logo
শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ১২ জুলাই ২০২০, ০০:০০  

আক্রান্ত ৮ লাখ পার

সংক্রমণে 'হাবুডুবু' খাচ্ছে ভারত

মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ২২ হাজার ১২৩ জনে করোনা সন্দেহে বাস থেকে ছুড়ে ফেলার পর তরুণীর মৃতু্য

সংক্রমণে 'হাবুডুবু' খাচ্ছে ভারত
প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সমুদ্রে 'হাবুডুবু' খাওয়া ভারত প্রতিদিনই সংক্রমণে নিজের রেকর্ড ভাঙছে। দেশটিতে এ পর্যন্ত কোভিড-১৯ এ আক্রান্তের সংখ্যা আট লাখের গন্ডি ছাড়িয়ে গেছে। এর মধ্যে কেবল শুক্রবার থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ২৭ হাজারের বেশি রোগী। এ ছাড়া একদিনে আরও ৫১৯ জনের মৃতু্য নিয়ে দেশটিতে নতুন করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ২২ হাজার ১২৩ জনে। সংবাদসূত্র : এনডিটিভি, এবিপি নিউজ

অর্থনীতি সচলে লকডাউন শিথিলের পর থেকেই ভারতে প্রায় প্রতিদিনই আক্রান্তের সংখ্যা আগের দিনের রেকর্ড টপকাচ্ছে। বৃহস্পতিবারের আগে প্রতিদিন ২৫ হাজারের কাছাকাছি রোগী মিললেও শুক্রবার সাড়ে ২৬ হাজারের মতো রোগী শনাক্তের তথ্য দিয়েছিল দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। আর শনিবার সকালে কর্মকর্তারা সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ২৭ হাজার ১১৪ জনের দেহে ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়ার কথা জানান। দেশটিতে এ নিয়ে সরকারি হিসাবে কোভিড-১৯ রোগীর মোট সংখ্যা দাঁড়াল আট লাখ ২০ হাজার ৯১৬ জনে।

শনাক্ত রোগী আর মৃতের সংখ্যায় ভারতের রাজ্যগুলোর মধ্যে এখনো সবার ওপর মহারাষ্ট্র। পর্যুদস্ত বাণিজ্য নগরী মুম্বাই। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, পশ্চিমাঞ্চলীয় এই রাজ্যে এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দুই লাখ ৩৮ হাজার ৪১৬। সংক্রমণে মৃতু্য হয়েছে ৯ হাজার ৮৯৩ জনের। কোভিড-১৯ সারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছে এক লাখ ৩২ হাজার ৬২৫ জন।

গুজরাটে মৃতু্য ছাড়িয়েছে দুই হাজার। তামিলনাড়ুও একই মাইলফলকের কাছাকাছি অবস্থান করছে। তামিলনাড়ু ও দিলিস্নতে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে গেছে। গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ এবং মধ্যপ্রদেশেও সংক্রমণ হুহু করে বাড়ছে।

পশ্চিমবঙ্গে টানা দুইদিন হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় এক হাজার ১৯৮ জনের দেহে প্রাণঘাতী ভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে। রাজ্যটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ১০৯ জনে। নতুন ২৭ জনের মৃতু্য নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে কোভিড-১৯ এ মৃতু্যও ৮৮০ জনে পৌঁছেছে।

সংক্রমণের হার ও মৃতু্য দুশ্চিন্তা বাড়ালেও ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সুস্থ হয়ে ওঠার পরিসংখ্যানও অন্য অনেক দেশের তুলনায় 'বেশ স্বস্তিদায়ক'। দেশটিতে এখন পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর ৬২ শতাংশই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। গত শুক্রবার সকাল থেকে শনিবার পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১৯ হাজার ৮৭৩ জন। সব মিলিয়ে পাঁচ লাখ ১৫ হাজার ৩৮৫ জন ভাইরাসের কবল থেকে মুক্ত হয়েছে।

করোনা সন্দেহে বাস থেকে

ফেলার পর তরুণীর মৃতু্য

এদিকে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে বাস থেকে ছুড়ে ফেলে দেয়া হয়েছে অংশিকা যাদব নামের এক তরুণীকে। এভাবে গুরুতর জখম অবস্থায় রাস্তায় পড়ে থাকার ৩০ মিনিট পর তার মৃতু্য হয়। গত ১৫ জুন ভারতের উত্তরপ্রদেশের মথুরা থানা এলাকার আগ্রার এক্সপ্রেসওয়েতে এ ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সেদিন মায়ের সঙ্গে উত্তরপ্রদেশের ফিরোজাবাদ জেলার শিকোহাবাদ থেকে দিলিস্ন যাওয়ার সময় অংশিকাকে বাস থেকে ছুড়ে ফেলার পর তার মৃতু্য হয়। তবে গত বৃহস্পতিবার দিলিস্ন 'কমিশন অব উইমেন' (ডিসিডবিস্নউ) উত্তরপ্রদেশ পুলিশের কাছে এ ঘটনার প্রতিবেদন দাবি করলে বিষয়টি জানাজানি হয়।

নিহতের ভাই বিপিন যাদব বলেন, 'সেদিন অংশিকার শরীর ভালো ছিল না। সে অসুস্থ বোধ করছিল। এতে বাসে থাকা যাত্রীদের মধ্যে সে করোনা আক্রান্ত বলে গুজব ছড়িয়ে পড়ে। পরে বাসচালক ও কন্ডাক্টর মিলে অংশিকাকে টেনে সিট থেকে তুলে আনে। মায়ের কাকুতি-মিনতি কানেও তোলেনি কেউ। বাসচালক করোনার ভয়ে অংশিকার গায়ে একটা কম্বল জড়িয়ে তাকে টেনে-হিঁচড়ে বাস থেকে ছুড়ে ফেলে দেয়।'

তিনি আরও বলেন, 'অংশিকার কোনো অসুখ ছিল না। তবে তার একবার কিডনিতে পাথর হয়েছিল। পরে চিকিৎসা করে সেটা ঠিক হয়ে যায়। কেন একজন সুস্থ মানুষকে তারা করোনা সন্দেহে বাস থেকে ছুড়ে ফেলে দিল?'

নিহতের পরিবারের দাবি, ঘটনার পর মামলা করতে গেলে মথুরা থানা পুলিশ এটাকে হত্যা মামলা হিসেবে নিতে চায়নি। এটাকে স্বাভাবিক মৃতু্য বলে দাবি করে পুলিশ। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে অংশিকার হৃদরোগে মৃতু্য হয়েছে বলে উলেস্নখ করা হয়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে