বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১
ওকালতি কড়চা

আইনজীবী হিসেবে ৫ বছরের অভিজ্ঞতা থেকে ৫টি শিক্ষা

ব্যারিস্টার শাইখ মাহদী
  ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ০০:০০

আইনের আঙিনায় পেশাজীবী হিসেবে ঘোরাঘুরি করছি মোটামুটিভাবে ২০১৫ সাল থেকেই, তবে বার কাউন্সিলের তালিকাভুক্ত আইনজীবী (অ্যাডভোকেট) হিসেবে ২৩.১২.২০২৩ তারিখে পাঁচ বছর পূর্ণ হলো।

মহাসাগরসম পেশা জীবনে ক্ষুদ্র এই যাত্রায় আমার শ্রদ্ধেয় অগ্রজদের কাছ থেকে ওকালতি পেশা সম্পর্কে যে পাঁচটি (পস্নাস ওয়ান) মৌলিক নীতি শিখেছি ও মেনে চলার চেষ্টা করছি -

ব্যাম্বু প্রিন্সিপল: বাঁশ গাছ প্রথম কয়েক বছর থাকে মাটির নিচে, শেকড় হিসেবে। মাটির ওপরে মাথা তুলতে বহুদিন লেগে যায়। তবে নিচের শেকড় মজবুত থাকলে মাথা ওপরে তোলার পর খুব অল্প সময়েই সে আশপাশের সব গাছকে ছাড়িয়ে যায়। আইনজীবীর পেশাগত এবং আর্থিক উন্নয়নটাও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই ব্যাম্বু প্রিন্সিপল অনুসরণ করে। সময়ের আগে সাধন হবে না। আর সময়ের আগে সাধন করতে গেলে নিজের সহকর্মীদের মধ্যেই 'পাকনা' টাইপ উপাধি জুটে যাবে, যেটা মোটেও কাম্য না। আইনজীবীর জন্য নিজের আঙিনায় সম্মান এবং সুনাম হচ্ছে সবকিছু।

নো টু ডেইজ উইল বি দ্য সেম : এই পেশায় (বিশেষত লিটিগেশন প্রাকটিসে) কোনো একঘেয়েমি আসতে পারে না, বা আসা উচিত নয়। আজকের দিনের কাজ/ব্যস্ততা/চাপ আগামীকালও একইভাবে থাকবে কিনা, কিংবা আগামীকালের জন্য নির্ধারণ করা পস্ন্যান পরিকল্পনা আপনি যথাসময়ে বাস্তবায়ন করতে পারবেন কিনা, তা কেউ জানে না। এইটা খুবই স্বাভাবিক এবং হাসিমুখে মেনে নিয়েই কাজ সামাল দিতে হবে। যে যত মাথাঠান্ডা রাখতে পারবেন, সে তত ভালো করবেন।

ফ্রেন্ডস অ্যান্ড ফ্যামিলি কামস লাস্ট: পেশাজীবী হিসেবে নিজের পরিবার, আত্মীয়স্বজন বা কাছের বন্ধুবান্ধবকে ক্লায়েন্ট হিসেবে নিয়ে তাদের নিজস্ব সমস্যা বা মামলা ডিল করার মতো নির্বুদ্ধিতা আর কিছু নেই। দিন শেষে হয় আপনি বন্ধু/আত্মীয় হারাবেন, নয়তো আপনার ক্লায়েন্ট হারাবেন, অথবা দু'টোই। কোনো সন্দেহ নাই যে, আপনার জীবনের প্রথম ক্লায়েন্টগুলো তাদের রেফারেন্সেই আসবে, কিন্তু স্বয়ং তাদেরই যদি আপনি ক্লায়েন্ট করে নেন, তাহলে বিপর্যয় অনিবার্য।

নো ওয়ান ইজ টু বিজি: পেশাজীবী হিসেবে শত ব্যস্ততার মাঝেও প্রয়োজনীয় সময় বা মনোযোগ বের করা যেতে পারে, যদি ইচ্ছা থাকে। ওই সময়টাতে কে কাকে কতটুকু অগ্রাধিকার দিচ্ছে তার উপরেই বিষয়টা নির্ভর করে। (তবে ইন প্র্যাকটিস এই বিষয়টা মেনটেইন আসলে কিছুটা জটিল, বিশেষ করে জুনিয়র আইনজীবীদের জন্য)

চুজ বিটুইন গুড, চিপ অ্যান্ড ফাস্ট: এই তিনটা বিষয় কোনো দিনও একসঙ্গে আসবে না, আপনার ক্লায়েন্টকে অবশ্যই এই তিনের মধ্যে যে কোনো দুইটা বিষয় বেছে নিয়ে তাতেই হ্যাপি থাকতে হবে। সার্ভিস যদি গুড এবং ফাস্ট চান, সেটা চিপ হবে না। সার্ভিস গুড এবং চিপ হলে সেটা ফাস্ট হবে না। আর যদি ফাস্ট এবং চিপ সার্ভিস চান, অবশ্যই সেটা গুড হবে না।

সর্বশেষ এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রিন্সিপল হচ্ছে, ইঞ্জিন ডাজনট স্টার্ট উইদাউট ফুয়েল। আপনি তেল বা জ্বালানি ছাড়া যেমন গাড়ি চালাতে পারবেন না, তেমনি যথাযথ ফিস ছাড়া আইনজীবীর কাছ থেকে মানসম্মত সেবা প্রত্যাশা করতে পারবেন না। কাজের চাপে আইনজীবীদের মাথা বেশিরভাগ সময়েই জট বেঁধে থাকে, যথাযথ ফিস দিয়েই এই জট খুলতে হয়। উকিল সাহেব যদি সাইনবোর্ড দিয়ে চ্যারিটি খুলে না থাকেন, সেক্ষেত্রে তার কাছে বিনামূল্যে সেবা চাওয়াটা অসৌজন্যতা।

শাইখ মাহদী, তরুণ আইনজীবী।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে