আশ্রয়স্থল হয়েছে এখন কর্মসংস্থানও হবে : দিনাজপুর ডিসি

আশ্রয়স্থল হয়েছে এখন কর্মসংস্থানও হবে : দিনাজপুর ডিসি

প্রধান মন্ত্রীর উপহার ভুমিহীনদের জন্য আবাসন প্রকল্পের বাসীন্দাদের উদ্দেশ্যে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী বলেছেন, প্রধান মন্ত্রীর অঙ্গিকার সকলের জন্য আবাসন ব্যবস্থা, সেটি বাস্তবায়ন হয়েছে। এখন আবাসনের বাসীন্দাদেরকে অর্থনৈতিক ভাবে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে কর্মসংস্থান সৃষ্টির কাজ চলছে। জেলা প্রশাসক বলেন ইতোমধ্যে অনেক গৃহবধুকে শেলাই প্রশিক্ষন দেয়া হয়েছে,তারা এখন ঘরে বসে আয় করছেন। অনান্যদর বিভিন্ন টেকনিশিয়ান ও সবজি উৎপাদনসহ বিভিন্ন আর্থিক উন্নায়নের কাজ দেয়া হবে, যাতে তাঁরা প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের দেয়া ঘরে পরিবার পরিজন নিয়ে শান্তিতে বসবাস করতে পারেন।

দিনাজপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী বলেছেন প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী অঙ্গিকার একজন মানুষও গৃহহীন থাকবেনা, সেই অঙ্গিকার বাস্তবায়নে আজকের এই আবাসন প্রকল্প, তিনি বলেন আবাসনের বাসীন্দাদের জন্য বর্তমান সরকার চিকিৎসা, শিক্ষা ব্যবস্থাও সৃষ্টি করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ে উঠবে।

শনিবার সকালে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার সর্ববৃহৎ আবাসন প্রকল্প খয়েরবাড়ী ইউনিয়নের বালুপাড়া গ্রাম পরিদর্শন করে, দিনাজপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা প্রশাসক আবাসনের বাসীন্দাদের উদ্দেশ্যে পৃথক বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। এসময় বালুপাড়া আবাসনে একটি মসজিদ ও একটি মন্দির নির্মান করার ঘোষনা দেন। জেলা প্রশাসক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সাথে আবাসন প্রকল্প পরিদর্শনের উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আজিজ, জনস্বাস্থ্যর নির্বাহী প্রকৌশলী মুরাদ হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শরিফুল ইসলাম, ফুলবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রিয়াজ উদ্দিন, সহকারী কমিশনার ভুমি কানিজ আফরোজসহ উপজেলা প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তাগণ, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দগণ উপস্থিত ছিলেন।

এরপূর্বে উপজেলা দৌলতপুর ইউনিয়নের তেলীপাড়া আবাসন প্রকল্প, দৌলপুর ও খয়েরবাড়ীর ৫০০০ বিঘা জমির পানি নিস্কাশনের জন্য খননকৃত ডেন পরিদর্শন করেন।

দিনাজপুর জেলা জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকি আরো বলেন অন্ন বস্ত্র বাসস্থান শিক্ষা- চিকিৎসা মানুষের মৌলিক অধিকার, বর্তমান সরকার মানুষের শিক্ষা-চিকিৎসা দেয়ার পাশাপাশি বাসস্থান গড়ে দিয়েছে, যা অনেক উন্নত রাষ্ট্র দিতে পারেনি, তিনি বলেন প্রধান মন্ত্রীর আবেগঘন প্রকল্প আবাসন, তাই যতœসহকারে নির্মান করা হয়েছে।

উল্লেখ্য রংপুর বিভাগের মধ্যে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে সবথেকে বেশি বরাদ্ধ আবাসনের ১০০১টি ঘর ও সর্ববৃহৎ আবাসন প্রকল্প কয়েরবাড়ী বালুপাড়া, যেখানে শাখা যমুনা নদির কোল ঘেষে মনোরম পরিবেশে একই স্থানে ২৫৩টি ঘর নির্মান করে একটি আদর্শ গ্রাম স্থাপন করা হয়েছে। এই বাসন গ্রামে রয়েছে খেলার মাঠ, সবজি চাষের প্রয়োজনীয় জায়গাও।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে