রোববার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১
জীবিকার জন্য একাকী নদীর চরে ঝড়-ঝঞ্জা পাড়ি দেন বৃদ্ধ বানেশ্বর দাস

যাযাদি ডেস্ক

  ১০ অক্টোবর ২০২৩, ১৫:০৬

বানেশ্বর দাস। বয়স ৬৪ বা তার একটু বেশি হবে। বাড়ি গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা উপজেলার কচুয়ার রাজভরপাড়া গ্রামে। মাছ ধরতে যমুনা নদীর চরে যান। বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় সাথে নেন বড়শি, শুকনো রুটি আর মাথার ওপর ছোট্ট একট একটু কাপড়। ভয়াল যমুনা নদীর চরে ওই একটু কাপড়ের ছাউনিই একমাত্র ভরসা। চরে ওই ছাউনির নীচে একাকী পাড়ি দিতে হয় প্রচণ্ড রোদ, বৃষ্টি, ঝড়-ঝঞ্জা। এমনকি রাতও পাড়ি দেন একাকী। এ সময় শেয়াল বা ভয়ংকর প্রাণীর কবল থেকে বাঁচে মাছ ধরতে টানা দুই-তিন রাত দিন থেকেও কখনও কখনও মাছশূন্য হাতে ফিরতে হয় রামেশ্বরকে। এ সময় তিনি শুকনো রুটি খেয়ে কোনো রকমে জীবন বাঁচিয়ে রাখেন। ছবিটি সোমবার তোলা হয় -ফোকাস বাংলা


উপরে