শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
পাকিস্তানে অস্থিরতা

ফের হত্যা চক্রান্তের অভিযোগ তুলেছেন ইমরান খান

পাঞ্জাব ও ইসলামাবাদের পুলিশ প্রধানরা তাকে হত্যায় নতুন করে পরিকল্পনা সাজিয়েছেন
যাযাদি ডেস্ক
  ২৪ মার্চ ২০২৩, ০০:০০
পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

আবারও হত্যা চক্রান্তের অভিযোগ তুলেছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিনি দাবি করেছেন, পাঞ্জাব ও ইসলামাবাদের পুলিশ প্রধানরা তাকে হত্যায় নতুন করে পরিকল্পনা সাজিয়েছেন। তাদের নির্দেশনা দিচ্ছেন তাদের আসল 'নিয়ন্ত্রকরা'। ইমরানের দাবি, গতবার ব্যর্থ হওয়ার পর এবার তাকে হত্যায় অত্যন্ত সিরিয়াস এই চক্রান্তকারীরা। সংবাদসূত্র : ডন

বুধবার লাহোরে নিজের বাসভবন জামান পার্ক থেকে ভাষণ দেন ইমরান খান। সেখানে তিনি বলেন, 'পাঞ্জাব ও ইসলামাবাদ পুলিশের আইজি দুটি পৃথক স্কোয়াড গঠন করেছে। ওই স্কোয়াডের সদস্যরা পিটিআই কর্মীদের সঙ্গে যোগ দেবে এবং পুলিশের ওপর গুলি চালাবে... এটি সশস্ত্র সহিংসতার উসকানি দেবে এবং অবশেষে (ঘরের ভেতরে) পৌঁছে এক বা দুই দিনের মধ্যে তারা আমাকে হত্যা করবে।'

এদিকে, কথিত এই পরিকল্পনার আলোকে পাকিস্তানের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী তার সমর্থকদের জন্য বিশেষ নির্দেশনাও জারি করেছেন। যে কোনো মূল্যে পুলিশকে উসকানি দেওয়া থেকে বিরত থাকতে তিনি পিটিআই কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন। ইমরান বলেছেন, 'পুলিশ যদি কোনো ওয়ারেন্ট বা অন্য কোনো বিষয়ে আমার কাছে যেতে চায়, তাহলে তাদের সরাসরি আমার কাছে যেতে দাও।'

তিনি কখনোই তার দলের কর্মীদের ক্ষতি করতে চান না উলেস্নখ করে ইমরান বলেন, 'এমনকি যদি আমাকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং তারা আমাকে জেলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে, আমি আনন্দের সঙ্গে জেলে যাব। বর্তমান সরকার ব্যর্থ হয়েছে এবং আমাকে হত্যার পরিকল্পনাও ব্যর্থ হয়েছে। এখন তারা বিচলিত হয়ে পড়েছে এবং চরম পদক্ষেপ নিচ্ছে।'

ক্রিকেটে বিশ্বকাপ জয়ী সাবেক এই তারকা ক্রিকেটার একই সঙ্গে যুবকদের ক্ষমতাসীন সরকারের নিপীড়নের বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর অঙ্গীকার করার আহ্বান জানান। ইমরান বলেন, 'শেষ বল পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যান, কারণ সরকার ভয়ের পরিবেশ তৈরি করতে চায় যাতে কেউ দাঁড়িয়ে তাদের অন্যায় সম্পর্কে প্রশ্ন না করে।' তিনি অভিযোগ করেন, 'যে কয়েকজন ক্ষমতার করিডোরে বসে সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন, তারাই প্রকৃত বিশ্বাসঘাতক।'

এদিকে পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন (ইসিপি) বুধবার নাটকীয়ভাবে পাঞ্জাবের আসন্ন নির্বাচন চলতি বছরের ৮ অক্টোবর পর্যন্ত স্থগিত করার ঘোষণা দিয়েছে। বর্তমান তফসিল অনুযায়ী, আগামী ৩০ এপ্রিল এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। এর ঘণ্টাখানেক আগে দেওয়া ওই ভাষণে ইমরান বলেন, আগামী ৩০ এপ্রিল নির্বাচন হওয়ার সময় নির্ধারিত হওয়া সত্ত্বেও সরকার নির্বাচনী সমাবেশ এবং জনসমাবেশের অনুমতি দিচ্ছে না।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে