শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১

কামিনী সন্ধ্যায় ফোটে ভোরবেলায় ঝরে যায়

সাকী মাহবুব
  ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০০:০০
কামিনী সন্ধ্যায় ফোটে ভোরবেলায় ঝরে যায়

তিন অক্ষরের ছোট্ট একটি ফুল। নাম তার কামিনী। শহর কিংবা গ্রামকে মাতিয়ে রাখতে এ ফুলের কোনো জুড়ি নেই। এ ফুলের সবচেয়ে বড় অবদান বাতাসে মিষ্টি সুগন্ধ ছড়ায়। এ ফুল সন্ধ্যায় ফোটে আবার ভোরবেলায় ঝরে যায়। বৈশাখ থেকে শ্রাবণ মাস পর্যন্ত এই সুগন্ধি ফুল সারারাত মনকে মাতিয়ে রাখে। এর মধুর ও মিষ্টি গন্ধ সারা বাগান ভরে থাকে। ভিটেয় একটি গাছ থাকলে চারপাশে এর গন্ধ ছড়িয়ে থাকে। ফুল সাদাও গুচ্ছবদ্ধ। আকারে অনেকটা কমলালেবুর ফুলের মতো। বৃষ্টিতে ভিজতে ভিজতে গন্ধ ছড়ায়। পাশ্চাত্যের উদ্ভিদবিজ্ঞানীদের মতে এই গাছটির আদি জন্মস্থান দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায়। বাংলার জলবায়ুতে চমৎকার মানায় কামিনী। এছাড়া বিক্ষিপ্তভাবে প্রায় সারা পৃথিবীতে জন্মে। বাগানের শোভা বাড়াতে এর বিকল্প নেই।

কামিনী ছোট আকৃতির ঝোপভাবাপন্ন চির সবুজ বৃক্ষ। ৮-১০ ফুট পর্যন্ত উঁচু হয়। গাছটি ছেঁটে রাখলে অতি সুন্দর দেখা যায়। পাতা ছোট, লম্বা প্রায় ডিম্বাকৃতির, গাঢ় সবুজ। এর ফল ছোট ও ডিম্বাকার, পাকলে লাল-কমলা রঙের হয়। তখন আরও নান্দনিক লাগে। গ্রীষ্ম, বর্ষা ও শরতে কামিনী গাছে সাদা ফুল থোকায় থোকায় ভরে ওঠে। কামিনী ফুলের সুগন্ধের জন্য মানুষ তার কদর করে।

বোটানিক্যাল নাম গঁৎৎধুধ ঢ়ধহরপঁষধঃধ (খ)এধবৎঃহ.

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে