বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

ভেটেরিনারি শিক্ষার্থীদের মিষ্টি বিলাস

ম মো. রুমন হোসেন
  ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০:০০
সবাই-ই বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী। পড়ছেন পশু চিকিৎসা বিষয়ে। ব্যবহারিক কাজের অংশ হিসেবে তৈরি করছেন নানা পদের মিষ্টান্ন। সকাল থেকে ক্যাম্পাসে উৎসবের আমেজ। কেউ বানাচ্ছে ক্ষীরের সন্দেশ, রসগোলস্না কেউবা কালো জাম, কাঁচা মরিচের মিষ্টি এবং রসমালাই। বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের নিউট্রিশন পরীক্ষাগারে এই মিষ্টান্ন তৈরি করে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমাল সায়েন্সেস অনুষদের শিক্ষার্থীরা। এ নিয়ে অনুষদের শিক্ষার্থী শাকিলা আক্তার বলেন, 'জীবনের প্রথম এই আইটেমগুলো বানিয়েছি আমরা। এক অন্যরকম ভালোলাগা কাজ করেছে। দারুণ অভিজ্ঞতাও যোগ হলো ক্যাম্পাসজীবনে।' শিক্ষার্থীদের সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেন ডেইরি সায়েন্স বিভাগের প্রভাষক ডা. কাজি মো. নোমান। অনুষদের ৮ম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের ৪টি দলে বিভক্ত করা হয়। প্রত্যেক দল আলাদা পদের মিষ্টান্ন তৈরি করে? অনুষদের অ্যানিমাল প্রোডাকশন বিভাগের প্রধান ডা. আব্দুর রহমান বলেন, 'এর আগে এমন আইটেমের মিষ্টি কোনো ব্যাচই বানায়নি। তোমরাই সেইটা বানিয়ে আমাদের তাক লাগিয়ে দিলে? সব গ্রম্নপের মিষ্টি খেয়ে ভালো লেগেছে। তবে ব্যতিক্রমী কাঁচা মরিচের মিষ্টি দারুণ লেগেছে আমাদের কাছে।' প্রি ক্লিনিক্যাল কোর্সেস বিভাগের প্রধান প্রভাষক ডা. সজিবুল হাসান বলেন, 'মিষ্টিগুলো খেয়ে আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে? তোমরা সবাই অনেক পরিশ্রম করেছ? তোমরা সবাই প্রশংসার দাবিদার এবং জুনিয়র অনুপ্রেরণা।' ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমাল সায়েন্সেস অনুষদের ফার্মের গরুর দুধ থেকে তৈরি করা হয় সব মিষ্টি। উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্যদিয়েই সেই দিনটি কাটে সবার। অনুষদের শিক্ষকদের মধ্যে তৈরিকৃত মিষ্টি পরিবেশন করার মাধ্যমে সব আনুষ্ঠানিকতার সমাপ্তি ঘটে।
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে