পশ্চিমবঙ্গে নিজ বাড়িতেই আদালত খুলে বসা স্বঘোষিত বিচারক গ্রেপ্তার

পশ্চিমবঙ্গে নিজ বাড়িতেই আদালত খুলে বসা স্বঘোষিত বিচারক গ্রেপ্তার

পুলিশ, আইনজীবী কিংবা বিচারকসহ বিভিন্ন পেশার নামে পরিচয় দেওয়া প্রতারক ধরা পড়ার খবর নিশ্চয়ই পত্রিকার পাতায় কখনো না কখনো পড়েছেন কিন্তু ভুয়া আদালতের খবর কি কখনো পেয়েছেন? অভূতপূর্ব এমন ঘটনাই ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ড হারবারের মরুইবেড়িয়া এলাকায় বুধবার (২৫ মে) রাতে হানা দিয়ে নিজ বাড়িতেই 'আদালত' খুলে বসা এমনই এক স্বঘোষিত 'বিচারক'কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধৃতের নাম আব্দুর রাজ্জাক। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

জানা গেছে, ওই প্রতারকের বানানো আদালতে আগে থেকেই বাদী-বিবাদী অপেক্ষা করেন। আচমকা আদালতে প্রবেশ করেন বিচারক। হাতুড়ি ঠুকে ইশারায় সব গুঞ্জন থামিয়ে দেন এক মুহূর্তে। এরপর দু'পক্ষের বক্তব্য শুনে রায় প্রদান করেন। তারপর গুনে নেন সম্মানি। শুধু সম্মানি অংশটা বাদ দিলে আদালত ভুয়া হলেও সব কার্যক্রম চলত প্রচলিত পদ্ধতিতে!

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত দু'বছর ধরে এলাকার মানুষের জমিজমার ভুয়া দলিল তৈরি করত রাজ্জাক। প্রথম প্রথম গ্রামে কোনো গন্ডগোল হলে মধ্যস্থতার জন্য এগিয়ে যেত রাজ্জাক। এরপর আস্তে আস্তে নিজের বাড়িতেই সালিশি সভা বসাতে শুরু করে।

আদালতের অনুকরণে বেআইনিভাবে সেখানে তিনি বিচার চালাতেন বলে অভিযোগ। বিচারকের মতো চেয়ারে বসে হাতের হাতুড়ি টেবিলে ঠুকে রায়ও দিত রাজ্জাক।

পুলিশের দাবি, গ্রামের অনেকে রাজ্জাকের এই কাজে বাধা দিয়েছিল। কিন্তু রাজ্জাক তাদের হুমকি দিত বলেও অভিযোগ। গ্রামের মানুষও রাজ্জাকের প্রভাব দেখে বিনা বাক্য ব্যয়ে তা মেনে নিত বলেও তদন্তকারীদের দাবি।

সম্প্র্রতি গুণধর ব্যক্তির কীর্তি জানতে পারে পুলিশ। এরপর বুধবার রাতে ডায়মন্ড হারবার থেকে পুলিশ গিয়ে ঘিরে ফেলে রজ্জাকের বাড়ি। রজ্জাককে গ্রেপ্তার করা হয়। পাশাপাশি, তার দপ্তর থেকে উদ্ধার হয় জমির ভুয়া দলিল এবং দু'টি ধারালো অস্ত্র।

এ নিয়ে ডায়মন্ড হারবারের এসডিপিও মিতুন দে বলেন, 'রাতে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তকে হাতেনাতে পাকড়াও করা হয়েছে। এই কারবারে আরও কেউ যুক্ত কি না, তা জানতে ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে