শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১

গাজীপুরে গার্মেন্টকর্মী হত্যাকান্ড : দুই ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার

গাজীপুর প্রতিনিধি
  ১৫ জুন ২০২৪, ১৯:৫০
ছবি যাযাদি

গাজীপুরে গার্মেন্টকর্মী রুবিয়া খাতুন হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন ও দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে গাজীপুর মহানগর ডিবি পুলিশ।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) উপ—পুলিশ কমিশনার (ডিবি, উত্তর) মুহাম্মদ কামাল হোসেন শনিবার দুপুরে এক প্রেসব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো : ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল থানার কালামপুর গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে মো: নাঈম ইসলাম (২৩) ও নীলফামারী জেলার ডোমার থানার নিজবুডামুরী গ্রামের মো: বাদল মিয়ার ছেলে মো: রাকিবুল ইসলাম ইমন (২৩)।

নিহত রুবিয়া খাতুন (২২) শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী থানার মালিঝিকান্দা গ্রামের মো: মাসুদ রানার স্ত্রী। তিনি গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কোনাবাড়ী থানাধীন পারিজাত এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) উপ—পুলিশ কমিশনার (ডিবি, উত্তর) মুহাম্মদ কামাল হোসেন জানান, বুধবার (১২ জুন) রাতে শেনন সোয়েটার্স লি: নামে কারখানার জুনিয়র অপারেটর রুবিয়া খাতুন ডিউটি শেষে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নাওজোর এলাকা থেকে অটোরিকশাযোগে কোনাবাড়ি থানার পারিজা এলাকায় তার ভাড়া বাসায় ফিরছিলেন। পথে ঢাকা—টাংগাইল মহাসড়কের গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বাইমাইল ব্রীজের উপর অটোরিকশার গতিরোধ করে তিনজন ছিনতাইকারী জোরপূর্বক যাত্রীদের মালামাল ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে রুবিয়া খাতুন বাঁধা দিলে ছিনতাইকারীরা তাকে ধারালো ছুড়ি দিয়ে পেটে ও ঘাড়ে আঘাত করে মোটর সাইকেলযোগে পালিয়ে যায়। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। পরে নিহতের পিতা মো: রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে জিএমপির কোনাবাড়ি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপরই উক্ত ঘটনার সঙ্গে জড়িত আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযানে নামে গাজীপুর মহানগর ডিবি পুলিশ। পরে মহানগর ডিবি পুলিশের একটি চৌকস টিম ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইলে অভিযান চালিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত নাঈমকে গ্রেফতার করে। পরে তার দেওয়া তথ্য মতে গাজীপুরের কোনাবাড়ি থেকে ইমন নামে আরেকজনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে গ্রেফতারকৃতদের দেখানো মতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা ছোরা ও ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়।

যাযাদি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে