বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর এক লাইনের শুভেচ্ছা বার্তা মোদিকে

যাযাদি ডেস্ক
  ১০ জুন ২০২৪, ২৩:২৯
শাহবাজ শরীফ, নরেন্দ্র মোদি

মাত্র এক লাইন লিখলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ। প্রতিবেশি দেশগুলোর প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপ্রতিরা ভারতের নতুন প্রধানমন্ত্রীর শপথ অনুষ্ঠানে শরীরের অংশ নেন। সেখানে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী এক বাক্যে শেষ করেন অভিনন্দন বার্তা। উল্লেখ, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকেও শপথ অনুষ্ঠানে দাওয়াত দেয়া হয়।

জানা যায়, ভারতে ২০২৪ লোকসভা ভোটের ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে গত ৪ জুন। তারপর কেটে গিয়েছে ছয় দিন। মাঝে ৯ জুন প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ পর পর তৃতীয়বারের জন্য নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। সেই দিনই আবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারিয়েছে ভারত। এরপর প্রধানমন্ত্রী পদে মোদিকে শুভেচ্ছা পাকিস্তান। ভোটের ফলাফলের ঠিক ছয় দিন পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্য ইসলামাবাদের অভিনন্দন বার্তা।

ভারতের ১৫তম প্রধানমন্ত্রী পদে বসার জন্য সৌজন্যমূলক অভিনন্দন বার্তা পাঠাল পাকিস্তান।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ এক লাইনের শুভেচ্ছা বার্তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্য এক্সে (সাবেক টুইটার) পোস্ট করেন। সেখানে লেখা রয়েছে, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার জন্য নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন।’

এর আগে, গত ৪ জুনের ফলাফলে বিজেপি দেশে এককভাবে সবচেয়ে বেশি আসন দখল করে অন্যদের তুলনায়। তবে ২৪০টি আসন নিয়ে বিজেপি একা পার করতে পারেনি ম্যাজিক ফিগার। জোটের শরিকদের সমর্থনে এরপর পর পর তৃতীয়বারের জন্য এলো এনডিএ সরকার। এরপর নরেন্দ্র মোদি শপথ গ্রহণ করেন ৯ জুন।

ভোট পর্ব জুড়ে পাকিস্তানকে ঘিরে বিজেপি নেতারা এবং প্রধানমন্ত্রী মোদি একাধিক মন্তব্য করেন। অমিত শাহের মন্তব্য বহুবার কাশ্মির ইস্যু এসেছে। পাকিস্তান শাসিত কাশ্মির নিয়ে হুঙ্কার দিয়েছেন অমিত শাহ। পাকিস্তান, চীনকে গর্জনের সুর এসেছে রাজনাথ সিংয়ের কণ্ঠেও। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও পুলওয়ামা, পাকিস্তান ইস্যুতে সরব হন।

পাকিস্তান জানিয়েছে, সকল প্রতিবেশীর সাথে সহযোগিতামূলক বন্ধন তারা চায়। এই প্রতিবেশীদের তালিকায় ভারতও রয়েছে।

যদিও পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্রকে যখন জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল যে তারা কেন নরেন্দ্র মোদিকে নির্বাচনী জয়ের জন্য অভিনন্দন জানায়নি, তখন তিনি সেই প্রশ্ন এড়িয়ে গিয়েছেন বলে জানা গেছে।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মুমতাজ জাহরা বালোচ বলেন, এটা ভারতের জনগণের অধিকার যে তারা তাদের নিজস্ব নেতৃত্ব সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেবেন, ভারতের নির্বাচনী প্রক্রিয়া সম্পর্কে পাকিস্তানের কোনো বক্তব্য নেই। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে