সরকার প্রধান বিচারপতিকে অবসরে যেতে বাধ্য করেছে: রিজভীকু?ড়িগ্রাম প্রতিনিধি মঙ্গলবার কুড়িগ্রাম শহরের সরদার পাড়াস্থ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রম্নহুল কবীর রিজভী আহমেদ -যাযাদিবিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রম্নহুল কবীর রিজভী আহমেদ বলেছেন, প্রধান বিচারপতিকে 'গু-ামি' করে অবসরে যেতে বাধ্য করেছে সরকার।
তিনি বলেন, সরকার নিজেদের ইচ্ছাপূরণ এবং রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে দমন করতে এখন আদালতকে ব্যবহার করবে, কসাইখানায় পরিণত করবে, তাদের বিরম্নদ্ধের লোকদের শাস্ত্মি দেয়ার জন্য।
মঙ্গলবার দুপুরে কুড়িগ্রাম শহরের সরদার পাড়াস্থ নিজস্ব বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন তিনি।
নির্বাচনবিষয়ক এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন যথার্থই বলেছেন, শেখ হাসিনার অধীনে কখনই অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না। শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন হলে তা হবে 'হাসিনা মার্কা' ও 'ফেনী মার্কা' নির্বাচন। রাত ৩টায় ব্যালট বাক্স ভরা হবে এবং বিরোধী দলের প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিতে পারবে না। ফলে তার অধীনে ক্ষমতার পালা বদল হবে না।
রিজভী আরো বলেন, নির্দলীয় সরকারের অধীনে যে সহায়ক সরকার হবে তার অধীনেই আমরা নির্বাচনে যাবো। আমরা শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবো না, কারণ তারা রক্তাক্ত পরিবেশ তৈরি করবে এবং ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যেতে দেবে না।
এ ছাড়াও কুড়িগ্রামের দারিদ্র্যতা প্রসঙ্গ তিনি বলেন, এখানে দুর্ভিক্ষপ্রবণ অবস্থা বিরাজ করলেও সরকারের দিক থেকে কোনো পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন কু?ড়িগ্রাম জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক, মোস্ত্মাফিজুর রহমান মোস্ত্মফা, শফিকুল ইসলাম বেবু, সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রানা, যুগ্ম সম্পাদক সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক নুর ইসলাম নুরম্নসহ দলীয় নেতাকর্মীরা।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
শেষের পাতা -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close