রোববার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ধসের মধ্যেই কোটি কোটি শেয়ার ছাড়ছে আদানি গোষ্ঠী

অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক
  ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০০:০০
ধসের মধ্যেই কোটি কোটি শেয়ার ছাড়ছে আদানি গোষ্ঠী

মারাত্মক ধসের মধ্যেও তিন সংস্থার আরও শেয়ার বাজারে আনতে চলেছে আদানি গোষ্ঠী। ব্যাপক ক্ষতির মধ্যেই আদানি গোষ্ঠী এই নতুন ঘোষণা করল। এক প্রতিবেদনে একথা জানিয়েছে এএনআই।

এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানিয়েছে, আদানি পোর্টস অ্যান্ড স্পেশাল ইকোনমিক জোন লিমিটেডের ১৬ কোটি ৮২ লাখ ৭০ হাজার শেয়ার (মোট শেয়ারের ১২ শতাংশ), আদানি গ্রিন এনার্জি লিমিটেডের ২ কোটি ৭৫ লাখ ৬০ হাজার শেয়ার (মোট শেয়ারের ৩ শতাংশ) এবং আদানি ট্রান্সমিশন লিমিটেডের ১ কোটি ১৭ লাখ ৭০ হাজার শেয়ার (মোট শেয়ারের ১.৪ শতাংশ) বাজারে আনতে চলেছে আদানি গোষ্ঠী। যথাসময়ে সেই শেয়ারগুলো বাজারে আনতে অঙ্গীকারবদ্ধ তারা।

মার্কিন শেয়ার সংক্রান্ত সংস্থা হিনডেনবার্গের রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পর থেকে আদানির বিভিন্ন সংস্থার শেয়ারের মূল্য রেকর্ড হারে কমেছে। শত শত কোটি কোটি টাকার ক্ষতির মুখে পড়েছে আদানি গোষ্ঠীর বিভিন্ন সংস্থা। তার মধ্যেই গত বুধবার কেন্দ্রীয় বাজেট পেশের দিনেই নতুন শেয়ার ছাড়ার প্রক্রিয়া (এফপিও) বাতিল করে দেয় আদানি গোষ্ঠী। ২০ হাজার কোটি টাকার ওই এফপিও বাতিলের পর তাদের শেয়ারের দর আরও নেমে যায়।

শেয়ার বাজার বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, নিজেদের অর্থনৈতিকভাবে সবল দেখাতে এবং শেয়ারের দরে 'রক্তক্ষরণ' কমাতেই এই সিদ্ধান্ত নিচ্ছে আদানি গোষ্ঠী। অতীতে এই শেয়ারগুলোর পরিবর্তে বাজার থেকে টাকা ঋণ নিয়েছিল আদানি গোষ্ঠী। সেই ঋণ পরিশোধের সময় ছিল ২০২৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। কিন্তু ২০২৩ সালের জানুয়ারিতেই আগাম সেই বকেয়া টাকা মিটিয়ে দিয়েছে আদানি গোষ্ঠী। ফেরত পেয়েছে বন্ধক থাকা শেয়ারগুলো। সেই শেয়ারগুলোই বাজারে আনতে চলেছে তারা।

বিশেষজ্ঞদের মতে, হিনডেনবার্গের রিপোর্টের অভিযোগের পর আদানিদের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। সংস্থা ক্ষতির মুখে পড়ার পর আদানিরা আর্থিকভাবে স্থিতিশীল কি না তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছিল। কিন্তু সময়ের আগে বকেয়া মিটিয়ে বন্ধক শেয়ারগুলোর মালিকানা ফেরত পেয়ে নিজেদের আর্থিকভাবে সবল বলে দেখাতে চাইছে আদানিরা।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে