগার নাট্য 'ত্রিংশ শতাব্দী'র রূপান্তরসহ নির্দেশনা দিয়েছেন জাহিদ রিপন। যুদ্ধোন্মাদনার বিরুদ্ধে শৈল্পিক প্রতিবাদ 'ত্রিংশ শতাব্দী'র মূল কাহিনি পৃথিবীর ইতিহাসের সবচেয়ে কলঙ্কজনক অধ্যায় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালে জাপানের হিরোশিমা-নাগাসাকির আণবিক বোমা বিস্ফোরণের অপ্রত্যাশিত পরিণতি। এর সমান্তরালে গুরুত্বের সঙ্গে উপস্থাপিত হয়েছে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, বসনিয়া-ফিলিস্তিন, আফগানিস্তান, পাকিস্তান-ভারত, ইরাকে আগ্রাসন, কুয়েত-তিউনিশিয়া-ইয়ামেন-সিরিয়া-তুরস্ক-মিয়ানমার-গুলশানে বর্রর হামলা, নিউজিল্যান্ডের মসজিদ ও শ্রীলংকার চার্চে সন্ত্রাসী হামলা এবং সমকালীন আরও নানা অমানবিক প্রসঙ্গ। 'ত্রিংশ শতাব্দী' প্রযোজনায় বহুমুখী দৃষ্টিকোণ থেকে বিশ্লেষণের মাধ্যমে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপটে যুদ্ধবাজ-যুদ্ধাপরাধী-অশান্তিকামীদের স্বরূপ এবং তাদের কাজের তাৎক্ষণিক ও সুদূরপ্রসারী বীভৎসতার চিত্র উদঘাটিত হয়েছে। সভ্যতা ধ্বংসকারী মানবসৃষ্ট যুদ্ধ-গণহত্যা-অনাচারের বিপরীতে মানুষ হিসেবে বর্তমান কর্তব্য অনুধাবন এবং এ ক্ষেত্রে দর্শককে সিদ্ধান্তগ্রহণের মুখোমুখি স্থাপনই 'ত্রিংশ শতাব্দী' প্রযোজনার প্রত্যাশা। আর প্রযোজনাটির উপস্থাপনায় প্রয়োগ করা হয়েছে হাজার বছরের নাট্য-ঐতিহ্যের ধারায় আধুনিক 'বাঙলা নাট্যরীতি'। 'ত্রিংশ শতাব্দী' প্রযোজনার গ্রন্থিকরা হলেন- জুয়েনা শবনম, ফজলে রাব্বি সুকর্ন, সামাদ ভূঞা, শিশির সিকদার, সুমাইয়া আক্তার, শাখাওয়াত শ্যামল, সোনালী রহমান, অর্ক অপু, অমর সরকার ও জাহিদ রিপন।

চতুর্থ বর্ষে ধ্রম্নব মিউজিক স্টেশন

তারার মেলা রিপোর্ট

২০১৭ সালের ২৫ ফেব্রম্নয়ারি যাত্রা শুরু করে চলমান সময়ের সবচেয়ে আলোচিত অডিও-ভিডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ধ্রম্নব মিউজিক স্টেশন। গানের প্রতি প্রেম-ভালোবাসার জায়গা থেকে বাংলা গানকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরার জন্য সংগীতশিল্পী ধ্রম্নব গুহ প্রতিষ্ঠা করেন ধ্রম্নব মিউজিক স্টেশন। হাঁটি, হাঁটি, পা, পা করে প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠার ৩ বছর শেষ করে চতুর্থ বছরে পা দিয়েছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই শ্রম্নতিমধুর গান এবং রুচিশীল মিউজিক ভিডিওর আয়োজনে শ্রোতা-দর্শকদের মাঝে 'ডিএমএস' তৈরি করে নিয়েছে নিজের আলাদা অবস্থান। শুরু থেকেই প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের সংগীতাঙ্গনে ভিন্নধর্মী পরিকল্পনা হাতে নিয়ে এগিয়েছে। একাধিক পরামর্শক, গবেষক এবং সৃজনশীল ব্যক্তিদের সমন্বয়ে সাধারণ শ্রোতা-দর্শকদের চাহিদাকে প্রাধান্য দিয়ে বিভিন্ন ঘরানার গান প্রকাশ করে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। বর্ষপূর্তিতে প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার ধ্রম্নব গুহ, ডিএমএসের সব শ্রোতা-দর্শক, শিল্পী-কলাকুশলী, বিজ্ঞাপনদাতা, শুভানুধ্যায়ী, প্রিন্ট, অনলাইন ও ইলেকট্রনিক মিডিয়াসহ সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, দেশের সব গুণি শিল্পীদের নিয়ে আগামীতে কাজ করবে ধ্রম্নব মিউজিক স্টেশন। পাশাপাশি নতুন প্রতিভাবানদের নিয়ে কাজ করা অব্যাহত রাখবে। তিনি আশা প্রকাশ করেন, বিগত বছরগুলোর ন্যায় আগামী বছরগুলোতেও সবার অকৃত্রিম ভালোবাসা আর সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে যাবে ধ্রম্নব মিউজিক স্টেশন।

বাংলা শিখছেন চিত্রাঙ্গদা সিং

তারার মেলা ডেস্ক

বলিউড অভিনেত্রী চিত্রাঙ্গদা সিং 'বব বিশ্বাস' ছবির জন্য বাংলা শেখা শুরু করলেন। ছবির প্রথম শিডিউলের শু্যটিং কলকাতাতেই হয়েছে। তবে ছবিতে চিত্রাঙ্গদার চরিত্রটি কী রকম, সেই বিষয়ে কিছু জানা যায়নি। সূত্রের খবর, কলকাতায় চিত্রাঙ্গদা তার এক বন্ধুর কাছ থেকে বাংলা ভাষা শিখছেন। তার সঙ্গে একজন পেশাদার ভাষা প্রশিক্ষকেরও সাহায্য নিচ্ছেন তিনি। এই বিষয়ে চিত্রাঙ্গদার বক্তব্য হলো, 'যখন আমাকে বাংলা শেখার কথা বলা হলো, আমি খুবই উত্তেজিত হয়েছিলাম। বাংলা আমার খুবই প্রিয় একটা ভাষা। আগে আমি খানিকটা বাংলা বুঝতে পারতাম। কিন্তু শেখার সুযোগ হয়নি। বব বিশ্বাস যে আমার বাংলা শেখার কারণ হয়ে দাঁড়াল, সেটা ভেবে ভালো লাগছে।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে