রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
walton

প্রবীণ নারী উদ্যোক্তা হরভজন কৌর

নন্দিনী ডেস্ক
  ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০০:০০

৯০ বছর বয়সের এক বৃদ্ধা তাক লাগিয়ে দিয়েছেন নারী উদ্যোক্তা হিসেবে। নাম হরভজন কৌর, থাকেন পাঞ্জাবের চন্ডীগরে মেয়ে জামাই ও নাতনির সঙ্গে। হরভজন কৌরের রান্নার প্রশংসা ছিল। যখনই বাসায় কোনো অনুষ্ঠান হতো, খাবার তৈরির দায়িত্ব অর্পিত হতো তার ওপরই। প্রতিবারই মেহমানরা তার রান্না খেয়ে বহুমুখী প্রশংসায় মুখরিত হতেন।

লাজুক প্রকৃতির হরভজন কোনো দিনও এই প্রশংসা পেয়েও মেহমানদের সামনে আসতেন না। নীরবে ও নিভৃতে করে গিয়েছেন সংসার। কোনো দিনও মুখ ফুটে বলেননি তার মনের গভীরের সুপ্ত বাসনার কথা। সেকালের মা-খালাদের মতোই তার বেশিরভাগ সময়ই কাটত রান্নাঘরে। মেয়ে রাবিনা বলেছেন, তিনি রান্নায় এত গুণী যে, আমরা কখন কী খাব এ নিয়ে কোনো দিনই ভাবতে হয়নি, সব সময় কিছু না কিছু তিনি আমাদের জন্য বানিয়ে রাখতেন। যেমন- মিষ্টি, চকলেট, শরবত ইত্যাদি।

বৃদ্ধা মাকে রাবিনা একদিন জিজ্ঞেস করলেন, মা তোমার জীবনে কি কোনো অপূর্র্ণ ইচ্ছে আছে? মা বললেন, কোনোদিন নিজে উপার্জন করতে পারিনি। যদি পারতাম তাহলে এই অপূর্ণ ইচ্ছেটা পূর্ণ হতো। মেয়ে ভাবতে থাকেন কিছু করা যায় কিনা, পেয়ে গেলেন মায়ের বিশেষ অস্ত্র, মায়ের হাতের রান্না যাচাই করার জন্য কিছু খাবার বানিয়ে নিয়ে গেলেন পাশের বাজারে এবং সেই দিনেই উপার্জন করলেন দুই হাজার রুপি, এই দুই হাজার রুপি হরভজন কৌরের জীবনের প্রথম উপার্জন। শুরু হলো এক নতুন যাত্রা, প্রদর্শিত হলো এক উন্মুক্ত পথ। তখন থেকেই এই ৯০ বছর বয়সি বৃদ্ধা একজন উদ্যোক্তা হিসেবে শুরু করলেন টুকটাক করে মিষ্টি ও আচার বানানো- যা আস্তে আস্তে জনপ্রিয় হতে থাকে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে