প্রতিমার মাটির কাজ শেষ পর্যায়ে, ব্যস্ত শিল্পীরা

প্রতিমার মাটির কাজ শেষ পর্যায়ে, ব্যস্ত শিল্পীরা

হিন্দুধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব ঘিরে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন শিল্পীরা। দুর্গা প্রতিমার মাটির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। ইতোমধ্যে বাঁশ, খড়, কাঠ, সুতলিসহ দুর্গা প্রতিমার কাঠামো তৈরির কাজ শেষ হয়েছে। এখন শুধু চলছে দুর্গা প্রতিমাসহ অন্যান্য প্রতিমার মাটির কাজ। মাটির কাজ শেষে কয়েকদিন পর শুরু হবে রঙের কাজ। এ মুহূর্তে শিল্পীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। প্রতিনিধিদের পাঠানো বিস্তারিত খবর-

চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি জানান, কুড়িগ্রামের চিলমারীতে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন শিল্পীরা। তবে আগের চেয়ে কাজ বাড়লেও ব্যয় বাড়ায় তারা খরচ নিয়ে শঙ্কিত।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় মন্দিরে মন্দিরে মাটি দিয়ে প্রতিমা তৈরির কাজ চলছে। দেবী দুর্গার প্রতিমা ছাড়াও কার্তিক, গণেশ, লক্ষ্ণী ও সরস্বতীসহ অন্যান্য প্রতিমা তৈরির কাজ করছেন শিল্পীরা। উপজেলা পূজা উদ্‌যাপন কমিটির তথ্যমতে, এবার উপজেলার ৩০টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের চিলমারী উপজেলা শাখার সভাপতি সচীন্দ্র নাথ বর্মণ বলেন, সরকার তাদের সার্বিকভাবে সহযোগিতা করছে। তবে আগের চেয়ে খরচ বাড়ায় ব্যয় বাড়বে।

চিলমারী থানার ওসি আতিকুর রহমান বলেন, হিন্দুধর্মাবলম্বীদের প্রধান উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সজাগ দৃষ্টি রাখছে।

বোদা (পঞ্চগড়) প্রতিনিধি জানান, পঞ্চগড়ের বোদায় ৯৫টি পূজামন্ডপে শারদীয় দুর্গা উৎসবের প্রস্তুতি চলছে। উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ৯৫টি পূজামন্ডপে আগামী ১-৫ অক্টোবর সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা জাঁকজমকভাবে অনুষ্ঠিত হবে।

উপজেলার বিভিন্ন পূজামন্ডপ ঘুরে জানা যায়, ইতোমধ্যে প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে। কারিগররা বর্তমানে ব্যস্ত সময় পার করছেন। শারদীয় দুর্গোৎসব সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে পালনে আইনশৃঙ্খলা ব্যবস্থা জোরদার করা হবে বলে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানা গেছে।

দুপচাঁচিয়া (বগুড়া) প্রতিনিধি জানান, বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় দুর্গা প্রতিমার মাটির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। মাটির কাজ শেষে কয়েকদিন পর শুরু হবে রঙের কাজ। এ মুহূর্তে শিল্পীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। মন্ডপ কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা মোতাবেক প্রতিটি প্রতিমার নান্দনিক সৌন্দর্য যাতে ফুটে ওঠে সেদিকে খেয়াল রেখেই শিল্পীরা কাজ করে যাচ্ছেন। উপজেলায় এবার ৪২টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

উপজেলার তালোড়া পৌর এলাকার তুলশী ইন্ডাস্ট্রিজ মন্ডপে প্রতিমা তৈরির কাজে নিয়োজিত শিল্পী দিলীপ মালাকার বলেন, এ মন্ডপে কয়েক বছর ধরে তিনি প্রতিমা তৈরি করে আসছেন। পাশাপাশি অন্যান্য স্থানেও এ মৌসুমে প্রতিমা তৈরি করছেন। কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা ও শিল্পীমনের মাধুরী মিশিয়ে প্রতিমা তৈরি করলে এবং তা দেখে দর্শনার্থীরা যদি তৃপ্তি পান তবেই শিল্পী সত্তা সার্থক।

এ ব্যাপারে ওই মন্ডপের স্বত্বাধিকারী সুভাষ প্রসাদ কানু জানান, বেশ কয়েক বছর ধরে তার এখানে দুর্গাপূজা হয়ে আসছে। প্রতিবারই প্রতিমাসহ অন্যান্য সাজসজ্জায় নতুনত্ব আনার জন্য বলা হয় শিল্পীদের। যাতে করে দর্শনার্থীরা মুগ্ধ হন।

উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অসীম কুমার দাস বলেন, দুর্গাপূজা সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে যাতে উদযাপন করতে সবার সহযোগিতা কামনা করেছেন।

দুপচাঁচিয়া থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, প্রতিটি পূজামন্ডপে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণসহ মন্ডপ এলাকা সার্বক্ষণিক নজরদারিতে রয়েছে।

নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি জানান, শেরপুরের নকলায় চলছে প্রতিমা তৈরির শেষ মুহূর্তের কাজ, ব্যস্ত মৃৎশিল্পীরা। ইতোমধ্যে শিল্পীদের দক্ষ হাতের ছোঁয়ায় পূর্ণরূপে ফুটে উঠছে দৃষ্টিনন্দন অধিকাংশ প্রতিমা। এ কাজে খুবই ব্যস্থ সময় পার করছেন স্থানীয় মৃৎশিল্পীরা।

উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দেবজিৎ পোদ্দার ঝুমুর বলেন, সরকারি নির্দেশনা মেনে দুর্গাপুর উপজেলায় এবার প্রায় ২২টি মন্ডপে পূজা উদযাপন করা হবে। জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে এ উৎসব সম্পন্ন করতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

নকলা থানার ওসি মুশফিকুর রহমান বলেন, শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুবই ভালো। আইনশৃঙ্খলার যেন কোনো অবনতি না হয় সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে কাজ করছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে