পরবর্তী সংবাদ
সংবাদ সংক্ষেপবিশ্রামেই থাকছেন অশ্বিন-জাদেজা

ক্রীড়া ডেস্ক
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম তিন ওয়ানডের দলে ছিলেন না রবিচন্দ্রন অশ্বিন, রবীন্দ্র জাদেজা আর মোহাম্মদ শামি। টেস্ট সিরিজে ব্যস্ত সময় কাটানোর পর দলের গুরুত্বপূর্ণ তিন বোলারকে বিশ্রাম দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ভারতীয় টিম ম্যানেজম্যান্ট। বিশ্রামের সেই সময়টা আরও বাড়ছে। কিউইদের বিপক্ষে সিরিজের শেষ দুই ওয়ানডের দলেও রাখা হয়নি তাদের।
রোববার মোহালিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৭ উইকেটের বড় জয়ে ওয়ানডে সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে ভারত। সিরিজের শেষ দুই ওয়ানডেতেও তাই অদল-বদল করতে চাইছে না স্বাগতিকরা। এতে করে আরও একটু সময় ব্যস্ত সূচি থেকে নিজেদের সরিয়ে রাখতে পারছেন অশ্বিন-জাদেজারা।
এদিকে, সিরিজের প্রথম তিন ওয়ানডের দলে থাকলেও ভাইরাস জ্বরের কারণে মাঠে নামতে পারেননি সুরেশ রায়না। অসুস্থ এই ব্যাটসম্যান পুরোপুরি সেরে না উঠায় শেষ দুই ওয়ানডেতে তাকে রাখা হয়নি। বাকি ১৪ সদস্যের সবাই আছেন দলে।
ভারতীয় দল : মহেন্দ্র সিং ধোনি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা, আজিঙ্কা রাহানে, বিরাট কোহলি, মনিশ পান্ডে, হার্দিক পান্ডিয়া, অক্ষর প্যাটেল, জয়ন্ত যাদব, অমিত মিশ্র, জাসপ্রিত বুমরাহ, ধাওয়াল কুলকার্নি, উমেশ যাদব, মানদ্বীপ সিং, কেদার যাদব।

রিয়ালে সবচেয়ে বাজে শুরু রোনালদোর

ক্রীড়া ডেস্ক
দল জিতছে, কিন্তু মুখের হাসিটা থাকছে মলিন। সাম্প্রতিক সময়ে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর ক্ষেত্রে বিষয়টি লক্ষণীয়। কেননা, পর্তুগিজ যুবরাজ যে গোলের দেখা পাচ্ছেন না। চলতি মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ৬ ম্যাচে এ পর্যন্ত করেছেন মাত্র ২টি গোল, যা স্প্যানিশ জায়ান্টদের হয়ে রোনালদোর সবচেয়ে বাজে শুরু।
২০০৯-১০ মৌসুমে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে রিয়ালে যোগ দেন রোনালদো। এরপর থেকে বিগত প্রতি মৌসুমেই উজ্জ্বল ছিলেন তিনি। ২০১৩-১৪ মৌসুমে প্রথম ৬ ম্যাচে সর্বোচ্চ ১৩টি গোল করার রেকর্ড আছে পর্তুগিজ যুবরাজের। গতবারও ছিল ৫ গোল। কিন্তু এবার যেন নিজেকে হারিয়ে ফেলেছেন রোনালদো। যে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে প্রতিপক্ষকে একাই উড়িয়ে দিতেন তিনি, সেখানে টানা ৪ ম্যাচে গোল নেই! এবারই প্রথম এমন বাজে অভিজ্ঞা হলো রোনালদোর। গত রোববার অ্যাথলেটিক বিলাওয়ের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানের জয়ে তার রেটিং ছিল ৩, যেটাকে সিআর সেভেনের সবচেয়ে বাজে পারফরম্যান্স হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন ফুটবলবোদ্ধারা।

'গোল্ডেন বয়' অ্যাওয়ার্ড রেনাতোর

ক্রীড়া ডেস্ক
'আমরা এমন একজনকে পেয়েছি, যে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জায়গা নিতে পারে'- ইউরো চলাকালীন সময়ে রেনাতো সানচেজ সম্পর্কে কথাটা বলেছিলেন পর্তুগালের কোচ ফার্নান্দো সান্তোস। বায়ার্ন মিউনিখের ১৯ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার দারুণ পারফরম্যান্স দেখিয়েছিলেন মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের আসরটিতে। দলকে চ্যাম্পিয়ন করার পেছনে রেখেছিলেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। সোমবার তারই পুরস্কার হিসেবে ২০১৬ সালের সেরা উদীয়মান ফুটবলারের ইউরোপিয়ান 'গোল্ডেন বয়' অ্যাওয়ার্ড জিতেছেন রেনাতো।
ইউরোপের শীর্ষ ৩০টি সংবাদপত্রের সাংবাদিকরা ২১ বছরের কম বয়সী সেরা উদীয়মান ফুটবলার বেছে নেয়ার ভোটাভুটিতে অংশ নেন। যাতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ইলিংশ ফরোয়ার্ড মার্কোস রাশফোর্ড, ক্লাব সতীর্থ ফরাসি উইঙ্গার কিংসলে কোমান এবং এসি মিলানের গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি দনারুম্মাকে পেছনে ফেলেছেন রেনাতো। প্রথম পর্তুগিজ হিসেবে তিনিই ২০০৩ সাল থেকে চালু হওয়া 'গোল্ডেন বল' অ্যাওয়ার্ড জিতেছেন।
 
পরবর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close