বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১

ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানাল কক্সবাজার জেলা প্রশাসন

কক্সবাজার প্রতিনিধি
  ২৮ মে ২০২৪, ১৭:৩৯
ছবি-যায়যায়দিন

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’ ২৬ মে দিবাগত রাতে উপকূল অতিক্রম করেছে। কক্সবাজার জেলায় ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষয়়ক্ষতি ও গৃহীত কার্যক্রমের তথ্য জানিয়েছেন জেলা প্রশাসন।

সোমবার (২৭ মে) জেলা প্রশাসন এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

কক্সবাজার জেলায়় ৬৩৮ টি আশয়়কেন্দ্র প্রস্তুত করা হযে়ছিল। এর মধ্যে ৩১টি আশ্রয়কেন্দ্রে ৯৭৮৭ জন আশ্রয় গ্রহণ করেছেন। আশ্রিতদের মাঝে রান্না করা খাবারসহ শুকনা খাবার ও বিশুদ্ধ পানি পরিবেশন করা হয়ে়ছে। ৯১টি মেডিকেল টিমের মাধ্যমে আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রিতদের চিকিৎসাসেবা প্রদান করেছে।

এদিকে, কক্সবাজার পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড এবং মহেশখালী পৌরসভার চরপাড়া এলাকায় মাটির বাঁধ ভেঙ্গে সমুদ্রের জলোচ্ছাসে জোয়ারের পানি লোকালয়ে প্রবেশ করেছে। ভাটা হওয়ার সাথে সাথে লোকালয়ের পানি নেমে যায়।

এতে করে ক্ষতিগ্রস্থদের তাৎক্ষণিকভাবে মানবিক সহায়তা প্রদানের জন্য ৬৩ মে.টন চাল সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অনুকূলে উপ-বরাদ্দ প্রদান করা হয় যা বিতরণ চলমান আছে বলে জানানো হয়েছে।

মহেশখালী উপজেলায় গাছের ডাল পড়ে মহেশখালী কুতুবজুম ইউনিয়নে ঘটিভাঙ্গা ডেম্বনিপাড়া এলাকায় আবুল ফয়েজের ছেলে আবুল কালাম (৭৫) নামক এক ব্যক্তি আহত হয়েছেন। বর্তমানে সে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মুহম্মদ শাহীন ইমরান জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় রিমাল এর আংশিক ক্ষতিগ্রস্থ কাঁচা ঘরগুলোর পরিবারকে পুনর্বাসনের কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে।

জেলা, উপজেলা, স্বেচ্ছাসেবী কর্মী ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহায়তায় ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে পেরে তিনি সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি।

যাযাদি/ এম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে