পুঁজিবাজারে থামল দরপতন

পুঁজিবাজারে থামল দরপতন

প্রথম তিন কার্যদিবসের মতো সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস বুধবারও (৩ ফেব্রুয়ারি) দেশের পুঁজিবাজারে ব্যাংক, বীমা এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম কমেছে। তবে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) বিশেষ কায়দায় বিনিয়োগের ফলে সূচকের পতন ঠেকেছে।

বিশেষ কায়দাটি হলো- বড় মূলধনী কোম্পানি গ্রামীণফোন, রেনেটা, বেক্সিমকো ফার্মা এবং স্কয়ার ফার্মার শেয়ারের বিনিয়োগ। এই কোম্পানিগুলোতে বিনিয়োগ করে করে দাম বাড়াতে অবদান রেখেছে আইসিবি। এই শেয়ারগুলোর দাম বাড়ায় দিনভর ওঠানামার পর সূচক বেড়েছে।

এদিন দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক বেড়েছে ১৭ পয়েন্ট। তবে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক কমেছে ৭ পয়েন্ট। সূচকের পাশাপাশি কমেছে প্রায় সব কোম্পানির শেয়ারের দাম।

বুধবার ৬০ শতাংশের বেশি কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে। ২৫ শতাংশের বেশি শেয়ারের দাম অপরিবর্তিত ছিল। তারপরও সূচক বেড়েছে। ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, ফেব্রুয়ারির তৃতীয় কার্যদিবস বুধবার মোট ৩৫৪টি সিকিউরিটিজের লেনদেন হয়েছে। এরমধ্যে দাম বেড়েছে ৬৭টির, কমেছে ১৮০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১০৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম। অর্থাৎ ৬০ শতাংশের বেশি কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে।

বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম কমলেও তিন সূচকে পথ চলা ডিএসইর প্রধান সূচক আগের দিনের চেয়ে ১৭ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ৫৮১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএস-৩০ সূচক আগের দিনের চেয়ে ৪ পয়েন্ট এবং ডিএসইএস সূচক ২৭ পয়েন্ট বেড়েছে।

এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৭৯৪ কোটি ৬১ লাখ ৪২ হাজার টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৭১৮ কোটি ২২ লাখ ১৮ হাজার টাকা। অর্থাৎ লেনদেন কিছুটা বেড়েছে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে- বেক্সিমকো, রবি আজিয়াটা, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, মীর আক্তার, বেক্সিমকো ফার্মা, লঙ্কা-বাংলা ফাইন্যান্স, লাফার্জ হোলসিম, এনার্জিপ্যাক, সামিট পাওয়ার এবং স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড।

দাম বাড়ার শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে মীর আক্তার হোসেন, প্রাইম ইনস্যুরেন্স, ফনিক্স ফাইন্যান্স, লাফার্স হোলসিম, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্স, বে লিজিং, ন্যাশনাল লাইফ, প্রাইম ইসলামী লাইফ এবং এসএস স্টিল লিমিটেড।

দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক আগের দিনের চেয়ে ৭ পয়েন্ট কমে ১৬ হাজার ১৯০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এদিন সিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ৫৪টির, কমেছে ১১৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৩টির। লেনদেন হয়েছে মোট ৪৩ কোটি ৬১ লাখ ৬০ হাজার টাকার। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ১০০ কোটি ৮৯ লাখ ৯ হাজার টাকার।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে