শুরু হলো ঢাকা লিট ফেস্ট ২০১৫যাযাদি রিপোর্ট ঢাকা লিট ফেস্টের উদ্যোগে তিনদিনব্যাপী অনুষ্ঠানের প্রথম দিন বৃহস্পতিবার বাংলা একাডেমিতে ঘাসফড়িয়ের শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন -ফোকাস বাংলাবিশ্বে বাংলাদেশকে আরো সৃজনশীল আঙ্গিকে পেঁৗছে দিতে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী ঢাকা লিট ফেস্ট-২০১৫ বা পঞ্চম আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলন। বৃহস্পতিবার দুপুরে বাংলা একাডেমির আব্দুল করীম সাহিত্য বিশারদ মিলনায়তনে আয়োজনের উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।
এ সময় তিনি বলেন, দেশের সাহিত্য অঙ্গনে এই লিট (লিটারেচার) ফেস্টিভ্যাল শক্তিশালী ভূমিকা রাখবে। আগে এ আয়োজনটি 'হে ফেস্টিভ্যাল' হিসেবে পরিচিত ছিল। তবে এখন এটি পুরোপুরি দেশীয় সংস্কৃতির অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যা প্রশংসনীয়।
এ সময় দেশের সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে তিনি বলেন, বিশ্বের সব দেশে কমবেশি সন্ত্রাসী কার্যক্রম হয়। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে আলাদা করে দেখার কিছু নেই। ঢাকা লিট ফেস্টিভ্যালে এত বিদেশির অংশগ্রহণ বাংলাদেশের প্রতি তাদের দৃষ্টিভঙ্গি নিশ্চিত করে।
সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ঢাকা লিট ফেস্টিভ্যাল বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে একত্রিত করেছে সাহিত্যিকদের। আর এ ধরনের আয়োজন দিকনির্দেশনা দেয় সমাজের বিভিন্ন পরিস্থিতির। আর এ ক্ষেত্রে পুরো আয়োজন বাহবা পাওয়ার দাবিদার।
এর আগে উদ্বোধনী বক্তব্য দেন আয়োজনের বিশেষ বক্তা ভারতীয় বংশোদ্ভূত শিক্ষাবিদ নয়নতারা সেগাল। এ সময় তিনি তুলে ধরেন বিশ্ব আবহে ভারতীয় গণমাধ্যম থেকে শুরু করে সাহিত্যিকদের বাকস্বাধীনতায় প্রতিবন্ধকতার পরিস্থিতি।
তিনি আহ্বান জানান, বিশ্বের লেখক-সাহ্যিতিক থেকে শুরু করে মুক্তচিন্তার সাহিত্যের একই ব্যানারে কাজ করতে। আর এ ক্ষেত্রে ঢাকা লিট ফেস্টিভ্যালের মতো আয়োজন শক্তিশালী ভূমিকা রাখবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম ও অধ্যাপক কায়সার হক।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
monobhubon
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin