logo
সোমবার, ২০ জানুয়ারি ২০২০, ৭ মাঘ ১৪২৭

  যাযাদি রিপোর্ট   ১৫ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

নৌকার পোস্টারে ছেয়ে গেছে ঢাকা

নৌকার পোস্টারে ছেয়ে গেছে ঢাকা
রাজধানীর বিভিন্ন অলি-গলিতে ছেয়ে গেছে প্রার্থীদের পোষ্টারে -যাযাদি

রাজধানীতে চলছে ভোট উৎসব। আসছে ৩০ জানুয়ারি ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচন। দুটি বড় দল ভোটে অংশ নেওয়ায় বেশ জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারণা। বিভিন্ন এলাকার অলি-গলিতে নৌকার মেয়র পদপ্রার্থী ও কাউন্সিলরদের ব্যানার-পোস্টারে ছেয়ে গেছে গোটা রাজধানী। ধানের শীষের পোস্টার তেমন একটা চোখে পড়ছে না। তবে দু-একটি সড়কে যে নেই তা নয়। খোদ নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় ঘিরেও দেখা যায় নৌকার পোস্টারের জয়-জয়কার। নয়াপল্টন ভিআইপি রোডে ঠিক বিএনপি অফিসের সামনের সড়কে দক্ষিণ সিটির বিএনপির মেয়র পদপ্রার্থী ইশরাক হোসেনের কয়েকটি পোস্টার দেখা গেলেও পুরো সড়কজুড়ে দেখা গেছে নৌকার প্রার্থী ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপসের পোস্টার। এছাড়া বিজয়নগর, সেগুনবাগিচা, কাকরাইল, ফকিরাপুল, মতিঝিল সব জায়গায় নৌকার পোস্টার দেখা গেছে। তারই সঙ্গে রয়েছে কাউন্সিলরদের পোস্টারও। মঙ্গলবার রাজধানী বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ দুই সিটিতেই পুরোদমে চলছে নির্বাচনী প্রচারণা। যতদূর চোখ যায় ততদূরই পোস্টার ও ব্যানার দেখা যায়। পোস্টার ও ব্যানারে কাউন্সিলর এবং মেয়রের প্রার্থীদের ছবি দেওয়া হয়েছে। উত্তরের বিএনপির মেয়র পদপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের পোস্টারে তার ছবির সঙ্গে খালেদা জিয়ার ছবিও দেওয়া হয়েছে। নৌকার মেয়রপ্রার্থী ও আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিরর প্রার্থীরা নির্বাচনে প্রচারের তৃতীয় দিনেই রাজধানীর ফ্লাইওভার, ফুট ওভারব্রিজ, বিদু্যতের খুঁটি, বাসা-বাড়ির দেওয়ালসহ কোনো এলাকাই বাদ যায়নি পোস্টার ও ব্যানারে। কোথাও যেন তিল ধারণের ঠাঁই নেই। একটির ওপর আরেকটি পোস্টার লাগাচ্ছেন কর্মী ও সমর্থকরা। রোড-ডিভাইডারে, গাছের সঙ্গে এমনকি গণপরিবহণেও পোস্টার লাগিয়ে চলছে নির্বাচনী প্রচারণা। এতে খুব সহজেই সৌর্ন্দযহানি হচ্ছে মহানগরীর। সরকার দলীয় পোস্টার হওয়ায় কার্যকর কোনো পদক্ষেপও নিতে পারছে না সিটি করপোরেশন। অনেকটাই নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে দুই সিটি। এ বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, দেওয়ালে পোস্টার লাগানো নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন হলেও আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের দেওয়ালে পোস্টার লাগাতে দেখা গেছে। নির্বাচন কমিশন কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। জানতে চাইলে বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইশরাক হোসেনের প্রচার উপ-কমিটির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ বলেন, নির্বাচন কমিশন, প্রশাসন ও পুলিশ সবাই আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করছে। তাদের সঙ্গে আমরা কীভাবে পারব। তবে জনগণ আমাদের সঙ্গে আছে। ভোট হলে আমরা জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী। তিনি বলেন, 'আমাদের পোস্টার দিনে লাগাই, রাতে ছিঁড়ে ফেলে। মাইক রাস্তায় নামালে ভেঙে ফেলে। রোববারও তিনটি মাইক ভেঙেছে। তার মধ্যে একটি সন্ত্রাসীরা নিয়ে গেছে।' নয়াপল্টন বিএনপি কার্যালয় ঘিরে নৌকার পোস্টার বেশি বিএনপির পোস্টার কম এ বিষয়ে আব্দুস সালাম বলেন, আমরা গতকাল কিছু লাগিয়েছি, সোমবার আরও লাগাব।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে