বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১

সুইডেনের আদালতে ইরানের সাবেক কর্মকর্তার যাবজ্জীবন কারাদন্ড বহাল

আইন ও বিচার ডেস্ক
  ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ০০:০০

১৯৮৮ সালে ইরানে রাজনৈতিক বন্দিদের ব্যাপক হত্যাযজ্ঞে ভূমিকার জন্য গত বছর অপরাধী সাব্যস্ত হওয়া ইরানের একজন সাবেক কর্মকর্তার সাজা এবং যাবজ্জীবন কারাদন্ড বহাল রেখেছেন সুইডেনের একটি আপিল আদালত।

২০২২ সালে স্টকহমের জেলা আদালতের রায়ে হত্যা এবং আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের জন্য হামিদ নুরিকে অপরাধী সাব্যস্ত করা হয়। ইরান এর তীব্র সমালোচনা করে এবং বলে যে এই রায় রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

আদালত কক্ষের বাইরে শত শত বিক্ষোভকারী এই আপিল আদালতের রায়কে স্বাগত জানান। তারা ইরানি শাসনের অবসান চেয়ে স্স্নোগান দেন। মন্তব্যের জন্য তাৎক্ষণিকভাবে নুরির আইনজীবীকে পাওয়া যায়নি।

ইরানের ফার্স সংবাদ সংস্থার সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে নুরির ছেলে মজিদ নুরি বলেন, এটি ন্যায়বিচার ছিল না, 'আমরা সুইডেনের উচ্চতর আদালতে যাব, আন্তর্জাতিক আদালতেও যাব এবং প্রমাণ তুলে ধরব'।

ইরানের কারাজে গোহারদাশত কারাগারে হত্যার জন্য একমাত্র নুরি বিচারের সম্মুখীন হয়েছে। ১৯৮৮ সালে ওই হত্যাযজ্ঞে ইরানিয়ান পিপলস মুজাহীদিনের সদস্যদের লক্ষ্যবস্তু করা হয়। এই দলটি এবং অন্যান্য রাজনৈতিক ভিন্ন মতাবলম্বী ইরানের বিভিন্ন অংশে লড়াই করছিল।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলছে যে, সরকারি আদেশে নিহতদের সংখ্যা প্রায় ৫০০০। তারা বলছে, ২০১৮ সালের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, 'প্রকৃত সংখ্যা এর চেয়েও বেশি হতে পারে'। ইরান এই হত্যার কথা কখনই স্বীকার করেনি।

সুইডেনের আইন অনুযায়ী বিদেশে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে অপরাধ করলে সুইডেনের নাগরিক এবং অন্যান্য দেশের নাগরিকদের সুইডেনের আদালতে বিচার হতে পারে। নুরিকে ২০১৯ সালে স্টকহোম বিমানবন্দরে গ্রেপ্তার করা হয়। সে সব অভিযোগ অস্বীকার করেন।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে