সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

যেসব প্রতীক পেলেন গোদাগাড়ী ও তানোর উপজেলার প্রার্থীরা

রাজশাহী অফিস
  ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ২১:০৬
যেসব প্রতীক পেলেন গোদাগাড়ী ও তানোর উপজেলার প্রার্থীরা

আগামী ৮ মে অনুষ্ঠিতব্য ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে রাজশাহীর গোদগাড়ী ও তানোর উপজেলার চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) সকালে রাজশাহী জেলা সিনিয়র নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে এই প্রতীক বরাদ্দ প্রদান করা হয়।

প্রতীক বরাদ্দ সভায় সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার শাহিনুর ইসলাম প্রামানিক। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন।

এই সময় গোদাগাড়ী ও তানোর উপজেলার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

গোদাগাড়ী উপজেলায় থেকে ৫ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন । এদের মধ্যে বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম প্রতীক পেয়েছেন কাপ পিরিচ। গোদাগাড়ী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি রবিউল আলম এর প্রতিক- আনারস।

উপজেলা যুবলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ও সদ্য পদত্যাগকৃত দেওপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান বেলাল উদ্দিন সোহেল এর প্রতিক- দোয়াত কলম। উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-প্রচার সম্পাদক সুনন্দন দাস এর প্রতিক- মোটরসাইকেল। রাজশাহী জেলা বিএনপির সাবেক যুব বিষয়ক সম্পাদক সাজেদুর রহমান খান মার্কনি এর প্রতিক- ঘোড়া।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪ জন। গোদাগাড়ী পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হোসেনের প্রতীক- চশমা। উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি শফিকুল ইসলাম সরকার এর প্রতীক- তালা, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি সালমান ফিরোজ ফয়সাল এর প্রতীক- টিয়া পাখি, আদিবাসী নেতা হুরেন মুর্মু এর প্রতিক- টিবয়েল।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দি¦তা করছেন ২ জন।

উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুফিয়া খাতুন মিলি এর প্রতিক- প্রজাপতি। উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শ্রীমতি কৃষ্ণা দেবী এর প্রতিক- ফুটবল।

অপরদিকে তানোর উপজেলার চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২ জন।

এদের মধ্যে বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না পেয়েছেন কাপ পিরিচ প্রতীক। অপর প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন পেয়েছেন মোটরসাইকেল প্রতীক।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২ জন। এদের মধ্যে কলমা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি তানভীর রেজা চশমা এবং অপর প্রার্থী সোহেল রানা পেয়েছেন তালা।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩ জন।

এদের মধ্যে উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সোনিয়া সরদার পেয়েছেন কলস প্রতীক। এছাড়াও সাগরিকা ভৌমিক বৈদ্যুতিক পাখা এবং নাসিমা বিবি পেয়েছেন সেলাই মেশিন প্রতীক।

প্রতীক পেয়েই গোদাগাড়ী উপজেলা পরিষদ বর্তমান চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, আমি ৫টি বছর উপজেলার পরিষদ সুষ্ঠ ভাবে চালিয়ে সরকারের সকল উন্নয়ন করেছি। সকল মানুষের সুখে দু:খে পাশে ছিলাম এবং আগমীতে আবারও জয়ী হয়ে জনগণের জন্য যা যা করা দরকার সেসব সেবা করার কথা জানান।

আনারস প্রতীকের প্রার্থী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি রবিউল আলম বলেন, আগামীকাল থেকে ভোট প্রার্থীনায় জনগণের দ্বারে দ্বারে যাবো। এবারের নির্বাচনে সকলেই স্বতন্ত্র প্রার্থী আশাকরি দলীয় কোন প্রভাব থাকবে না। এতে আমাদের মধ্যে হিংসা বিবাদ থাকবে না। আমরা মনে করে সাধারণ মানুষকে ভোটমুখি করতে পারবো। কোন প্রভাবশালী যদি বাধা-বিঘ্ন করে আমাদের তরফ থেকে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা করতে চাইনা। এক্ষেত্রে মিডিয়া ও প্রশাসন দেখবে। তিনি আশা প্রকাশ করেন নির্বাচন সুষ্ঠ হবে আর নির্বাচিত হতে পারলে সুষ্ঠভাবে উপজেলা পরিষদ চালানো ও সরকারি বরাদ্দ বিগত দিনে যা হয়েছে তার চেয়ে সুষ্ঠ ভাবে আমি করবো বলে জানান।

দোয়াত কালি প্রতীকের প্রার্থী বেলাল উদ্দীন সোহেল জয়ে শতভাগ আশা ব্যক্ত করে বলেন, আমি স্মার্ট উপজেলা পরিষদ গড়ে তুলবো। এছাড়াও শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও কৃষি খাতে অধিক গুরত্ব দেওয়ার কথা জানান এই প্রার্থী।

ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী ও জেলা বিএনপির সাবেক যুব বিষয়ক সম্পাদক সাজেদুর খান মার্কনী বলেন, আমি সারা জীবন বিএনপি করে এসেছি এবং তা ভবিষ্যতেও করতে চাই। আমি জনগণের সেবার উদ্দেশ্যে ভোট করতে চাই। এখন পর্যন্ত মাঠে প্রচার প্রচারণায় কোন প্রকার বাধা না পাওয়ার কথা জনিয়ে বলেন, নির্বাচনী মাঠে টাকা ছিটানোর হচ্ছে। আর সেই টাকার ইনকাম কে কিভাবে করেছে সেটা সবাই জানে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

অপর দিকে তানোর উপজেলা পরিষদের মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, এই নির্বাচনে জনগনের মাঝে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। সুষ্ঠ ভাবে ভোট হলে বিজয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী ও আনন্দিত। এছাড়া তিনি অভিযোগ করেন, তানোরে এমপি সাহেবের ভাতিজা সরাসরি লুৎফর হায়দার রশিদ ভোট করছেন। এছাড়াও এমপি সাহেবের নাম নিয়ে তার দাপটে ঘুরে বেড়াচ্ছেন এবং ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। তিনি সুষ্ঠ নির্বাচনের আশা প্রকাশ করেন এবং এমপি-মন্ত্রীর প্রভাবমুক্ত ভোটের প্রত্যাশা করেন।

তালা প্রতীকের গোদাগাড়ী উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী শফিকুল ইসলাম সরকার , নিজের জয়ের ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেন এবং সকল ধরনের উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেন। এছাড়াও কলস প্রতীকের তানোর উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী সোনিয়া সরদার বলেন, আমি মেয়দের উন্নয়নসহ সকল ধরনের ও সকলের উন্নয়নের চেষ্ঠা করেছি। আশি শতভাগ আশাকরি আবারও উপজেলাবাসী আমাকেই ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।

যাযাদি/ এম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে