দু্যতি ছড়ালেন ফারিণ

সময়ের আলোচিত টিভি অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণ। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই দর্শক মহলে সাড়া ফেলেছেন। টেলিভিশন নাটকে দিনকে দিন তার চাহিদা বাড়ছে। টিভি খুললেই দেখা মেলে এ অভিনেত্রীর। নতুন নাটকের বেলায় নির্মাতারা আগে ফারিণকে নিয়েই ভাবেন। গত রোজার ঈদে করোনার কারণে কম কাজ করলেও কোরবানির ঈদে ২১টি নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। অভিনয় ও সমসাময়িক নানা বিষয় নিয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন-
দু্যতি ছড়ালেন ফারিণ
তাসনিয়া ফারিণ

ঈদ করেছি ঢাকাতেই...

পরিবারের সঙ্গে ঢাকাতেই ঈদ করেছি। মা-বাবা ও ভাইকে নিয়ে মোটামুটি ভালোভাবেই ঈদ কেটেছে। বাসাতেই ছিলাম। বৈশ্বিক পরিস্থিতির কারণে কোথাও ঘুরতে যাওয়া হয়নি। ঈদের দিন মাকে কাজে সাহায্য করেছি। সাধারণত ঈদের দিন আমি রান্না করে থাকি। এবার কোরবানির মাংসহ নানা কিছু রান্না করেছি।

২১ নাটকে ২১ রকম...

চলতি বছরের ভালোবাসা দিবস ও রোজার ঈদে আমার তেমন কাজ করা হয়নি। ভালোবাসা দিবসের ওই সময়টাতে আমি 'লেডিস অ্যান্ড জেন্টলম্যান' সিরিজটি নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। এরপর রোজার ঈদে কাজ শুরু করতে না করতেই করোনার প্রভাব বেড়ে যায়। তখন ৫/৬টি নতুন নাটক করার পর আর কাজ করা হয়নি। অনেক দিন না থাকাতে দর্শকরা আমাকে মিস করছিল। তাই এবারের ঈদে একটু বেশি কাজ করেছি। ঈদের ২১টি নাটকে কাজ করেছি। ২১ নাটকে ২১টি ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে অভিয় করেছি। প্রচারে আসার পর থেকে নাটকগুলো নিয়ে চারদিক থেকে ভালো প্রশংসা পাচ্ছি। এতে ভালো লাগলেও দায়বদ্ধ বেড়ে যাচ্ছে। সামনে আমাকে আরও ভালো করতে হবে।

চরিত্রে বৈচিত্র্য আনতে চেয়েছি...

আমি ভালো অভিনেত্রী, সেটা বলছি না। তবে প্রতিনিয়ত নিজেকে তৈরি করার চেষ্টা করছি। চেষ্টা করেছি গতকালের চেয়ে আজকের কাজটি যেন ভালো হয়। চরিত্রটি যেন সুন্দরভাবে উপস্থাপন হয়। তাই এবারের ঈদে রোমান্টিক-কমেডি ও সিরিয়াস সব ধরনের গল্পে কাজ করার চেষ্টা করেছি। চরিত্রে বৈচিত্র্য আনতে চেয়েছি। ঘুরে ফিরে একই ধরনের চরিত্রে বারবার নিজেকে আনতে চাই না।

বরাবরই গল্পকে প্রাধান্য দিই...

এবারের ঈদে অনেক নাটকের প্রস্তাব পেয়েছিলাম। সেসব থেকে অনেক বাছাই করে ২১টিতে কাজ করেছি। প্রতিটি নাটকের গল্প আমার কাছে ভালো মনে হয়েছে। গল্পের কারণেই দর্শকদের সাড়া পাচ্ছি। গতানুগতিক থেকে একটু আলাদা। আমি বরাবরই গল্পকে প্রাধান্য দিই। গল্প শক্তিশালী না হলে চরিত্র যতই ভালো হোক- লাভ নেই। গল্প ভালো না হলে চরিত্রের গুরুত্ব বাড়ে না। গল্প হচ্ছে একটি নাটক-সিনেমার প্রধান উপকরণ।

\হ

ঘরবন্দি সময় কাটছে...

ঘরবন্দি সময় কাটছে। নাটক দেখছি, সিনেমা দেখছি, বই পড়ছি। বই পড়ার আগ্রহ আমার অনেক আগে থেকেই। বিশ্বের আলোচিত অভিনেতা অভিনেত্রী, সিনেমা সম্পর্কে জানতে পড়াশোনা করছি।

ব্যাটে-বলে মিললেই সিনেমা...

ব্যাটে-বলে মিলে গেলে অবশ্যই চলচ্চিত্রে কাজ করব। তবে গড়পড়তা কাজ করতে চাই না। গল্প, চরিত্র ও অন্যান্য মিলে ভালো মানের কাজ পেলে চলচ্চিত্রে কাজ করব। মানানসই চলচ্চিত্র না পেলে নাটক নিয়েই থাকব।

ঝুঁকি নিতে চাই না...

করোনার বর্তমান পরিস্থিতিতে নাটক-সিনেমার শুটিং বন্ধ রয়েছে। কবে নাগাদ পরিবেশ স্বাভাবিক হবে তার ঠিক নেই। দুই মাস কিংবা আরও একটু বেশি সময় লাগবে আমার শুটিংয়ে ফিরতে। ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে চাই না। তবে এর মধ্যে যদি খুব ভালো মানের কাজ পাই যেটা আমার ক্যারিয়ারের জন্য পজিটিভ হবে, তাহলে হয়তো সেটা করা হবে। এর আগে নয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে