​সোনাইমুড়ীতে হত্যা মামলার বাদীকে হুমকি

​সোনাইমুড়ীতে হত্যা মামলার বাদীকে হুমকি

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে আটক করে হাত-পা বেঁধে অমানবিক নির্যাতনের ১ সপ্তাহ পর যুবকের মৃত্যু হওয়ার ঘটনায় থানায় মামলা হওয়ার পর বাদীকে মামলা প্রত্যাহার করতে অব্যাহত হুমকি দিচ্ছে। এ নিয়ে মামলার বাদী উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের মেড়িপাড়া গ্রামের আবদুল মালেকের পুত্র সালাহ উদ্দিন (৪০) ও তার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

মঙ্গলবার দুপুরে মামলার বাদী সালাহ উদ্দিন জানান, উপজেলার মেড়িপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে গোলাম কিবরিয়া রাশেদের সঙ্গে একই বাড়ির বাবুলের পুত্র আব্দুর রহিমদের সঙ্গে জায়গাজমির ভাগবাঁটোয়ারা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এরই সূত্র ধরে আবদুর রহিম ওই যুবককে গত ২ মে সকাল ৮টার দিকে বাড়ি থেকে ডেকে নেয়। পরে স্থানীয় আমিশাপাড়া বাজারে ফুড হ্যাভ রেস্টুরেন্টের ২য় তলায় পরিত্যক্ত কক্ষে নিয়ে হাত-পা বেঁধে লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে অমানবিক নির্যাতন করে। পরে নির্যাতনের শিকার যুবকের বাড়িতে খবর দিয়ে তার মা সানোয়ারা বেগম, মামা সেলিম ও ভাই সালাউদ্দিনকে এনে তাদের কাছে গুরুতর আহত অবস্থায় গোলাম কিবরিয়া রাশেদকে বুঝিয়ে দেয়। আহত অবস্থায় বাজারের একটি ফার্মেসিতে চিকিৎসা দেয়। দীর্ঘ ১ সপ্তাহ মৃত্যুর যন্ত্রণায় কাতরানোর পর শুক্রবার দিবাগত রাতে তার শরীরের অবস্থা অবনতি দেখা দিলে শনিবার ভোররাত্রে সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত্যু ঘোষণা করেন।

এ নিয়ে নিহতের সহোদর সালাহ উদ্দিন বাদী হয়ে সোনাইমুড়ী থানায় ৮ মে ২০২১ তারিখে একই বাড়ির বাবুল মিয়ার পুত্র আবদুর রহিমকে (২৭) ১নং বিবাদী করে ৪ জন এজাহারনামীয় ও ৮/১০জন অজ্ঞাতনামা বিবাদী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। থানা পুলিশ এ মামলার এজাহারনামীয় আসামি আবদুর রহিম, সুজন ও বাবুল মিয়াকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। এ মামলার অন্য বিবাদীরা এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। তারা মামলার বাদী ও তার পরিবারকে মামলা প্রত্যাহার করতে হুমকি দিচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে