তবুও সেরা নিক

তবুও সেরা নিক
নেদারল্যান্ডসের নিক কিমান -ওয়েবসাইট

অনুশীলনে অফিসিয়ালের সঙ্গে সংর্ঘের পর নিক কিমানের কোয়ার্টার ফাইনালে অংশ নেওয়ার বিষয়ে অনিশ্চয়তা জেগেছিল। তবে শঙ্কা দূরে ঠেলে, সব বাধা উতড়ে ফাইনালে নামলেন ডাচ বিএমএক্স রেসার, জিতে নিলেন অলিম্পিক সোনার পদক। শুক্রবার হওয়া ফাইনালে ৩৯.০৫৩ সেকেন্ডে জয় নিশ্চিত করেন কিমান। গ্রেট ব্রিটেনের কাই হোয়াইট রুপা ও কলম্বিয়ার কার্লোস রামিরেস ইয়েপেস ব্রোঞ্জ জিতেছেন।

গত সোমবার কিমানের অনুশীলনের সময় হঠাৎ করে এক অফিসিয়াল ট্র্যাকের মাঝ দিয়ে পার হতে যান। ঘটে যায় অঘটন, হাঁটুতে চোট পান ২৫ বছর বয়সি এই অ্যাথলেট। আঘাতটা খুব গুরুতর না হলেও কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা নিয়ে অনিশ্চয়তা জেগেছিল। কিমান ওই ঘটনার ভিডিও নিজেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করলে তা ভাইরাল হয়ে যায়। আঘাত পাওয়ার পর মঙ্গলবার অনুশীলন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। তবে সঠিক সময়ের আগে সুস্থ হয়ে ওঠার মনের জোর ছিল তার।

মুকুট নিশ্চিত করার পর স্বাভাবিকভাবেই উঠল ওই চোট প্রসঙ্গ। তিনি বলেন, 'গত কয়েক সপ্তাহে মনে হচ্ছিল, আমি সেরা অবস্থায় আছি। অবশ্যই অনেক চাপ তো ছিলই, কিন্তু আমি আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। এরপর (সোমবার) আমার ওই অফিসিয়ালের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়, তখন মনে হয়েছিল আমার স্বপ্ন বুঝি শেষ। তবে সৌভাগ্যবশত ব্যথানাশক ওষুধের সাহায্যে স্বপ্নটা বেঁচেছিল। আমি শুধু নিজের ওপর বিশ্বাস রেখেছিলাম। যেমনটা বলছিলাম, গত কয়েক সপ্তাহে আছি দারুণ বোধ করছিলাম। আমার মনে হয়েছিল, ওই ব্যথানাশক ওষুধ ও আমার অ্যাড্রেনালিন মিলিয়ে কাজটা করে দেবে, তারা সেটা করেছে।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে