বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

কাল দাফন, তেহরানে রাইসির জানাজায় মানুষের ঢল

যাযাদি ডেস্ক
  ২২ মে ২০২৪, ১১:৪৭
আপডেট  : ২২ মে ২০২৪, ১২:৩১
ছবি-সংগৃহিত

গতকাল থেকে শুরু হয়েছে ইরানের সাবেক প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির দাফন প্রক্রিয়া। একে একে পাঁচ শহরে জানাজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আজ সবচেয়ে বড় জানাজা অনুষ্ঠিত হয় রাজধানী তেহরানে। সেই নামাজে ইমামতি করেন ইরানের সর্বেোচ্চ ধর্মীয় ও ক্ষমতাধর ব্যক্তি আলী খোমেনি। তারপর তার কফিন নিয়ে যাওয়া হয় গ্রামের বাড়িতে। সেখানে কাল বৃহস্পতিবার তাকে দাফন করা হবে।

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি ও তার সফরসঙ্গীদের নামাজে জানাজায় যোগ দিতে বুধবার তেহরানের রাস্তায় জড়ো হয়েছেন হাজার হাজার ইরানি।

শহরের কেন্দ্রস্থলে, রাইসির প্রতিকৃতি হাতে লোকেরা তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশে জড়ো হয়। ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি রাইসি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আবদুল্লাহিয়ানসহ তার সঙ্গীদের জন্য প্রার্থনা করেন

খবর অনুসারে, তেহরান বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে বুধবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৭টায় রাইসি ও তার সঙ্গে নিহত অন্যদের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

তেহরানের গভর্নর জেনারেল আলীরেজা ফাখারি বলেছেন, ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির মরদেহকে বিদায় জানাতে রাজধানী তেহরান একটি শোক মিছিল আয়োজনের জন্য ভালোভাবেই প্রস্তুত নেয়া হয়। তিনি বলেন, আমরা আবারো দেখাবো, ইরানের সকল পেশার সকল মানুষ জাতীয় সংহতি প্রদর্শন এবং ইসলামী প্রজাতন্ত্র ব্যবস্থার আদর্শ অনুসরণে ঐক্যবদ্ধ।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার ইরানের উত্তর–পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর তাবরিজে রাইসি ও তার সফরসঙ্গীদের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। তাবরিজের হাজার হাজার ইরানি চোখের জলে এই নেতাকে বিদায় জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাইসির কফিন কোম শহরে নিয়ে যাওয়া হয়, যেখানে ইব্রাহিম রাইসি পড়াশোনা করেছিলেন। কোমে আরেকটি জানাজা শেষে রাইসি ও তার সঙ্গীদের মরদেহ তেহরানে আনা হয়।

বার্তা সংস্থা তাসনিম জানিয়েছে, বুধবার সকালে জানাজা শেষে সন্ধ্যায় তেহরানে নিহতদের স্মরণে এক অনুষ্ঠানে বিদেশি কর্মকর্তা ও উচ্চপদস্থ প্রতিনিধিরা যোগ দেবেন। সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে রাইসিকে আগামীকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ইরানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শহর মাশহাদে দাফন করা হবে।

গত রোববার ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির আবদুল্লাহিয়ান উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশে হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত হন। সূত্র : ইরনা

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে