সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১

ওপারে ফারিয়া ধ্বনি

তরুণ প্রজন্মের আলোকিত অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া। অনেকের মতো বছর জুড়ে আলোচনায় না থাকলেও ক্ষণে ক্ষণে দু্যতি ছড়ান শোবিজের নানা আঙিনায়। উপস্থাপনা দিয়ে শুরু হলেও ক্যারিয়ারের এ সময়ে অবিরত মুগ্ধতা বিলাচ্ছেন গান কিংবা অভিনয়ে। শুধু দেশীয় চলচ্চিত্রেই নন, এই তারকা এখন গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠেছেন ওপার বাংলাতেও। বাংলাদেশি নায়িকাদের মধ্যে জয়া আহসানের পরপরই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন ফারিয়া। সম্প্রতি কলকাতার প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে তার নতুন সিনেমা। হাতে রয়েছে আরও একাধিক ছবি। দুই বাংলার আলোচিত এই তারকাকে নিয়ে লিখেছেন মাসুদুর রহমান
  ০৮ জুন ২০২৩, ০০:০০
ওপারে ফারিয়া ধ্বনি

বর্তমান সময়ে ঢাকার সিনেমা ছাড়িয়ে কলকাতার সিনেমা নিয়েই ব্যস্ত সময় পার করছেন নুসরাত ফারিয়া। ইতোমধ্যে সেখানে নিজেকে পরিচিত করেছেন তিনি। টলিউডে তার চাহিদাও রয়েছে বেশ। সম্প্রতি কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত সিনেমা 'আবারও বিবাহ অভিযান'। সৌমিক হালদার পরিচালিত এই সিনেমায় নুসরাতের বিপরীতে অভিনয় করেছেন অঙ্কুশ হাজরা। সিনেমা মুক্তির আগে প্রচারণার জন্য কিছুদিন কলকাতায় ছিলেন তিনি। সিনেমাটি নিয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, 'জামাইষষ্ঠী উপলক্ষে গত ২৫ মে পশ্চিমবঙ্গে সিনেমাটি মুক্তি পায়।অনেকেই সামাজিক মাধ্যমে এটি দেখে ভালো লাগার কথা জানিয়েছেন। দর্শকের প্রতিক্রিয়া দেখে বোঝা যায়, অঙ্কুশের সঙ্গে আমার পর্দা রসায়ন বেশ গ্রহণ করেছেন।'

নতুন সিনেমা মুক্তির খবরের রেশ কাটতে না কাটতেই নতুন খবর দিলেন ফারিয়া। সম্প্রতি বাবা যাদবের পরিচালনায় নাম চূড়ান্ত না হওয়া একটি সিনেমায় চুক্তি বন্ধ হয়েছেন তিনি। ইতোমধ্যে আনুষ্ঠানিক মহরতও হয়ে গেছে সিনেমাটির। সামাজিকমাধ্যমে মহরতের কয়েকটি ছবি শেয়ার করে ভক্তদের নতুন সিনেমার খবর জানিয়েছেন নুসরাত নিজেই। ক্যাপশনে তিনি লেখেন, 'এটা আমার পরবর্তী কাজ'। জানা গেছে, এ সিনেমায় নুসরাতের বিপরীতে দেখা যাবে কলকাতার অভিনেতা সোমরাজ মাইতিকে। এ অভিনেতা টিভি সিরিয়াল করে আলোচনায় এসেছেন। তবে ইতোমধ্যে কলকাতার আরেক আলোচিত নায়ক যশ দাসগুপ্তের সঙ্গে অভিনয় করেছেন ফারিয়া। শিগগিরই কলকাতার প্রেক্ষাগৃহে আসছে তার এ ছবিটি। নাম 'রকস্টার'। অংশুমান প্রতু্যষ পরিচালিত রোমান্টিক থ্রিলার ঘরানার এ সিনেমায় তার সঙ্গে দেখা যাবে যশ দাসগুপ্তকে। এছাড়া 'ভয়' সিনেমার শুটিংয়ের কাজ শেষ করেছেন ফারিয়া। রাজা চন্দ পরিচালিত এ সিনেমায় তার বিপরীতে আছেন অঙ্কুশ হাজরা। ইকো এন্টারটেইনমেন্টের ব্যানারে ভয় প্রযোজনা করেছেন সন্দীপ জয়সওয়াল। এ সিনেমায় নুসরাতকে দেখা যাবে সাধারণ একজন বাঙালি মেয়ের চরিত্রে, যিনি শিক্ষকতা করেন। আর অঙ্কুশ থাকছেন একজন সাঁতারের প্রশিক্ষকের চরিত্রে। সিনেমাটি নিয়ে ফারিয়া বলেন, 'অঙ্কুশের সঙ্গে আমার প্রথম সিনেমা 'আশিকী'। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে ভয়ের কাজ শুরু হলেও করোনার কারণে তা পিছিয়ে যায়। অবশেষে এরই মধ্যে কলকাতায় এর শুটিংয়ের কাজ শেষ হয়েছে। ভয় সিনেমাটির গল্প চমৎকার। অঙ্কুশের সঙ্গে কাজের বোঝাপড়াটা এক কথায় দারুণ। আমি খুব আশাবাদী সিনেমাটি নিয়ে।' 'পাতালঘর' নামে নতুন একটি সিনেমার কাজ শেষ হয়ে এখন মুক্তির অপেক্ষায়। এরই মধ্যে এ সিনেমাটি বিভিন্ন উৎসবে প্রদর্শিত হয়েছে।

ফারিয়ার 'ফুটবল ৭১' সিনেমাটিও মুক্তির তালিকায়। অন্যদিকে, বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে নির্মিত বহুল আলোচিত '?মুজিব: একটি জাতির রূপকার' সিনেমায়ও অভিনয় করেছেন নুসরাত ফারিয়া। শ্যাম বেনেগাল পরিচালিত এই সিনেমায় ফারিয়া অভিনয় করেছেন শেখ হাসিনার চরিত্রে। এটি ছিল তার ক্যারিয়ারের এক অবিস্মরণীয় যাত্রা। শেষ হয়েছে এর শুটিং। ইতিহাসে নাম লেখানোর এ যাত্রার ইতি টেনে আবেগে আপস্নুত হয়ে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে নুসরাত ফারিয়া লিখেছেন, 'কী অসাধারণ এক যাত্রা! আমি ধন্য, সম্মানিত এবং আনন্দিত। চলচ্চিত্রটির জন্য 'শেখ হাসিনা' যাত্রা শেষ হলো। এর প্রতিটি মুহূর্ত আমি বাকি জীবন লালন করব।'

নুসরাত ফারিয়াকে বাংলাদেশের সিনেমায় সর্বশেষ দেখা গেছে 'অপারেশন সুন্দরবন'-এ। এরপর নতুন কোনো সিনেমা নিয়ে না এলেও নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন নানা কাজে। ফারিয়া শুধু অভিনয়েই নন, গানেও পারদর্শী। অভিনেত্রীর পাশাপাশি কণ্ঠশিল্পী হিসেবেও তার বেশ সুনাম রয়েছে। গত রোজার ঈদে প্রকাশ পেয়েছে তার নতুন গান 'বুঝি না তো তাই'। মুক্তির আগে থেকেই এ গানটি ছিল আলোচনায়। মুক্তির পরও তা বজায় রয়েছে। 'বুঝি না তো তাই' গানটি লিখেছেন বাঁধন ও ব্রিটিশর্ যাপার মুমজি স্ট্রেনজার। তিনি এই গানে ফারিয়ার সঙ্গে কণ্ঠও মিলিয়েছেন মুমজি। মিউজিক ভিডিওতে তাদের দুজনের উপস্থিতি সবাইকেই মুগ্ধ করেছে। গানটিতে নুসরাতকে বেশ আবেদনময়ীরূপে দেখা যায়। 'বুঝি না তো তাই' গানটি দিয়ে শ্রোতাদের এত সাড়া পাব বুঝিনি। চেষ্টা করছি তাদের ভালো কিছু গান শোনাতে। বাংলাদেশে পপ সংস্কৃতি ফিরিয়ে আনা আমার লক্ষ্য। আমি আমার লক্ষ্যেই এগিয়ে চলছি'- বলেন নুসরাত। গান-অভিনয় দুটোতে ভালো সাড়া পেলেও কোনটাকেই বেশি বা কম গুরুত্ব দেন না তিনি। তার কাছে দুটোই সমান গুরুত্বপূর্ণ। সবই মন দিয়ে ঠিকমতো করতে চান।

আরজে হিসেবে মিডিয়ায় যাত্রা করেন নুসরাত ফারিয়া, এরপর উপস্থাপনা ও মডেলিংয়ের সঙ্গে যুক্ত হন। ২০১৫ সালে বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার 'আশিকী' সিনেমা দিয়ে তার বড় পর্দায় অভিষেক হয়। এরপর 'হিরো ৪২০', 'বাদশা দ্য ডন', 'প্রেমী ও প্রেমী'র মতো একাধিক সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। গান, অভিনয় কিংবা উপস্থাপনা যে কাজই হোক না কেনো, প্রতিটির বেলায় খুব আন্তরিক এই তারকা। যখন যেটা করেন মন দিয়ে করেন তিনি। এই তারকা বলেন, 'এত কম সময়ে সিনেমার ক্যারিয়ারে মানুষের যে ভালোবাসা পেয়েছি, তা বলে বোঝাতে পারব না। যখন পুরোদমে উপস্থাপনা করেছি, তখনও বেশ সাড়া পেয়েছি। গানেও প্রশংসা পাচ্ছি। যখন যে কাজটি করি, তা শতভাগ মন দিয়ে করার চেষ্টা করি।' শোবিজ তারকাদের নিয়ে যেমন আলোচনা হয় তেমনই সমালোচনাও কম হয় না। আলোচনার পাশাপাশি সমালোচনা যেন তারকাদের আষ্টেপৃষ্ঠে জড়ানো। দুই বাংলার আলোচিত এই নায়িকা সমালোচনাকে কীভাবে দেখেন? নুসরাত ফারিয়া সাফ জবাব, 'সব মানুষকে খুশি করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়। দুই বাংলায় কাজ করছি। আমার যেমন ভক্ত আছে, তেমনি সমালোচকও আছে। সমালোচনাকে আমি গায়ে মাখি না।' নুসরাতের সমসাময়িক অভিনয় শিল্পীরা ওটিটিতে কাজ করলেও তিনি অনেকটাই দূরে। তার ভাষ্য, 'বড় পর্দার আশা এখনো পুরোপুরি মেটেনি। আরও অনেক বছর এখানে জমিয়ে কাজ করতে চাই। তাই ওটিটিতে কাজ আপাতত নয়।'

অতীতের চেয়ে নিজেকে আরও অনেক দূর নিয়ে যেতে প্রস্তুত দুই বাংলার এ অভিনেত্রী। ব্যস্ততা প্রসঙ্গে নুসরাত ফারিয়া বলেন, 'আসলে কাজে ব্যস্ত থাকতে বেশি ভালো লাগে।'

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে