শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

আন্দোলন শুরু হয়ে গেছে, তত্ত্বাবধায়ক ছাড়া ভোট নয়: ফখরুল

যাযাদি ডেস্ক
  ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:৫৮

আন্দোলন শুরু হয়ে গেছে, এই আন্দোলন চলতে থাকবে। নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া এদেশে কোনো ভোট হবে না এবং ভোট হতে দেওয়া হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে গাজীপুরের কাপাসিয়ায় এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। দলের প্রয়াত স্থায়ী কমিটি সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আ স ম হান্নান শাহর ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মৃতিচারণ ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বিএনপি মহাসচিব।

ফখরুল বলেন, ‘আন্দোলন শুরু হয়ে গেছে, আন্দোলন চলছে, আন্দোলন চলবে এই সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত। নির্বাচনকালে দলীয় সরকার থাকলে, বিশেষ করে আওয়ামী লীগ সরকার থাকলে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। সেই কারণে আমরা বলছি, নির্বাচন যদি হতে হয়, তাহলে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনেই হতে হবে। অন্যথায় কোনো নির্বাচন এই বাংলাদেশের মাটিতে হবে না, নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া এদেশে কোনো নির্বাচন হবে না।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘এই সরকার আদালতকে কুক্ষিগত করেছে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে আটক রেখে জামিন দেওয়া হচ্ছে না। অথচ যারা ক্যাসিনো মামলার আসামি, জালিয়াতির আসামি, ব্যাংক ডাকাতি করছে, মানুষ খুন করছে তাদের সাথে সাথে জামিন দেওয়া হচ্ছে। কারণ তিনি জামিন পেয়ে বাইরে বের হয়ে এলে, তারা মনে করেন হ্যামিলনের বংশিবাদকের মতো হাজার হাজার, লক্ষ লক্ষ মানুষ বের হয়ে আসবে। আর এই সরকারের গদি উল্টে যাবে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা কারও দয়ায় এই দেশটি পাইনি। যুদ্ধ করে দেশটি পেয়েছি। আমরা যুদ্ধ করেছি দেশের জন্য, যুদ্ধ করেছি গণতন্ত্রের জন্য। সেই দেশটি কিছুসংখ্যক লুটেরার হাতে, কিছুসংখ্যক দুর্বৃত্তের হাতে দিয়ে দিতে পারি না।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের সাহেব চিৎকার করে বলেন, আমরা দিবা স্বপ্ন দেখি। তিনি বলছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে না। কেন রে ভাই? তত্ত্বাবধায়ক সরকারের নির্বাচনে এত ভয় কেন? কারণ আপনারা জানেন, তত্ত্বাবধায়ক ও নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে জীবনেও ক্ষমতায় আসতে পারবেন না। ২০টি আসন‌ও পাবেন না। তাই তারা বলছে, তত্ত্বাবধক সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে না। আমাদের কথাও পরিষ্কার, তত্ত্বাবধায়ক সরকার হতে হবে, তা না হলে কোনো নির্বাচন হবে না।’

শুক্রবার জেলার কাপাসিয়া উপজেলার ঘাগটিয়া চালা ময়দানে অনুষ্ঠিত এই স্মরণ সভায় জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুল হক মিলনের সভাপতিত্বে ও কাপাসিয়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আজিজুর রহমান প্যারার সঞ্চালনায় জেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক ও মরহুম হান্নান শাহের ছেলে শাহ রিয়াজুল হান্নান, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, কামরুজ্জামান রতন, সহসাংগঠনিক বেনজির আহমেদ টিটু, হুমায়ুন কবির খান, রফিকুল ইসলাম, কাজী ছাইয়েদুল আলম বাবুল, মেয়র মুজিবুর রহমান, ওমর ফারুক প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এর আগে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলীয় নেতাদের সঙ্গে নিয়ে মরহুম হান্নান শাহর কবর জিয়ারত করেন।

যাযাদি/ সোহেল

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে