বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯
walton1

রক্তের সন্ধানে ওরা...

পারিবারিকভাবে রক্তের সম্পর্কের বাইরেও আরেকভাবে রক্তের সম্পর্ক হয়। সেটি হলো রক্তদানের মাধ্যমে। আর এই সেতুবন্ধন করে দেয় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের রক্তদান বিষয়ক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন রক্তিমা। কারও রক্ত প্রয়োজন হলে রক্তিমাকে জানানোর সঙ্গে সঙ্গেই দায়িত্ব যেন নিজের কাঁধে তুলে নেয়। ফোনে বা যে কোনো মাধ্যমে জানানোর সঙ্গে সঙ্গে রক্তের খোঁজে উতলা হয়ে ওঠে। রক্ত না পাওয়া পর্যন্ত যেন শান্তি নেই রক্তিমার সদস্যদের মনে। ফলে রক্তগ্রহীতাদের সঙ্গে তাদের এক অন্যরকম সখ্যতা গড়ে উঠেছে।
আজাহারুল ইসলাম
  ০৮ অক্টোবর ২০২২, ০০:০০
পারিবারিকভাবে রক্তের সম্পর্কের বাইরেও আরেকভাবে রক্তের সম্পর্ক হয়। সেটি হলো রক্তদানের মাধ্যমে। আর এই সেতুবন্ধন করে দেয় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের রক্তদান বিষয়ক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন রক্তিমা। কারও রক্ত প্রয়োজন হলে রক্তিমাকে জানানোর সঙ্গে সঙ্গেই দায়িত্ব যেন নিজের কাঁধে তুলে নেয়। ফোনে বা যে কোনো মাধ্যমে জানানোর সঙ্গে সঙ্গে রক্তের খোঁজে উতলা হয়ে ওঠে। রক্ত না পাওয়া পর্যন্ত যেন শান্তি নেই রক্তিমার সদস্যদের মনে। ফলে রক্তগ্রহীতাদের সঙ্গে তাদের এক অন্যরকম সখ্যতা গড়ে উঠেছে। 'নিরাপদ হোক রক্তদান, আমার রক্তে বাঁচুক প্রাণ' স্স্নোগানকে ধারণ করে ২০১৭ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ফাহিম মোর্শেদ হিমুর হাত ধরে এ বিশ্ববিদ্যালয়কে কেন্দ্র করে যাত্রা শুরু করেছিল রক্তিমা। দেখতে দেখতে কেটে গেল পাঁচটি বছর। এরই মধ্যে বিস্তৃতি লাভ করে প্রায় সারা দেশেই ছড়িয়ে পড়েছে সংগঠনটির কার্যক্রম। তাই পঞ্চম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টা থেকে দিনব্যাপী আনর্ন্দযালি, আলোচনা সভা, কুইজ প্রতিযোগিতা, কেক কাটা, বৃক্ষ রোপণ, সেরা রক্তদাতাদের পুরস্কার প্রদানসহ নানা আয়োজন করা হয়। সংগঠনটির সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আদনানের সভাপতিত্বে সংগঠনটির উপদেষ্টা ও ইংরেজি বিভাগের প্রফেসর ডক্টর মেহের আলী, হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ডক্টর জাকির হোসেন, টিএসসিসির পরিচালক প্রফেসর ডক্টর রুহুল কে এম সালেহ, লোক প্রশাসন বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ডক্টর লুৎফর রহমান, একই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শাহাবুব আলম, রক্তিমার সাধারণ সম্পাদক শৈবাল নন্দী হিমুসহ সংগঠনটির বিভিন্ন পর্যায়ের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সংগঠনটির সহ-সভাপতি উম্মে হাবিবা হ্যাপী। এসময় বক্তারা রক্তদানের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে আলোচনা করেন। একই সঙ্গে সংগঠনের নবীন সদস্যদের রক্তদানের উৎসাহিত করেন। এ বিষয়ে রক্তিমার সাধারণ সম্পাদক শৈবাল নন্দী হিমু বলেন, রক্তিমার ৫ বছরের পদার্পণে সবাইকে শুভেচ্ছা জানাই। মানবতার স্বার্থে রক্তিমা ক্যাম্পাসসহ পার্শ্ববর্তী দুই জেলা কুষ্টিয়া ও ঝিনাইদহ রক্তদানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে এবং ভবিষ্যতেও রাখবে। সংগঠনের সবার সহযোগিতায় রক্ত দানের মাধ্যমে আরও এগিয়ে যাবে রক্তিমা।
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে