বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

সেশনজট যেন মরণব্যাধি

নতুনধারা
  ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০:০০
সেশনজট বরাবরের মতোই একজন শিক্ষার্থীর ভবিষ্যতের প্রতি হুমকিস্বরূপ। একজন শিক্ষার্থীর স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শেষ করতে প্রায় বছর পাঁচেকের মতো সময় লাগে। কিন্তু এই নির্ধারিত সময়ের যদি বেশি লাগে তাহলে নিশ্চিত ধরে নেওয়া যায়, এটি একজন শিক্ষার্থীর চাকরির নির্ধারিত সময়সীমাতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে এবং তার ভবিষ্যৎ এক ধ্বংসের পথে ধাবিত হতে যাচ্ছে। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আল ফিকহ্‌ অ্যান্ড লিগ্যাল স্টাডিজ, বাংলা, ইংরেজি, কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এবং আরও কয়েকটি বিভাগে সেশনজট রয়েছে। আর এই সেশনজটের ফলে একজন শিক্ষার্থীর স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শেষ করতে সাত থেকে আট বছর অনেক সময় এরও বেশি সময় লেগে যায়। এত দীর্ঘ সময় ধরে আটকে থাকলে পরিবারের কাছে যেমন বোঝা হয়ে ওঠে, ঠিক তেমনি একজন শিক্ষার্থী শারীরিক ও মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে। এমনকি সমাজের কাছে সর্বোপরি দেশের কাছেও বোঝা হয়ে পড়ে। বেশির ভাগ সময় দেখা যায়, সেশনজটে আটকে পড়ে একজন শিক্ষার্থী উপার্জন করার বয়সেও শিক্ষাজীবনে আটকে থাকে অথচ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ে তারই সমবয়সি বন্ধুরা শিক্ষাজীবন শেষ করে চাকরি জীবনে প্রবেশ করে। এমন পরিস্থিতি একজন শিক্ষার্থীকে যেমন অনিশ্চয়তার দিকে ঠেলে দেয় অন্যদিকে কোনো কোনো শিক্ষার্থী মানসিক যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়। তাই উক্ত বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আশু পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য বিশেষ অনুরোধ করছি। রেখা খাতুন শিক্ষার্থী, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে