​গাজীপুরে সিটির দ্বিতীয় দফায়ও ভারপ্রাপ্ত মেয়র হচ্ছেন কাউন্সিলর কিরণ

​গাজীপুরে সিটির  দ্বিতীয় দফায়ও ভারপ্রাপ্ত মেয়র হচ্ছেন কাউন্সিলর কিরণ

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে নানা অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত করে তিন সদস্যের প্যানেল মেয়র গঠন করেছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। এতে প্রথম স্থানে মনোনীত হয়েছেন সিটির ৪৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আসাদুর রহমান কিরণ।

কেন ভারপ্রাপ্ত মেয়র হচ্ছেন কিরণ : সিটি করপোরেশনের আইন অনুযায়ী সুষ্ঠু তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনার স্বার্থে মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম-কে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদ থেকে বরখাস্ত করার পর ২৫ নভেম্বর স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের (সিটি করপোরেশন-২ শাখা) উপসচিব মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত ইস্যুকৃত এক অফিস আদেশে তিন সদস্যের মেয়রের ওই প্যানেল গঠণ করা হয়েছে। প্যানেল মেয়রের তিন সদস্য হলেন- সিটির ৪৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আসাদুর রহমান কিরণ, ৫২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোঃ আব্দুল আলীম মোল্লা এবং ২৮, ২৯, ৩০নং (সংরক্ষিত ওয়ার্ড-১০) মহিলা কাউন্সিলর মোসাঃ আয়েশা আক্তার।

কিরণ বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি গাজীপুর সিটির প্রথম প্যানেল মেয়র হওয়ার পত্র পেয়েছেন। তিনি বলেন ইতোপূর্বে তিনি সিটির প্রথম মেয়র এমএ মান্নান বরখাস্ত হলে ২৭মাস ১৩দিন ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২০১৫ সালের ৫মার্চ থেকে ২০১৮সালের ১৮জুন পর্যন্ত ওই পদে ছিলেন।

মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালনের প্রায় সাড়ে তিন বছর পর বৃহস্পতিবার বরখাস্ত হয়েছেন। এদিনই গাজীপুর সিটি করর্পোরেশনের জন্য মন্ত্রণালয়ের গঠিত তিন সদস্যের প্যানেল মেয়রদের তালিকায় তিনি (দ্বিতীয় বারের মতো) প্রথম স্থানে রয়েছেন। সে হিসেবে নিয়মানুয়ায়ী তিনিই ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছেন।

জাহাঙ্গীর আলম মেয়র থেকে কেন বরখাস্ত হলেন?

যেহেতু গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম- এর বিরুদ্ধে ভূয়া টেন্ডার, জঋছ,বিভিন্ন পদে অযৌক্তিক লোকবল নিয়োগ, বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে ভূয়া বিল বিল ভাউচারের মাধ্যমে এবং একই কাজ বিভিন্ন প্রকল্পে দেখিয়ে অর্থআত্বসাৎ এবং প্রতিবছর হাট-বাজার ইজারার অর্থ যথাযথভাবে নির্ধারিত খাতে জমা না রাখাসহ নানাবিধ অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে: এবং যেহেতু ভূমি দখল ও ক্ষতিপূরণ ব্যতীত রাস্তা প্রশস্তকরণ সংক্রান্ত প্রাপ্ত অভিযোগের বিষয়ে সিটি করপোরেশনের মতামত জানতে চাওয়া হলে অদ্যাবদি কোন মতামত প্রদান করা হয়নি; এবং যেহেতু বর্ণিত অভিযোগ সমূহ, ক্ষমতার অপব্যবহার, বিধি-নিষেধ, পরিপন্থি কার্যকলাপ, দূর্নীতি ও ইচ্ছাকৃত অপশাসন এর শামিল যা সিটি কর্পোরেশন আইন, ২০০৯এর ধারা ১৩(১)(ঘ) অনুযায়ী অপসারণযোগ্য অপরাধ এবং যেেেহতু ইতোমধ্যে বর্ণিত অভিযোগ সমূহ তদন্ত কার্যক্রম শুরু করার মাধ্যমে সিটিকর্পোরেশন আইন, ২০০৯ এর ধারা ১৩ ধারামতে অপসারণের কার্যক্রম আরম্ভ করা হয়েছে।

সেহেতু সিটি করপোরেশনের আইন অনুযায়ী সুষ্ঠু তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনার স্বার্থে মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম-কে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদ থেকে বরখাস্ত করা হলো।

সেহেতু সিটি করপোরেশনের আইন, ২০০৯ এর ধারা ১২(২)অনুযায়ী এ আদেশ প্রাপ্তির তিনদিনের মধ্যে সাময়িক বরখাস্তকৃত মেয়র ক্রমানুসারে মেয়র প্যানেলের জ্যেষ্ঠ সদস্যের নিকট স্বীয় দায়িত্ব হস্তান্তর করবেন। ২৫ নভেম্বর স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের (সিটি করপোরেশন-২ শাখা) উপসচিব মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত ইস্যুকৃত এক চিঠিতে ওইসব কথা বলা হয়েছে।

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আমিনুল ইসলাম ন জানান, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে গাজীপুর সিটি করপোশেনের তিন সদস্যের প্যানেল মেয়র গঠন করে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। ওই তালিকায় প্রথমে যার নাম আসবে তিনিই ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। তার অনুপস্থিতিতে দ্বিতীয় জন, পর্যায়ক্রমে তৃতীয়জন দায়িত্ব পালন করবেন। সে অনুয়ায়ী প্যানেলের প্রথম জন আসাদুর রহমান কিরণই নিয়মানুযায়ী তিনি ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব পালন করবেন।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে