নবীনগরে নৌকার সমর্থকদের হামলায় নিহত ১

নবীনগরে নৌকার সমর্থকদের হামলায় নিহত ১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে নির্বাচনী সহিংসতায় প্রতিপক্ষের হামলায় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থক মাসুদ মিয়া-(৪০) খুন হয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে নবীনগর উপজেলার রতনপুর ইউনিয়নের খাগাতুয়া বাজার থেকে তাকে ধরে নিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয়। নিহত মাসুদ মিয়া খাগাতুয়া গ্রামের মৃত মঙ্গল মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ভোরে মাসুদ মিয়া তার ভাগ্নি শারমীন আক্তারকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চিকিৎসক দেখানোর উদ্দ্যেশ্য বাড়ি থেকে বের হয়ে খাগাতুয়া বাজারের একটি দোকানে বসে চা খাওয়ার সময় আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী সৈয়দ জাহিদ হোসেন শাকিলের সমর্থক রব মিয়া, শফিক মিয়া, আলম মিয়া, ফজু ও লিটন মিয়ার নেতৃত্বে একদল যুবক দোকানে গিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে মাসুদকে রক্তাক্ত জখম করে। পরে তারা মাসুদকে সিএনজিচালিত অটোরিকসায় তুলে খাগাতুয়া পশ্চিমপাড়া কবরস্থান সংলগ্ন নৌকার নির্বাচনী ক্যাম্পের সামনে নিয়ে দ্বিতীয় দফায় কুপিয়ে তার হাত ও পায়ের রগ কেটে দেয়।

গুরুতর আহত অবস্থায় স্বজনরা মাসুদ মিয়াকে উদ্ধার করে প্রথমে নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানকার চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় রেফার করলে দুপুরে তাকে ঢাকায় নেওয়ার সময় সে মারা যায়।

তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পরলে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি রক্ষায় রতনপুর ইউনিয়নে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

নিহত মাসুদ মিয়ার ভাগ্নি শারমিন আক্তার বলেন, তার সামনে প্রতিপক্ষের রব মিয়া, শফিক মিয়া, আলম সহ কয়েজন সন্ত্রাসী সিএনজি দিয়ে এসে চা খাওয়ার সময় তার মামাকে দোকানে ঢুকে কুপিয়ে জখম করে। পরে তাকে সিএনজি দিয়ে পশ্চিম পাড়া শাকিল মিয়ার নৌকার অফিসের সামনে নিয়ে আবার কুপিয়েছে। শারমীন অভিযোগ করে বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী ভিপি মারুফের আনারস মার্কার নির্বাচন করার কারনে তার মামাকে খুন করা হয়েছে।

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ভিপি মারুফ বলেন, মাসুদ আমার কর্মী। আমার নির্বাচন করার কারনেই মাসুদের উপর পরিকল্পিতভাবে হামলা করে নৃশংস ভাবে খুন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে নৌকা মার্কার প্রার্থী সৈয়দ জাহিদ হোসেন শাকিল বলেন, এই ঘটনায় বিচার হওয়া উচিত। এই ঘটনার সাথে আমার কোন কর্মী সমর্থক জড়িত না। এটা তাদের পূর্ব বিরোধের জের ধরে ঘটেছে।

এ ব্যাপারে নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুর রশিদ বলেন, এটা একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার একরামুল ছিদ্দিক বলেন, তদন্ত স্বাপেক্ষে ঘটনার দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

যাযাদি / এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে