শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০
walton

ফেব্রুয়ারির শেষে নতুন করে রুশ হামলার আশঙ্কা করছে ইউক্রেন

যাযাদি ডেস্ক
  ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৯:২৭
ইউক্রেনে আসা পশ্চিমা অস্ত্রশস্ত্রের বিষয়ে প্রশিক্ষণ শুরু হবে আজ সোমবার থেকে। ছবি : রয়টার্স

ইউক্রেনের বিদায়ী প্রতিরক্ষামন্ত্রী অ্যালেক্সি রেজনিকভ জানিয়েছেন তার দেশ মনে করছে যে এ মাসের শেষভাগে রাশিয়া ইউক্রেনে নতুন করে হামলা চালাবে।

সংবাদ সম্মেলনে রেজনিকভ বলেন, এই সময়ের মধ্যে ইউক্রেনে পশ্চিমা দেশগুলোর প্রতিশ্রুত অস্ত্রের সব চালান পৌঁছাবে না, তবে রুশ হামলা প্রতিহত করতে প্রয়োজনীয় মজুদ তাদের রয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, ইউক্রেনের সৈন্যরা দেশটির পূর্ব প্রান্তে বাখমুত, ভুলেদার ও লাইমানে প্রচণ্ড যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছে।

এদিকে, রেজনিকভের এ বক্তব্য এলো তাকে সরিয়ে নতুন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নিয়োগের ঘোষণা দেওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগে। দেশটির সামরিক গোয়েন্দা প্রধান কাইরিলো বুদানোভ তার স্থলাভিষিক্ত হতে যাচ্ছেন বলে জেলেনস্কির দলের একটি সূত্র জানিয়েছে।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে দুর্নীতি কেলেঙ্কারির অভিযোগ আসার পর মন্ত্রিসভায় এই পরিবর্তন এলো। তবে রেজনিকভ কিছু প্রতিরক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আনা সেনাবাহিনীর খাবার কিনতে সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

ইউক্রেনের আইনপ্রণেতা ডেভিড আরখামিয়া রোববার মন্ত্রিসভার এই পরিবর্তন প্রসঙ্গে ঘোষণা দেন। পশ্চিমা অস্ত্রশস্ত্র আনার ক্ষেত্রে রেজনিকভ ছিলেন একটি পরিচিত মুখ।

এদিকে, প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি তার সরকারের দুর্নীতি বিরোধী অভিযানে দুর্নীতির অভিযোগে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন সিনিয়র কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করেছেন।

অন্যদিকে এর আগে এক সংবাদ সম্মেলনে রেজনিকভ বলেছিলেন, নতুন করে আক্রমণ পরিচালনা করতে রাশিয়ার প্রয়োজনীয় গোলাবারুদ নেই। তবে তা সত্ত্বেও ফেব্রুয়ারির ২৪ তারিখে আগ্রাসনের এক বছর পূর্তিতে মস্কো ব্যাপক হামলার পরিকল্পনা করছে বলেও তিনি জানান।

রেজনিকভ জানান, পূর্ব দনবাস এলাকাসহ ইউক্রেনের দক্ষিণ অংশ কব্জা করতে রাশিয়া তার সামরিক শক্তি ব্যবহারে অগ্রাধিকার দিচ্ছে। তিনি জানান, তার দেশের সৈন্যরা জার্মানির তৈরি লেপার্ড ট্যাঙ্ক চালাতে আজ সোমবার (৬ ফেব্রুয়ারি) থেকে প্রশিক্ষণ শুরু করবে।

রেজনিকভ আরও জানান, ইউক্রেন তার সংগ্রহ করা দীর্ঘ পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রগুলো দিয়ে রাশিয়ার ভূখণ্ডে আক্রমণ চালাবে না, বরং তার দেশে দখলদার রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে এই অস্ত্রশস্ত্র ব্যবহার হবে।

এসএম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে