বাংলাদেশি গৃহকর্মীদের জন্য আরব আমিরাতে বীমা চালুযাযাদি ডেস্ক সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশি গৃহকর্মীদের জন্য বীমা ব্যবস্থা চালু করেছে সেদেশে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাস। এর ফলে কোনো শ্রমিক নিহত অথবা বড় ধরনের স্বাস্থ্য সমস্যায় পড়লে তাদের পরিবার আর্থিক সহায়তা পাবেন।
বীমা পলিসি অনুযায়ী, যদি কোনো শ্রমিক মারা যান তাহলে তার পরিবারকে ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি ৮ লাখ ৯৫ হাজার ৬৪১ টাকা (৪২ হাজার আরব আমিরাত দিনার) দেবে। এ ছাড়া আহত শ্রমিককে আর্থিক সহায়তা দেয়া হবে।
সংযুক্ত আরব আমিরাতে অন্যান্য দেশ যেমন ফিলিপাইন এবং নেপালের শ্রমিকরা এ ধরনের ইন্স্যুরেন্স পান না।
গত বছরের সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশ দূতাবাস আরব আমিরাতে যে কোনো ধরনের বাংলাদেশি শ্রমিকের জন্য এই বীমা ব্যবস্থা চালু করলেও এই প্রথম জনসমক্ষে তা প্রকাশ করা হলো। তিন বছরের জন্য এই বীমা বৈধ থাকবে। এ ছাড়া বীমার জন্য পৃষ্ঠপোষক এককালীন ৪ হাজার ২৬৪ টাকা (২০০ দিরহাম) পরিশোধ করবে।
দূতাবাস শ্রম কাউন্সিলর আরমান উল্লাহ চৌধুরী আরব আমিরাতের জাতীয় দৈনিক দ্য ন্যাশনালকে বলেন, কোনো গৃহপরিচারিকা মারা গেলে অন্যান্য ক্ষতিপূরণ ছাড়া ৮ লাখ ৯৫ হাজার ৬৪১ টাকা পাবেন।
দেশটির প্রাইভেট এবং সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত বাংলাদেশির জন্য এ বীমা বাধ্যতামূলক করতে হবে বলে বীমা নীতিতে উল্লেখ করা হলেও গৃহকর্মীদের জন্য তা বাধ্যতামূলক নয়। গৃহপরিচারিকারা তাদের পৃষ্ঠপোষকের কাছে স্বাস্থ্যসেবার খরচ পাবেন।
আরমান উল্লাহ চৌধুরী বলেন, এর উদ্দেশ্য হচ্ছে গৃহপরিচারিকা মারা গেলে তার পরিবারকে কিছু আর্থিক নিরাপত্তা দেয়া হবে। এদিকে ইতোমধ্যে এই ইন্স্যুরেন্স কয়েকজনকে দেয়া হয়েছে। গত বছর অন্তত ১৫ হাজার বাংলাদেশি শ্রমিক সংযুক্ত আরব আমিরাতে গেছেন।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
শেষের পাতা -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin