রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১

সংসারে ভুলভ্রান্তি মন-মালিন্য জীবনকে দুর্বিষহ করে তোলে : মনীষা কৈরালা

যাযাদি ডেস্ক
  ২৮ মে ২০২৪, ১১:১৬
ছবি-সংগৃহিত

নেপালী মেয়ে মনীষা কৈরালা, ভারতীয় সিনেমার রূপালী পর্দায় তার ঝলক বার বার দেখেছে দর্শক। তবে সে পুরোনো কথা। তার হাসিতে মুক্তর দানা ঝরে ঝরে পড়তো এমনটাই মনে করেন তার ভক্তরা। তবে সেই মনীষা বিয়ে করে সুখি হতে পারেননি। মাত্র ২ বছর পর সেই বিয়ে ভেঙে যায়। তারপর থেকে সিঙ্গেল। তিনি দীর্ঘ সময় ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করেছেন। বর্তমানে সুস্থ্য এবং অভিনয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

জানা যায়, বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মনীষা কৈরালা। বিখ্যাত পরিচালক সঞ্জয়লীলা বানসালির ‘হীরামান্ডি’ সিরিজে অভিনয়ের জন্য আবার আলোচনায় এসেছেন তিনি। তার সমসাময়িক সবাই বিয়ে করে সংসারী হলেও ৫৩ বছর বয়সী মনীষা এখনও সিঙ্গেল। জীবন, সংসার ও সন্তান নিয়ে তার দর্শন অন্যদের থেকে একটু আলাদা। ইদানিং ভারতীয় নায়িকারা সমাজ সংসার নিয়ে বেশ কথা বলছেন। মনীষা কৈরালাও তার ব্যতিক্রম নন।

মনীষা কৈরালা সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে জানান, দুনিয়ার চোখে ভালো বিয়ে, ভালো সংসার, সন্তান ইত্যাদি নিখুঁত, কিন্তু সংসারের বেতরে গণ্ডগোল থাকে। বিয়ে ও সন্তান মানেই জীবন সুন্দর, এমন নয়। অধিকাংশ সময় বৈবাহিক জীবন বা সন্তানসহ সংসার দেখে সঠিক জীবনের তকমা দিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু সব ক্ষেত্রে তা সুখকর হয় না।

তিনি বলেন, সংসারে ভুলভ্রান্তি মন-মালিন্য থাকার কারণে জীবন দুর্বিষহ হয়ে ওঠে। তার মতে, নিজের জীবন ও অবস্থানকে কোন দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখা হচ্ছে, সেটা জরুরি। জীবনকে কোন দিকে চালানো হচ্ছে, তা ভাবতে হবে। সর্বোপরি জীবনে খুশি থাকতে পারাটাই মুখ্য।

মনীষা কৈরালার ভাষ্য, নিজের জীবনের মালিকানা নিজের হাতে। নিজেকে যে জায়গায় দেখছেন, তাতে সন্তুষ্ট থাকলে জীবন এমনিই সুন্দর। নিজের জীবন নিয়ে গর্ব করা উচিত।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সালে সম্রাট দাহালকে বিয়ে করেন মনীষা কৈরালা। কিন্তু সংসার বেশিদিন টেকেনি। পরে ২০১২ সালে দাহালের সঙ্গে দাম্পত্য জীবনের ইতি টানেন নেপালি বংশোদ্ভূত এই অভিনেত্রী। অভিনয় ছাড়াও তিনি নারীর অধিকার, নারীর প্রতি সহিংসতা দমন, মানব পাচার ও ক্যান্সার বিষয়ক সচেতনতায় কাজ করেন মনীষা।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে