logo
শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০ ৮ কার্তিক ১৪২৭

  রকি গৌড়ি   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০  

বুড়ো উকুনের নীতিকথা

একটু আগেই পোয়াতি উকুন এক ডজন ডিম পেড়েছে। ডিম দেখে বাবা উকুন সেকি খুশি। খুশির ঠেলায় সারা চুল রাজ্যজুড়ে ঘুরে ঘুরে এ কথা প্রচার করতে লাগল। হঠাৎ পস্নাসের মতো আঙুলে দৈত্য তাকে ধরে ফেলল। সে দেখল মানুষটি মহাখুশিতে তার নাম ধরে বলল, কি বড় উকুনরে বাপ। হাতের তালুতে তাকে রেখে তদন্ত করছে। তারপর স্বচ্ছ গস্নাসের চামড়ার উপর তাকে রাখল। মানুষ জায়গাটিকে নখ নামে ডাকে। ওমা একি আরেকটি স্বচ্ছ গস্নাসের চামড়া তার দিকে চেপে আসছে। আহ্‌ আহ্‌ ঠুস। খন্ড খন্ড শরীর নখের উপর। মানুষটি বলল, যাক একটা উকুনতো মারছি। উফফ! মাথায় উকুননাশক কিছু ইউজ করতে হবে। নইলে আর রক্ষে নেই। অন্য একটা মানুষ খুব অহঙ্কার করে বলতে লাগল, দেখলি আমার মাথায় একটা উকুনও নেই। তুই খুব নোংরা থাকিস! তাই তোর মাথায় এমন নোংরা জিনিস।

এদিকে উকুনওয়ালা মানুষটি এমন কথা শুনে খুব কষ্ট পেল। সে বলল, দেখে নিও আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে আমার মাথায় একটাও উকুন থাকবে না। অন্য মানুষটি তবু বিরূপ হাসি হেসে খুব করে উকুনওয়ালা মানুষটিকে খ্যাপাতে লাগল। এ সব বিষয় উকুনওয়ালা মানুষটির চুলের চূড়ায় বসে অবলোকন করছিল এক বুড়ো উকুন। তার পর ধীরে ধীরে সে চুলের গোড়ায় নেমে সব উকুনদের কাছে ডাকল। উকুনরা অধীর আগ্রহে বুড়ো উকুনের কথা শুনতে লাগল। বুড়ো উকুন বলল, 'তোমরা শোনো সকলে আজ রাতের মধ্যে এই দেশ ছেড়ে আমাদের পালাতে হবে। কারণ শুনেছি কাল থেকে নাকি আমাদের দমন করার জন্য অনেক তলস্নাশি হবে।' এ কথা শুনে সবাই একত্রে বলে উঠল, আমরা কোথায় যাব? কোথায় থাকব? গুরু আমাদের পথ দেখান। বুদ্ধিমান বুড়ো উকুন বলল, 'চিন্তা করোনা। কাছের কক্ষেই একজন অত্যন্ত অহংকারী মানুষ থাকে। ওর মাথার চুলরাজ্যে আমরা থাকব। শুনেছি অহংকারী মানুষের ইগো বেশি থাকে। আর আমরা যদি ওর মাথায় গিয়ে থাকি। ওই মানুষটি কখনো লজ্জায় মাথা চুলকাবে না। আর আমাদের বিপদের আশংকাও খুব কম থাকবে।' এই কথা শুনে সব উকুনতো মহাখুশি হয়ে বলে উঠল, বাহ্‌ গুরু বাহ্‌। কিন্তু ওই মানুষটি যদি মাথা চুলকায় তখন কি হবে। বুড়ো উকুন খিল খিলিয়ে হেসে বলল, 'তোমরা একদম ভেবোনা এ অত্যন্ত অহংকারী মানুষ, নিজের সম্মান বাঁচাতে হলেও মাথা সে চুলকাবে না। আর আমরাও মরব না।' তারপর সবাই রাত হতে না হতেই এক এক করে এই চুলরাজ্য ছেড়ে অন্য চুলরাজ্যের পথে রওনা হলো। পৌঁছেই ইচ্ছেমতো লাফালাফি করে রক্ত খেতে লাগল। পরের দিন সকালে প্রথম উকুনওয়ালা মানুষটিকে বেশ খুশি খুশি লাগছে। সে এখন উকুন মুক্ত। অহংকারী মানুষটি ঘুম থেকে উঠে যেই মাথা চুলকাতে যাবে তখনি প্রথম মানুষটি বলে উঠল, মাথা চুলকাও কেন। সঙ্গে সঙ্গে সে হাত সরিয়ে বলল, চুপ কর উকুনওয়ালা তোর মাথায় উকুন আছে আমার মাথায় নেই। প্রথম মানুষটি বলল, সত্যি তোমার মাথায় উকুন নেই?

অহংকারী মানুষটি বলল, না না নেই। প্রথম মানুষটি বলল, তাহলে মাথা চুলকাও কেন। অহংকারী একরোখা মানুষটি জোরে চিৎকার করে বলল আজ থেকে আমি কখনই মাথা চুলকাবোনা। এমনকথা শুনে বুড়ো উকুন মহানন্দে সব উকুনকে ডেকে বলল, 'তোমরা যাও উৎসব করো। প্রতিটা চুলের গোড়ায় গোড়ায় বংশ বৃদ্ধি করো। আর হে তুমি অহংকারী মানুষ তুমি আরও অহংকারী হও একরোখা হও নিজের আগুনে নিজেই পুড়ো।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে