শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

কনে পছন্দ হয়নি বলায় দুলাভাইকে পিটিয়ে হত্যা

মোল্লাহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি
  ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ১১:১১
আপডেট  : ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ১৩:০৭
প্রতিকি ছবি

বাগেরহাটের মোল্লাহাট উপজেলার আংড়া গ্রামে বিয়ের জন্য মেয়ে দেখতে এসে পছন্দ না হওয়ায় মেয়ের পরিবারের হামলায় নিহত হয়েছেন ছেলের ভগ্নিপতি আজিজুল হক মোল্লা (৪৫)। এ হামলায় শিশু - নারী সহ ছেলে পক্ষের আরো ১০ জন আহত হয়েছে। ১২ই এপ্রিল শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার আংড়া গ্রামে মেয়েদের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আজিজুল হক মোল্লা খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলার ইছামতি গ্রামের শাহাদাত হোসেন মোল্লার ছেলে ও গাংনী মাতাচর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর জামাই।

ছেলে পক্ষ জানায়, গাংনী ইউনিয়নের দফাদার ও গাংনী মাতারচর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে হাফিজুরের সাথে আংড়া গ্রামের শাহাদাত মুন্সির মেয়ে সার্জিনার বিয়ের জন্য পারিবারিক ভাবে দেখা শোনা হয়। হাফিজুর ঢাকা একটি কোম্পানিতে চাকরি করায় সরাসরি দেখা না হলেও ছবি এবং ফেসবুকের মাধ্যমে যোগাযোগ হয়। এক পর্যায়ে উভয় পরিবারের মতে শুক্রবার ছেলে মেয়ের সরাসরি দখা এবং পছন্দ হলে ওই দিন বিয়ে (কাবিন) হওয়ার কথা ছিল। যথারীতি ওই দিন ছেলে সহ ২০ জন মেয়ের বাড়িতে যায়। কিন্তু মেয়ে পক্ষ বিয়ের জন্য কাবিন রেজিষ্ট্রার এনে রাখে। এরপর মেয়েকে দেখার পর অপছন্দ করে ছেলে। এ নিয়ে দুই পক্ষের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ওই বাড়ি থেকে ফিরে আসার সময় চলা (জ্বালানী কাঠ ) ও লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায় মেয়ে পক্ষ। এতে তাদের একজন নিহত ও ১০ জন আহত হয়।

থানা অফিসার ইনচার্জ এস এম আশরাফুল আলম জানান, একটা বিবাহের ঘটনা কেন্দ্র করে মেয়েকে পছন্দ না করায় উভয় পক্ষের হাতাহাতি পরে মারামারি হয়। এতে ছেলের দুলাভাই নিহত হয়। এঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া মামলার প্রধান আসামি শাহাদাত মুন্সিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মেয়ের মা সিমা জানান, দীর্ঘদিন ধরে উভয় পরিবারের দেখাশোনা সহ ছেলের মা বাবা মেয়েকে তাদের ছেলের বউ হিসেবে নাকফুল পরিয়েছে। এরপর বিয়ের দিন তারিখ ধার্য করা হয়। ছেলে পক্ষের ১০ জন আসার কথা ছিল কিন্তু তারা ২০ জন আসে। এরপর মেয়ের হাতে এক হাজার টাকা ধরিয়ে দেয় এবং বলে তাদের পছন্দ হয় নি। এরপর কে বা কারা মারধর করছে তিনি তা জানেন না।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে