​৫-১২ ডিসেম্বর এসএমই পণ্য মেলা

​৫-১২ ডিসেম্বর এসএমই পণ্য মেলা

আগামী ৫-১২ ডিসেম্বর ২০২১ এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৯ম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা: উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : অংশ নেবে ৩২৫টি ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প প্রতিষ্ঠান: ৬০% উদ্যোক্তাই নারী।

আগামী ৫-১২ ডিসেম্বর ২০২১ শিল্প মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজন করা হবে ৯ম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা ২০২১।

২ ডিসেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার এ উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এমপি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থি ছিলেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এমপি, শিল্পসচিব জনাব জাকিয়া সুলতানা, এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারপার্সন অধ্যাপক ড. মোঃ মাসুদুর রহমান এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মোঃ মফিজুর রহমান। শিল্পমন্ত্রী আরো জানান, ৫ ডিসেম্বর ২০২১ সকাল ১০টায় ৯ম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকতে সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে জাতীয় এসএমই উদ্যোক্তা পুরস্কার ২০২১ বিজয়ী ৪জন উদ্যোক্তার হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট, সনদ ও চেক তুলে দেয়া হবে।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিতব্য শতভাগ দেশী পণ্যের এই মেলায় উদ্যোক্তাদের জন্য ৩২৫টি স্টলের ব্যবস্থা থাকবে। এছাড়া, মেলায় আগত দর্শনার্থীদের মাঝে এসএমই ফাউন্ডেশনের পরিচিতি ও কর্মসূচি তুলে ধরার লক্ষ্যে এসএমই ফাউন্ডেশনের একটি সেক্রেটারিয়েট, মিডিয়া সেন্টার, রক্তদান কেন্দ্র, ক্রেতা-বিক্রেতা মিটিং বুথ, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের আওতাভুক্ত প্রতিষ্ঠান, যেমন: বিটাক, বিএসটিআই, বিসিআইসি, বিসিক, বিএসইসি, জেডিপিসি, বিসিএসআইআর, বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ এবং প্লাটিনাম স্পন্সর ব্র্যাক ব্যাংক, গোল্ডেন স্পন্সর লংকা বাংলা, সিলভার স্পন্সর ব্যাংক এশিয়া ও ইস্টার্ণ ব্যাংক, কো-স্পন্সর জনতা ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ-এর স্টল থাকবে। ‘জাতীয় শিল্পনীতি ২০১৬’ অনুযায়ী উচ্চ অগ্রাধিকার/অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত খাত হিসেবে চিহ্নিত কৃষি/খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ও কৃষি যন্ত্রপাতি প্রস্তুতকারী শিল্প, আইসিটি/সফট্ওয়ার, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং, পাট ও পাটজাত, প্লাস্টিক, হস্ত ও কারুশিল্প, জুয়েলারি (কৃত্রিম), খেলনা ও আগর শিল্পের সাথে সম্পৃক্ত এসএমই প্রতিষ্ঠানসমূহকে মেলায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার প্রদান করা হয়েছে। দেশীয় উৎপাদনকারী অথবা সেবামূলক মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পই শুধুমাত্র মেলায় প্রদর্শন ও বিক্রয়ের সুযোগ পাবে। বিদেশী/আমদানিকৃত পণ্য মেলায় প্রদর্শন কিংবা বিক্রয় করা যাবে না। প্রতিদিন সকাল ১০.০০টা থেকে রাত ৮.০০টা পর্যন্ত মেলা প্রাঙ্গন দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

এক নজরে মেলায় অংশগ্রহণকারী খাতভিত্তিক উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠানের বিবরণ:

ক্রমিক সেক্টরসমূহের নাম প্রতিষ্ঠান স্টল

১ লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য ১৭ ২৪

২ ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ০৬ ০৬

৩ প্লাস্টিক পণ্য ০৩ ০৪

৪ আইটি/সেবা ০৯ ০৯

৫ পাটজাত পণ্য ২৯ ৩০

৬ চামড়াজাত পণ্য ৩৭ ৩৭

৭ খাদ্য/কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণ পণ্য ৩৬ ৩৭

৮ হারবাল/অর্গানিক পণ্য ০৪ ০৪

৯ হ্যান্ডিক্রাফট ৩৩ ৩৫

১০ ফ্যাশন ডিজাইন ১১৬ ১১৬

১১ জুয়েলারি আইটেম ০৪ ০৪

১২ অন্যান্য ১৭ ১৯

মোট ৩১১ ৩২৫

এবার অংশগ্রহণকারী উদ্যোক্তাদের মধ্যে ৬০% নারী এবং ৪০% পুরুষ। মেলায় অংশ নিচ্ছে ফ্যাশন ডিজাইন খাতের সবচেয়ে বেশি ১১৬টি প্রতিষ্ঠান। এছাড়া চামড়াজাত পণ্য খাতের ৩৭টি, খাদ্য/কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণ পণ্য খাতের ৩৬টি, হ্যান্ডিক্রাফটস আইটেম ৩৩টি, পাটজাত পণ্য খাতের ২৯টি, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য খাতের প্রতিষ্ঠান ১৭টি, আইটি খাতের ৪টি, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স খাতের ৬টি, হারবাল/অর্গানিক পণ্যের ৪টি, জুয়েলারি পণ্যের ৪টি এবং প্লাস্টিক পণ্য খাতের ৩টি প্রতিষ্ঠান এবার অংশ নিচ্ছে মেলায়।

মেলা আয়োজনের উদ্দেশ্যসমূহ:

১. ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প উদ্যোক্তা কর্তৃক উৎপাদিত পণ্যের প্রচার, প্রসার, বিক্রয় এবং স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাজার সম্প্রসারণ;

২. এসএমই উদ্যোক্তাদের পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়ন, যোগাযোগ এবং সেতুবন্ধন তৈরিতে সহায়তা;

৩. ভোক্তা এবং এসএমই উদ্যোক্তাদের পারস্পরিক সংযোগ স্থাপন; এবং

৪. সেমিনার/মতবিনিময় সভা আয়োজনের মাধ্যমে পণ্য উৎপাদন ও সেবা সৃষ্টির ক্ষেত্রে ভোক্তাসহ বিভিন্ন মহলের সৃজনশীল মতামত ও পরামর্শ গ্রহণ প্রভৃতি।

৮ দিনের মেলার পাশাপাশি এসএমই উদ্যোক্তাদের সহজ অর্থায়ন, নারী-উদ্যোক্তা উন্নয়ন, প্রযুক্তি উন্নয়ন, ক্লাস্টার উন্নয়নের ওপর আয়োজন করা হবে ৪টি সেমিনার:

১. ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ সকাল ১০.৩০টায় ‘সমন্বিত উন্নয়ন নিশ্চিতকল্পে এসএমই ক্লাস্টারের ভূমিকা’ সেমিনারে প্রধান অতিথি শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এমপি।

২. ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ বিকাল ৩.০০টায় ‘কোভিড-১৯ প্রেক্ষাপটে এসএমই পণ্যের বাজার সংযোগ: নারী-উদ্যোক্তা প্রেক্ষিত’ সেমিনারে প্রধান অতিথি মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বেগম মেহের আফরোজ এমপি।

৩. ০৯ ডিসেম্বর ২০২১ সকাল ১০.৩০টায় Post-COVID-19 Financing Mechanism for SMEs: Challenges and Readiness’ সেমিনারে প্রধান অতিথি শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ।

৪. ০৯ ডিসেম্বর ২০২১ বিকাল ৩.০০টায় ‘৪র্থ শিল্প বিপ্লব: এসএমই’দের করণীয়’ সেমিনারে প্রধান অতিথি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক।

এছাড়া ১২ ডিসেম্বর ২০২১ সকাল ১০.০০টায় সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এমপি।

আপনারা জানেন, দেশব্যাপী এসএমই প্রতিষ্ঠানসমূহ বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন করছেন। ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প-উদ্যোক্তাগণ অনেক উন্নত মানের পণ্য উৎপাদন করলেও বিপণন প্রক্রিয়ার যথার্থ জ্ঞানের অভাবে নানা সমস্যার সম্মুখীন হন। উদ্যোক্তাদের সক্ষমতা অর্জনের জন্য বাজার সংযোগ ও সম্প্রসারণ জরুরি। বাংলাদেশি এসএমই উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য প্রাপ্তিতে সহায়তা প্রদানে বহুমুখী বাজার সুবিধা সম্প্রসারণের গুরুত্ব বিদ্যমান। এসএমইদের পণ্য বিপণনের সুযোগ বৃদ্ধির জন্য ফাউন্ডেশন পণ্যের বাজারজাতকরণে সহায়তা প্রদান করে। যার অংশ হিসেবে রূপে এসএমই ফাউন্ডেশন সংশ্লিষ্ট উদ্যোক্তাদের পণ্যের প্রচার ও প্রসারে ২০১২ সাল থেকে জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা আয়োজন করছে।

এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজিত গত ৮টি জাতীয় এসএমই পণ্য মেলায় ১৫৬১ জন উদ্যোক্তা প্রায় ২১.৮৮ কোটি টাকার পণ্য বিক্রয় এবং প্রায় ৩৬.৫০ কোটি টাকার অর্ডার গ্রহণ এবং ৮৬টি আঞ্চলিক (বিভাগ ও জেলা পর্যায়ে) এসএমই পণ্য মেলায় ৩১৬২জন এসএমই উদ্যোক্তা পণ্য প্রদর্শন করে ২৩.৩৩ কোটি টাকার পণ্য বিক্রয় এবং ২১.১৪ কোটি টাকার অর্ডার গ্রহণ করেন।

এসএমই ফাউন্ডেশন আয়োজিত গত ৮টি জাতীয় এসএমই পণ্য মেলার তথ্য নিম্নরূপ:

এসএমই মেলা তারিখ স্থান স্টলের সংখ্যা মেলায় অংশগ্রহণকারী

উদ্যোক্তার সংখ্যা বিক্রয় (লক্ষ টাকা) অর্ডার (লক্ষ টাকা)

১ম জাতীয় এসএমই মেলা-২০১২ ১৪-১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১২ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র ১০০ নারী: ৫৬ (৬৬%)

পুরুষ: ২৯ (৩৪%) ২৮.০৩ ৬০.৪৪

২য় জাতীয় এসএমই মেলা-২০১৩ ১২-১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ ঐ ১০০ নারী: ৪৮ (৫৬%)

পুরুষ: ৩৭ (৪৪%) ৪৮.১১ ৭১.৬৯

৩য় জাতীয় এসএমই মেলা-২০১৪ ৪-৮ এপ্রিল ২০১৪ ঐ ১৫০ নারী: ১০৩ (৭৪%)

পুরুষ: ৩৭ (২৬%) ১২০.০০ ১৪০.০০

৪র্থ জাতীয় এসএমই মেলা-২০১৬ ৩-৯ এপ্রিল ২০১৬ ঐ ১৯৩ নারী: ১১৯ (৬৬%)

পুরুষ: ৬৪ (৩৪%) ১৪৯.০০ ৪৩৪.০০

৫ম জাতীয় এসএমই মেলা-২০১৭ ১৫-২০ মার্চ ২০১৭ ঐ ২১৬ নারী:১২৩ (৬১.৫%)

পুরুষ:৭৭ (৩৮.৫%) ২৮৫.০০ ৩৮৭.০০

৬ষ্ঠ জাতীয় এসএমই মেলা-২০১৮ ৪-৮ এপ্রিল ২০১৮ ঐ ২৭১ নারী: ১৮৩ (৬৮.৭%)

পুরুষ: ৮৩ (৩১.২%) ৫৫৬.০০ ১০১৪.০০

৭ম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা-২০১৯ ১৬-২৩ মার্চ ২০১৯ ঐ ৩০৮ নারী: ২১৬ (৭০%)

পুরুষ: ৯২ (৩০%) ৫০৭.০০ ৯০৫.০০

৮ম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা-২০২০ ৪-১৩ মার্চ ২০২০ ঐ ৩০৫ নারী: ১৯০ (৬৪.৬৩%)

পুরুষ: ১০৪ (৩৫.৩৭%) ৪৯৪.৬৬ ৬৩৭.৬৩

মোট ঐ ১৬৪৩ নারী: ১০৩৮ (৬৪.৫০%)

পুরুষ: ৫২৩ (৩৫.৫০%) ২১৮৭.৮ ৩৬৪৯.৭৬

গড় ২০৫.৩৮ নারী: ১২৯.৭৫ (৬৬.৪৯%)

পুরুষ: ৬৫.৩৮ (৩৩.৫১%) ২৭৩.৪৮ ৪৫৬.২২

এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজিত গত ৮টি জাতীয় এসএমই পণ্য মেলায় ১৫৬১ জন উদ্যোক্তা প্রায় ২১.৮৮ কোটি টাকার পণ্য বিক্রয় এবং প্রায় ৩৬.৫০ কোটি টাকার অর্ডার গ্রহণ এবং ৮৬টি আঞ্চলিক (বিভাগ ও জেলা পর্যায়ে) এসএমই পণ্য মেলায় ৩১৬২জন এসএমই উদ্যোক্তা পণ্য প্রদর্শন করে ২৩.৩৩ কোটি টাকার পণ্য বিক্রয় এবং ২১.১৪ কোটি টাকার অর্ডার গ্রহণ করেন।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

ক্যাম্পাস
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
হাট্টি মা টিম টিম
কৃষি ও সম্ভাবনা
রঙ বেরঙ

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে