ক্রয় কমিটির সভায় অর্থমন্ত্রী যত বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণ করব ততই আমাদের মঙ্গল

ক্রয় কমিটির সভায় অর্থমন্ত্রী যত বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণ করব ততই আমাদের মঙ্গল

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, 'বর্তমান পরিস্থিতিতেও সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ ও পিপিপি কনসেপ্ট ব্যাহত হবে না। আমরা সব ধরনের ইনফ্রাস্ট্রাকচারের ক্যাপাবল। তবে বিদেশি বিনিয়োগের প্রতি জোর দেওয়া হচ্ছে। আমরা যত বেশি বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণ করতে পারব ততই আমাদের জন্য মঙ্গল।'

বৃহস্পতিবার দুপুরে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি অর্থনৈতিক বিষয়ক সংক্রান্ত ও সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে তিনি এ কথা জানান। এ সময় বিস্তারিত তুলে ধরেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত

সচিব মো. সামসুল আরেফিন। এটি ছিল অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ২০তম এবং সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ২৫তম সভা।

সভায় অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির তিনটি এবং ক্রয় কমিটির সাতটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ক্রয় কমিটির প্রস্তাবনাগুলোর জন্য মোট অর্থের পরিমাণ ১ হাজার ৫৩৭ কোটি ১৯ লাখ ৫ হাজার ৮৮২ টাকা। এর মধ্যে সরকারি ব্যয় হবে ১ হাজার ৪১৩ কোটি ৬৩ লাখ ১৬ হাজার ৬২৭ টাকা এবং দেশীয় ঋণ ১২৩ কোটি ৫৫ লাখ ৭৯ হাজার ২৫৫ টাকা।

এক প্রশ্নের জবাবে মুস্তফা কামাল বলেন, পিপিপি থেকে সরকারের বেরিয়ে আসার পরিকল্পনা নেই। আমাদের তো প্রকল্প হচ্ছেই। প্রথম দিকে আমরা পারিনি, কারণ আমাদের ইনফ্রাস্ট্রাকচার ছিল না। ইনফ্রাস্ট্রাকচার বলতে ফিজিক্যাল, নন-ফিজিক্যাল বোথ। এখন আমরা সব ধরনের ইনফ্রাস্ট্রাকচারের জন্য ক্যাপাবল। পিপিপি কনসেপ্ট আমরা এখানো ভালোভাবে আইডিয়া নিতে পারিনি এটা সত্যি। তারপরও কাজ শুরু হয়েছে। যৌথভাবে শুরু করলে এ সময়টা দিতে হবে। এসব বিষয় আমাদের ফেস করতে হচ্ছে, সেগুলো মোকাবিলা করে আমরা এগিয়ে যাব। এখন আমাদের হাতে টাকা আছে, নিজেরা ব্যয় করছি। কিন্তু আমরা চাই বিদেশি বিনিয়োগ।

বৈঠকে নৌ-পরিবহণ মন্ত্রণালয়ের অধীন চট্টগ্রাম বন্দরের কনস্ট্রাকশন অব লালদিয়া বাল্ক টার্মিনাল প্রকল্পটি পিপিপি তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে অর্থমন্ত্রী জানান, ইনেশিয়াল স্টেজে যে ধ্যান-ধারণা নিয়ে প্রকল্পটি করা হয়েছিল। পরবর্তীতে দেখা গেছে, প্রকল্পটি সেভাবে করলে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে চাহিদা অনেক বেড়ে যায়। এখানেও চাহিদা বেড়ে গেছে। এখানে যে পরিমাণ জায়গা সেগুলোকে যদি আমরা ব্যবহার করি তাহলে আমরা চাহিদা মেটাতে পারব না। সেজন্য প্রায় সময় কিছু কিছু প্রকল্প এভাবে বাদ দিতে হয়।

ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় অনুমোদিত প্রস্তাবগুলো হলো-পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সদর উপজেলায় মহানন্দা নদী ড্রেজিং ও রাবার ড্যাম (১ম সংশোধিত) প্রকল্পের প্যাকেজ নং ডবিস্নউপি-১ এর পূর্ত কাজ যৌথ উদ্যোগ (১) বিআইসি গেস (২) এসএসআরআই, ঢাকা থেকে ১৫৫ কোটি ৪৩ লাখ ৩৫ হাজার ১৯৫ টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সড়ক পরিবহণ ও মহাসড়ক বিভাগের অধীন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর কর্তৃক পায়রা সমুদ্রবন্দরের প্রথম টার্মিনাল এবং আনুষঙ্গিক সুবিধাদি নির্মাণ প্রকল্পের প্যাকেজ নং- ডবিস্নউডি-০৫ এর আওতায় রাজুপাড়া থেকে পায়রা বন্দর পর্যন্ত সড়ক নির্মাণের পূর্ত কাজ স্পেকট্রা ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেডের কাছ থেকে ৬৫৫ কোটি ৫০ লাখ ৯ হাজার ১৬৮ টাকায় ক্রয়ের প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড কর্তৃক ২০২২ শিক্ষাবর্ষের প্রাথমিক স্তরের (তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির) বাংলা ও ইংরেজি ভার্সনের ৫২টি লটে ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৫ হাজার ৬১৬টি বই (১) অগ্রণী প্রিন্টিং প্রেস (৪৬টি লট) এবং (২) কচুয়া প্রেস এন্ড পাবলিকেশন্স (৬টি লট) এর কাছ থেকে ১১৫ কোটি ৮২ লাখ ৫৫ হাজার ৩৩৯ টাকায় মুদ্রণ, বাঁধাই ও সরবরাহের ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন (বিসিআইসি) কর্তৃক ২০২১-২২ অর্থবছরে রাষ্ট্রীয় চুক্তির মাধ্যমে সৌদি বেসিক শিল্প করপোরেশন (সাবিক), সৌদি আরব থেকে ১ম লটে ৩০ হাজার মে. টন বাল্ক গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার ১২৩ কোটি ৫৫ লাখ ৮৯ হাজার ২৫৫ টাকায় আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। একই মন্ত্রণালয়ের অধীন যমুনা ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেড (জেএফসিএল), জামালপুরের জন্য সংস্কারযোগ্য গ্যাসের বর্জ্য তাপের বয়লার ও এ সংক্রান্ত যন্ত্রপাতি ৫৬ কোটি ৬৫ লাখ ৪১ হাজার ১৩৫ টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীন গণপূর্ত অধিদপ্তর কর্তৃক বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল, সুনামগঞ্জ স্থাপন প্রকল্পের প্যাকেজ নং-ডবিস্নউডি-১ এর পূর্ত কাজ এম জামাল অ্যান্ড কোম্পানি লিমিটেডের কাছ থেকে ২৬৬ কোটি ১৭ লাখ ১৭ হাজার ৬২৮ টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে এবং একই মন্ত্রণালয়ের অধীন গণপূর্ত অধিদপ্তর কর্তৃক ঢাকাস্থ উত্তরা ১৮নং সেক্টরে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের জনসাধারণের জন্য অ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণ প্রকল্পের প্যাকেজ নং-লট ১৮/অ/১৫ এর নির্মাণ কাজ (১) পিবিএল, (২) জি কে বিল্ডার্স গেস (৩) পিলের যৌথ উদ্যোগে ভেরিয়েশন বাবদ ২ কোটি ৭৯ লাখ ২১ হাজার ১ টাকা ব্যয় হ্রাস করে ১৬৪ কোটি ৪ লাখ ৫৮ হাজার ১৬২ টাকার সংশোধিত ক্রয় চুক্তি সম্পাদনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় অনুমোদিত প্রস্তাবগুলো হলো- মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণায়ের অধীন স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী বর্ণাঢ্য ও যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে উদযাপন উপলক্ষে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়/বিভাগের বছরব্যাপী গৃহীত কর্মসূচির মাধ্যমে সমাপনী ও অন্যান্য অনুষ্ঠান বাস্তবায়নে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট ফার্ম নিয়োগ, নগরসজ্জা এবং দেশে-বিদেশে ওয়ার্কশপ/সেমিনার/কনফারেন্স, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও প্রদর্শনী আয়োজনসহ বিভিন্ন প্রকাশনা, ভিডিও, ডকুমেন্টারি, এলইডি স্ক্রিন স্থাপন এবং আউটসোর্সিং প্রক্রিয়ায় বিভিন্ন সেবা সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে ক্রয়ের নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীন বাংলাদেশ ডাটা সেন্টার কোম্পানি লিমিটেডে আওতায় ফোর টায়ার জাতীয় ডাটা সেন্টারের জন্য সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে ওরাকল ক্লাউড ক্রয়ের নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে এবং নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয়ের অধীন চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীর ডান তীরে লালদিয়া চর এলাকায় ৫৯ দশমিক ৮৭ একর জমির ওপর পিপিপির আওতায় প্রস্তাবিত লালদিয়া বাল্ক টার্মিনাল নির্মাণ প্রকল্পটি পিপিপি তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার বিষয়ে নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে