শুক্রবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪৩০
walton

কথা সাহিত্যিকের নাট্যযাত্রা

অপূর্ব কুমার কুন্ডু
  ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০০:০০

অতীত, বর্তমান, ভবিষৎ ত্রিকাল মিলেমিশে যেমন মহাকাল তেমনি কথা সাহিত্যিক শাহাদুজ্জামান, আহমাদ মোস্তফা কামাল, স্বকৃত নোমান ত্রয় গত ১৬ সেপ্টেম্বর শনিবার, বিকাল ৫টায় বাংলাদেশ শিল্প কলার একাডেমির সেমিনার হলে, অনুস্বর এর আয়োজনে, মোহাম্মদ বারী'র সঞ্চালনায় রচনা করলেন কথামালা যার শিরোনাম 'কথা সাহিত্যিক হিসেবে নাটক লেখার সংকট ও সম্ভাবনা'। শাহাদুজ্জমান মহাকবি বাল্মিকীর মতো প্রশান্ত ও প্রাজ্ঞতায়, ভাইয়ে ভাইয়ে ভ্রাতৃত্ব বোধের রামায়ণের মতো রচনা করলেন নাট্যকার আর কথা সাহিত্যিকের মধ্যে আন্তঃসম্পর্কের সলিল ও ধারা। আহমাদ মোস্তফা কামাল ব্যাসদেবের মতো ক্রোধ নিয়ে ভাইয়ে ভাইয়ে বিরোধের মহাভারতের মতো রচনা করলেন নাট্যকার আর কথা সাহিত্যিকের মধ্যে আন্তঃবিরোধের খরস্রোত ধারা। স্বকৃত নোমান মাইকেলের মতো বিদ্রোহী হয়ে মেঘনাদ বধের মতো রচনা করলেন নাট্যকার আর কথা সাহিত্যিকের মধ্যে অর্থনৈতিক টানা পোড়েনের ঝরণা ধারা। আর ত্রিকাল দর্শী কাল পুরুষ হয়ে মোহাম্মদ বারী সঞ্চালনায় রচনা করলেন কথায় কথায় কথার বর্ণমালা।

কথার বর্ণমালা না বরং কথা সমুদ্র মন্থন করে বাংলা সাহিত্যে বর্তমানে প্রধানতম কথা সাহিত্যিক শাহাদুজ্জামান তার বিনয়-ভদ্রতা আর আত্ম উপলব্ধির শব্দচয়নে বিশ্বস্ত-স্পষ্ট এবং যথাযথ। তার প্রথম গল্প 'অগল্প' যেখানে কথক একটা মুক্তিযুদ্ধের গল্প লিখতে যেয়ে লিখছেন কিন্তু লেখাটা হচ্ছে না বলে কাটছেন। আবার লিখছেন এবং কাটছেন। আবারও লিখছেন এবং যথাযথ হলো না বলে কেটে ভবিষ্যতে কোনো এক সময় লিখবেন বলে লেখাটা অসমাপ্তভাবে রেখে দিচ্ছেন। অগল্প লেখার প্রেক্ষাপটে তার হৃদয়ের মর্ম মূলে দাঁড়িয়ে আছে, চট্টগ্রাম থেকে একটি নাটকের দলীয় সঙ্গী হয়ে ঢাকায় এসে জার্মান নাট্যকার ব্রেখটের ওপর কর্মশালায় অংশ নিয়ে আলিনিয়েশান আঙ্গিকের সঙ্গে পরিচিত হওয়া এবং গল্পের রচনাকালে সেই বোধের প্রয়োগ। ফলে কথা সাহিত্যিক হয়েও তিনি মঞ্চ মাধ্যমের প্রতি কৃতজ্ঞ। কৃতজ্ঞ হলেও দুই মাধ্যমের সৃজনের ব্যবধানে তিনি উপলব্ধি করেন, কথা সাহিত্যে লেখনীর আশ্রয়ে বর্ণনা প্রধান আর মঞ্চ নাটকে সংলাপের আশ্রয়ে দৃশ্য প্রধান। কথা সাহিত্যে সম্পর্ক লেখক-পাঠকে, মঞ্চ নাটকে সম্পর্ক নাট্যকার-অভিনেতা-দর্শকে। কথা সাহিত্যিক এবং নাট্যকারের চলার গতির নিয়ন্ত্রক স্স্নথ এবং ধাবমান অ্যাকশন। একই ব্যক্তি কথা সাহিত্যিক এবং নাট্যকার হওয়ার ক্ষেত্রে ভূমিকায় থাকছে তার নিজস্ব চরিত্রের ভার্টিক্যাল হরজিন্টাল চরিত্রের সীমায়িত অথবা বিস্তৃত পরিধি। চেনা মাধ্যমের নিয়ন্ত্রকদের মোকাবিলা করে অচেনা মাধ্যমের অচেনা নিয়ন্ত্রকদের মোকাবিলা করতে না চাওয়া একটা বড় কারণ কথা সাহিত্যিক কিংবা নাট্যকার হয়ে স্ব-স্ব স্থানে অবস্থান করা। তবে কথা সহিত্যিক হিসেবে মঞ্চ নাটকের নাট্যকার হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে শাহাদুজ্জামানের বড় আনন্দ, লেখাটা দৃশ্য শিল্প হয়ে ওঠা। বাংলাদেশের মানুষ হিসেবে যে সহস্র দ্বন্দ্বের মধ্যে দিয়ে মানুষে যাপিত জীবন সেই দ্বন্দ্বকেই তো ফুটিযে তুলতে চায় মঞ্চ মায়া। মঞ্চমায়ায় আরোপিত যে কোনো বাধার ক্ষেত্রে বিকল্প হিসেবে রয়েছে সৃজনের প্রসারিত নব কল্পনা। বইয়ের পৃষ্ঠা থেকে মঞ্চের ক্যানভাস  বেশি শক্তিশালী। বিনোদন মাধ্যম হাইলি ডিজিটালইজড কিন্তু প্রযুক্তির কারণে বক্তি কেন্দ্রিক। সেখানে জীবন্ত সত্ত্বায়-আত্মায়-আত্মহারায় একাকার মঞ্চ মাধ্যম। মানুষের সঙ্গে মানুষের সান্নিধ্য তৃষ্ণা কত ব্যাপক ততো চিনিয়েছে করোণাময় বিশ্ব। ফলে আঁধারের মাঝে মঞ্চের আলো যখন জ্বললো তখন দর্শকের সম্মুখে এক নতুন বাস্তবতা, নতুন পৃথিবী। সেই পৃথিবীর ডাক যখন আসে তখন একজন কথা সাহিত্যিক স্বাচ্ছন্দ্যে মঞ্চ নাটকের নাট্যকার হতে নাট্য সমুদ্রে ঝাঁপাবে, নাট্যকাশে উড়াল দেবে।

উড়াল দেওয়ার ক্ষেত্রে শব্দ সংখ্যার সীমায়িত ডানাকে মেনে নিয়েই বলব, আহমাদ মোস্তফা কামাল নাট্যকারের রচনার আঙ্গিকগত দিকটা আরেকটু আত্মস্থ করতে পারলে এবং মঞ্চ নাটকের প্রতিনিধিত্ব শীল মানুষ তার রচিত কথা সাহিত্যে নাটকীয় উপাদান খুঁজে পেলে অবশ্যই তিনি সচেষ্ট হবেন ঘুচিয়ে দিতে কথা সাহিত্যিক এবং নাট্যকারদের মধ্যবর্তী কুরুক্ষেত্রের সীমানা রেখা। স্বকৃত নোমান চান, কথা সাহিত্যিক সাহিত্য রচনা করে যে অর্থটা পান তার অন্তত কাছাকাছি জোগান নিশ্চিত হোক মঞ্চ নাটকের নাট্যকারে ক্ষেত্রে, তবেই কথা সাহিত্যিক আর নাট্যকার সত্ত্বা পশাপাশি নেবে অবস্থান। যার যার অবস্থান থেকে চিরায়ত আত্ম কথনের মধ্যে দিয়ে বিষয়কে অনুধাবন-উপস্থাপন এবং বিশ্লেষণ করলেন রাহমান চৌধুরী, সফি আহম্মদ, অলোক বসু, অপু শহীদসহ আরো অনেকে। বিদ্বেষ-বিভেদ আর আত্ম বিনাশীর এই দাহকালে, দুটি ভিন্ন মাধ্যমের প্রতিনিধিত্বশীল মানুষের একত্রিত করে অনুস্বর নাট্যদল পর্যায় ক্রমে আলাপের মধ্যে দিয়ে 'কথা সাহিত্যিক হিসেবে নাটক রচনার সংকট ও সম্ভবনা' বিষয়ের যে অবতারণা করলেন তা এক কথায় গাছের শিকড় রূপ নাটকের নাট্যকারদের প্রতি পরিচর্যা, যার বৃহত্তর অর্থ পুষ্প ফল শোভিত মনোরম নাট্যঙ্গনের আগামী সৃজন ও সম্ভাবনা। 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
shwapno

উপরে