শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১

‘ফিমেল’ বয়কটে বিপাকে অমি

বিনোদন রিপোর্ট
  ১৪ জুন ২০২৪, ১৪:৫৪
-ফাইল ছবি

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ ধারাবাহিক নির্মাণের মাধ্যমে পরিচালক হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন কাজল আরেফিন অমি। তারপর নাটকের পাশাপাশি ওয়েব সিরিজও নির্মাণ করেছেন। এরই মধ্যে আবার সিনেমা নির্মাণেরও আভাস দিয়েছেন তিনি। আসন্ন ঈদে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেতে যাচ্ছে অমির ‘ফিমেল-৪’। এ নিয়ে এত দিন ফুরফুরে মেজাজে থাকলেও হঠাৎ বিপাকে পড়েছেন এই নির্মাতা। সম্প্রতি টেলিভিশন ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে প্রচারিত কোমলপানীয় কোকাকোলার বিজ্ঞাপন নিয়ে সমালোচনা শুরু করেছেন নেটিজেন ও দর্শকরা।

বিজ্ঞাপনটিতে দেখা গেছে অভিনেতা শরাফ আহমেদ জীবন ও শিমুল শর্মাকে। তারা দু’জনই অমির নির্ধারিত শিল্পী। ফলে দর্শকের ধারণা, পানীয়টির বিজ্ঞাপন নির্মাতা অমিই তৈরি করেছেন। এ কারণে পানীয়টি বয়কটের ডাক দেওয়ার সঙ্গে অভিনেতা জীবন ও শিমুলকেও বয়কটের ডাক দিয়েছেন দর্শকরা। আর নির্মাতা হিসেবে অমির ‘ফিমেল-৪’সহ তার সব কাজই বয়কটের কথা বলা হচ্ছে। যদিও এ নির্মাতা স্পষ্টভাবে জানিয়েছেন, পানীয়টির বিজ্ঞাপন তিনি নির্মাণ করেননি। তবে এরপরও সমালোচনা ও চর্চা থেমে নেই। ফলে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে

এক পোস্টে খোলাচিঠি লিখেছেন পরিচালক অমি।

মঙ্গলবার বিকাল পৌনে ৫টার দিকে ফেসবুক পোস্টে নির্মাতা অমি লিখেছেন, ‘মানবতা ও বিবেক, এ দুটি বিষয় একজন মানুষকে পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলে। আমি সব সময় চেষ্টা করি আমার কাজের মাধ্যমে মানবতা এবং বিবেককে জাগ্রত রাখতে। তারই ধারাবাহিকতায় আমি বানিয়েছিলাম বিদেশ, কিডনি, দই, শেষমেশ এবং আপনাদের ভালোবাসায় আজকে আমি এখানে।’

তিনি লিখেছেন, ‘সোমবার থেকে যে বিজ্ঞাপনের ইস্যুটি নিয়ে আমার দর্শক, আমার পরিবার ও দেশবাসী বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন, আমি সবার কাছে একটি বিষয় পরিষ্কার করতে চাই যে, উক্ত বিজ্ঞাপনের সঙ্গে আমি কোনোভাবেই সম্পৃক্ত নই।’

নির্মাতা আরও লিখেছেন, ‘আপনারা আমার ওপর রাগ করছেন, আমি আপনাদের সব রাগ-অভিমান মাথা পেতে নিচ্ছি। কারণ বিজ্ঞাপনটির অভিনয়শিল্পী যারা আছেন, তারা আমার সঙ্গে অনেকদিন ধরেই কাজ করছেন।’

অমি লিখেছেন, ‘আপনারা যারা তাদের ওপর অভিমান করে বলছেন, আমাদের এত কষ্টে বানানো ‘ফিমেল-৪’ দেখবেন না, অভিমান করে বলছেন, আমরা বয়কট করছি এটি। আমরা যারা একসঙ্গে কাজ করি, আমরা সবাই একই পরিবারের সদস্য বলে আমি মনে করি। আমাদের পরিবারের কেউ যদি ভুল করে থাকে, সে তার ভুল বুঝতে পারে এবং সে যদি ক্ষমাপ্রার্থী হয়, অবশ্যই আমরা চাইব তাকে যেন দেশবাসী এবং সাধারণ মানুষ ক্ষমা করে দেয়।’

নির্মাতা অমি লিখেছেন, ‘ভবিষ্যতেও গল্প এবং শিল্পী নির্বাচনের ক্ষেত্রে আমি আমার দর্শকদের চাহিদা সর্বোচ্চ মূল্যায়ন করব। আশা করছি আপনারা আমাকে কেউ ভুল বুঝবেন না এবং আমার পরিশ্রমকে বিফলে যেতে দেবেন না।’

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে