সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯
walton1

ইলন মাস্কের সিদ্ধান্তের জন্য ক্ষমা চাইলেন টুইটারের প্রতিষ্ঠাতা

যাযাদি ডেস্ক
  ০৬ নভেম্বর ২০২২, ১২:১৮

টুইটার কেনার পরই ইলন মাস্ক ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যে, বিপুল পরিমাণ কর্মী ছাঁটাইয়ের পথে হাঁটবে সংস্থা। সেই সিদ্ধান্তই বাস্তবায়ন করেছেন তিনি। শুক্রবার এক মেইলে চাকরি গেছে কয়েক হাজার কর্মীর। মাস্কের এমন সিদ্ধান্তের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন টুইটারের প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক ডরসি।

শনিবার টুইটবার্তায় জ্যাক বলেন, ‘টুইটারের সবকর্মীরাই অত্যন্ত কর্মদক্ষ। কঠিন সময়ের মধ্যেও তারা ঠিক পথ খুঁজে বের করবেন। আমি জানি যে বর্তমান পরিস্থিতির জন্য অনেকেই আমার ওপর হতাশ। সকলের এই পরিস্থিতির জন্য আমি দায়বদ্ধ। আমি খুব তাড়াতাড়ি কোম্পানির আয়তন বাড়িয়ে ফেলেছি। আমি ক্ষমাপ্রার্থী।’ 

আরও একটি টুইটে টুইটারের কর্মীদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

গত সপ্তাহেই টুইটার কিনে নেন ইলন। ২৭ অক্টোবর টুইটারের মালিক হওয়ার কয়ের ঘণ্টার মধ্যেই টুইটারের সিইও পরাগ আগারওয়াল, লিগাল এগজিকিউটিভ বিজয়া গাড্ডে, চিফ ফিনান্সিয়াল অফিসার নেড সিগাল এবং জেনারেল কাউন্সেল শিন এজেটকে ছাঁটাই করেন মাস্ক।

সেই সময়ই মার্কিন কাগজে আভাস দিয়েছিল যে, বড়সড় পরিবর্তনের পথে যাবেন ইলন। নতুন করে সাজাবেন টুইটার। যার ফলে চাকরি যেতে পারে কয়েক হাজার কর্মীর। শুক্রবার সেটিই সত্যি হলো।

কর্মীদের ছাঁটাই করার পর ইলন মাস্ক দাবি করেছেন যে, তার কাছে এটি ছাড়া কোনো উপায় ছিল না। 

এছাড়া অ্যাকাউন্টে ব্লু ব্যাজ রাখতে মাসে ৮ ডলার করে পরিশোধ করতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন টেসলা প্রধান। এরই মধ্যে টুইটারের পরিচালনা বোর্ড ভেঙে দিয়েছেন মাস্ক। তিনিই এখন সর্বেসর্বা। তার এসব সিদ্ধান্তে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে মাইক্রোব্লগ সাইটটির ভবিষ্যত নিয়েও ব্যবহারকারীরা চিন্তিত হয়ে পড়েছেন।

যাযাদি/ সোহেল

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে