শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০
walton
সেতুতে রিকশা চলাচল বন্ধ

বাবুবাজারে সড়ক অবরোধ করে চালকদের বিক্ষোভ

মাসুম পারভেজ, কেরানীগঞ্জ (ঢাকা)
  ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০০:০০
রাজধানীর পোস্তগোলায় বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে প্রথম বুড়িগঙ্গা সেতু সংস্কারের কাজ, যা চলবে ৮ মার্চ পর্যন্ত। সেতুটিতে দুটি গার্ডার মেরামতের পাশাপাশি রেট্রোফিটিংয়ের কাজও হবে। এ সময় ঢাকা থেকে বঙ্গবন্ধু এক্সপ্রেসওয়ে হয়ে দক্ষিণবঙ্গে চলাচলকারী যানবাহনগুলোকে বিকল্প পথ ব্যবহার করতে বলেছে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর -ফোকাস বাংলা

পোস্তগোলা সেতুর (বুড়িগঙ্গা সেতু-১) সংস্কার কাজ শুরু হওয়ায় বুড়িগঙ্গা দ্বিতীয় সেতুতে (বাবুবাজার) রিকশা চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। এর প্রতিবাদে রাজধানীর কেরানীগঞ্জে সড়ক অবরোধ করে অবস্থান কর্মসূচি ও বিক্ষোভ করেছেন চালকরা। এতে ওই এলাকায় কয়েক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে রিকশাচালকরা বাবুবাজার সেতুর কেরানীগঞ্জ প্রান্তে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন। দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা জেলা দক্ষিণ ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মোহাম্মদ জাকির হোসেন ও কেরানীগঞ্জ মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তফা কামাল এসে তাদের সড়ক থেকে সরিয়ে দেন।

রিকশাচালক জামাল উদ্দিন জানান, পোস্তগোলা সেতুতে সংস্কার কাজের জন্য বাবুবাজার সেতুতে সকাল থেকে পায়ে চালিত রিকশা চালানো বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। এতে তাদের আয়ের পথ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল করেন। অবিলম্বে সড়কে রিকশা চালাতে দেওয়ার দাবি জানান তিনি।

চালক বাবু মিয়া জানান, 'ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা-ভ্যান চলছে কিন্তু বাবুবাজার সেতুতে পায়ে চালিত রিকশা উঠতে দিচ্ছে পুলিশ। তাই আমরা সড়ক অবরোধ করেছি। যতক্ষণ পর্যন্ত রিকশা সেতুতে উঠতে দেবে না ততক্ষণ আমরা সড়ক অবরোধ থেকে উঠবো না।'

ঢাকা জেলা (দক্ষিণ) ট্রাফিক বিভাগের ইন্সপেক্টর জাকির হোসেন বলেন, 'পোস্তগোলা সেতু সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে। ২২ ফেব্রম্নয়ারি থেকে ৮ মার্চ পর্যন্ত ১৬ দিন চলবে সংস্কার। সেতুতে যান চলাচল কখনও সীমিত কখনও বন্ধ থাকবে। এ সময় বাবুবাজার সেতুতে যাতায়াতে বাড়তি যানজটের আশঙ্কা থেকে রিকশা, ভ্যান ও ঠেলাগাড়ি চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এরপরও ছোট ছোট যানবাহনের জন্য বড় কোনো ভোগান্তি বা সমস্যার সৃষ্টি হলে তা তাৎক্ষণিকভাবে সমাধানে সতর্ক দৃষ্টি থাকবে বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তফা কামাল বলেন, 'রিকশাশ্রমিক ও মালিকপক্ষের লোকজন অবরোধ করেছেন। তবে এখানে কোনো ধরনের সহিংসতা বা ভাঙচুর-মারামারির ঘটনা ঘটেনি। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ উপস্থিত হয়ে বিক্ষোভকারীদের সড়ক থেকে সরিয়ে দিয়েছে। এখন যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। এ ব্যাপারে রিকশাশ্রমিক-মালিকদের সঙ্গে বসে একটা বিকল্প ব্যবস্থা বা নিদিষ্ট সময় বেঁধে দেওয়া হবে।'

এদিকে, পোস্তগোলা সেতু বা বুড়িগঙ্গা প্রথম সেতু সংস্কারের সময় বাড়তি যানজটের শঙ্কায় এই রুটে চলাচলকারী যানবাহনকে বিকল্প সড়ক ব্যবহারের অনুরোধ করেছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। দেওয়া হয়েছে বিকল্প রুটের নির্দেশনাও। বিজ্ঞপ্তিতে সওজ জানায়, ২২ ফেব্রম্নয়ারি থেকে ৮ মার্চ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়কের তৃতীয় কিলোমিটারে অবস্থিত বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী বুড়িগঙ্গা সেতু-১ এর (পোস্তগোলা সেতু) দুটি গার্ডারের মেরামত ও রেট্রোফিটিং কাজ করা হবে। এজন্য ভারী যানবাহনসমূহ (ট্রাক-পিকআপ ভ্যান, কাভার্ডভ্যান, কনটেইনারবাহী লরি) ২২ ফেব্রম্নয়ারি থেকে ৮ মার্চ পর্যন্ত এবং হালকা যানবাহনকে (বাস, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, সিএনজি, অটোরিকশা ইত্যাদি) ২৪ ও ২৬ ফেব্রম্নয়ারি এবং ১, ৪ ও ৮ মার্চ- এই পাঁচদিন বিকল্প সড়ক ব্যবহার করতে বলা হলো।

ভারী যানবাহন ও বড় বাসের জন্য বিকল্প সড়ক : যাত্রাবাড়ী থেকে ছেড়ে আসা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়কগামী যানবাহন ধোলাইরপাড় বাসস্ট্যান্ড ও বাবুবাজার সেতু ব্যবহার করে তেঘড়িয়া ইন্টারসেকশন হয়ে মহাসড়কে প্রবেশ করবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়ক থেকে যাত্রাবাড়ীগামী যানবাহন তেঘরিয়া ইন্টারসেকশন-বাবুবাজার সেতু ব্যবহার করে ধোলাইরপাড় হয়ে যাত্রাবাড়ী প্রবেশ করবে। গাবতলী থেকে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলগামী যানবাহনগুলো পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত করবে। দেশের পূর্বাঞ্চল/দক্ষিণ পূর্বাঞ্চল থেকে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চল/দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলগামী যানবাহনগুলো চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত করবে। দেশের উত্তরাঞ্চল থেকে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলগামী যানবাহনগুলো বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে যাতায়াত করবে।

হালকা যানবাহনের (মাইক্রোবাস, প্রাইভেট কার, সিএনজি, অটোরিকশা) জন্য বিকল্প সড়ক :পদ্মা সেতু থেকে নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামমুখী যানবাহন শ্রীনগর-মুন্সীগঞ্জ-মুক্তারপুর সেতু- তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু-মদনপুর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে। সিলেট, চট্টগ্রাম থেকে পদ্মা সেতুমুখী যানবাহন মদনপুর থেকে তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু-মুক্তারপুর সেতু মুন্সীগঞ্জ-শ্রীনগর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে। পদ্মা সেতু থেকে ঢাকাগামী যানবাহন শ্রীনগর দোহার-নবাবগঞ্জ-কেরানীগঞ্জ (আর-৮২০) সড়ক, তুরাগ-রোহিতপুর (জেড-৫০৬৯), আব্দুলস্নাহপুর-রাজাবাড়ী বাজার-কোনাখোলা মোড়-বছিলা সেতু-মোহাম্মদপুর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে।

বুড়িগঙ্গা সেতু-১ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সেতুর দুটি গার্ডারের মেরামত ও রেট্রোফিটিংয়ের কাজ করা হবে। সেতুটি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় মহাসড়ক (এন-৮) বা ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ের তৃতীয় কিলোমিটারে অবস্থিত।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে