রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১

এমপি আনারের খণ্ডিত লাশ নিয়ে যেভাবে বের হন খুনিরা

যাযাদি ডেস্ক
  ২৪ মে ২০২৪, ১৮:৩০
ছবি-সংগৃহীত

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যায় একটি সিসি ক্যামেরার ফুটেজ প্রকাশ্যে এসেছে। এতে দেখা যায়, ভারতীয় সময় ১৪ মে বিকেল ৫টা ১১ মিনিটের দিকে দুই ব্যক্তি অ্যাপার্টমেন্ট থেকে বেরিয়ে যাচ্ছেন। তাদের একজনের কাছে একটি বড় স্যুটকেস রয়েছে, অন্যজনের কাছে বেশ কয়েকটি প্লাস্টিকের ব্যাগ রয়েছে।

প্রকাশ্যে আসা ১ মিনিট ৯ সেকেন্ডের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে, বামদিকের একটি ঘর থেকে ট্রলি নিয়ে বের হচ্ছেন এক অভিযুক্ত। ডানদিকে লিফটের বোতাম টিপে অপেক্ষা করেন তিনি। সঙ্গে আরও একজন ছিলেন। তার হাতে আরও তিনটি ছোট ছোট ব্যাগ ছিল। লিফট এলে তাতে ট্রলি নিয়ে উঠে পড়েন দু’জনই।

ওই ফুটেজেই অন্য একটি দৃশ্যে দেখা গিয়েছে, তিনজন বাম দিকের ঘরটিতে ঢুকছেন। ঘরে ঢোকার আগে জুতো খুলে রেখে দিচ্ছেন দরজার পাশের জুতো রাখার তাকে। এই ফুটেজে খুনের অন্যতম অভিযুক্ত আমানুল্লাহকে দেখা গিয়েছে।

বাংলাদেশ পুলিশ ইতোমধ্যে তাকে গ্রেফতার করেছে। এছাড়াও ফুটেজে দেখা গিয়েছে ‘কসাই’ জিহাদ হাওলাদারকে। মুম্বাই থেকে তাকে ডেকে এনেছিলেন অভিযুক্তরা। বৃহস্পতিবার (২৩ মে) তাকে বনগাঁ থেকে গ্রেফতার করে সিআইডি।

শুক্রবার (২৪ মে) সকালে জিহাদকে বারাসত আদালতে হাজির করা হয়। আদালত তাকে ১২ দিনের সিআইডি হেফাজতে পাঠিয়েছে।

এ সিসিটিভি ফুটেজের বিষয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) সূত্রে জানা যায়, সিসিটিভি ফুটেজে দেখা দুই ব্যক্তি হলেন- আমানুল্লাহ আমান ওরফে শিমুল ভুঁইয়া ও জিহাদ ওরফে জাহিদ। আমান ট্রলি ব্যাগে করে ও জাহিদ পলিথিন ব্যাগে করে আনারের খণ্ড খণ্ড মরদেহ নিয়ে ফ্ল্যাট থেকে বের হয়ে যান মরদেহ গুম করার জন্য।

ডিবির হাতে গ্রেপ্তার আমান সিসিটিভির ফুটেজের ঘটনার কথা স্বীকার করেছেন। তিনি ডিবিকে জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন, মরদেহ খণ্ডবিখণ্ড করে তারা ট্রলি ও ব্যাগে করে ফ্ল্যাট থেকে বের হন।

জিজ্ঞাসাবাদে আমান আরও জানায়, এমপি আনারকে বালিশচাপা দিয়ে হত্যার পর হাত-পাসহ শরীরের প্রত্যেকটি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ আলাদা করা হয়। এরপর কলকাতার হাতিশালা বর্জ্য খালে ফেলে দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার হত্যার তদন্ত করতে ঢাকায় আসা কলকাতার তদন্ত সংশ্লিষ্ট পুলিশের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করেন ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা শাখা) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

বৈঠক শেষে তিনি বলেছেন, আমাদের কাছে আটক তিন আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে কলকাতা থেকে আসা তদন্ত সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধি দল। আমাদের তদন্ত সংশ্লিষ্ট তথ্যও আমরা শেয়ার করেছি। তারা চেষ্টা করছে, আশা করছি খুব শিগগিরই তারা হত্যার শিকার ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারের মরদেহ উদ্ধারে সক্ষম হবেন।

যাযাদি/ এসএম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে