logo
মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০  

তদন্তে জাতিসংঘ

সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ছুড়েছে তুরস্ক!

ট্রাম্পের কৌশলের সমালোচনা সিনেট নেতা ম্যাককনেলের আইএস জঙ্গিদের ফেরত নেবে ইউরোপীয় দেশগুলো দাবি ট্রাম্পের

সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ছুড়েছে তুরস্ক!
হাসপাতালে শিশুর পোড়া শরীর
সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে তুরস্কের অভিযানে রাসায়নিক অস্ত্র (হোয়াইট ফসফরাস) ব্যবহার করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে দাতব্য সংস্থা 'কুর্দিস রেড ক্রিসেন্ট'। ওই অঞ্চলে তুরস্ক ও তাদের সমর্থিত বাহিনীগুলোর সঙ্গে কুর্দি নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সের (এসডিএফ) সংঘাতের সময় বেসামরিক মানুষ রাসায়নিক অস্ত্রে আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করছে তারা। এদিকে, জাতিসংঘের রাসায়নিক অস্ত্রবিষয়ক পরিদর্শক ঘোষণা দিয়েছেন, তুর্কিবাহিনীর ওপর হোয়াইট ফসফরাস ব্যবহারের যে অভিযোগ উঠেছে সেটির তদন্ত শুরু করেছে তারা। সংবাদসূত্র : গার্ডিয়ান, বিবিসি

রাসায়নিক অস্ত্র নিরোধ সংস্থা (ওপিসিডবিস্নউ) শুক্রবার জানিয়েছে, তারা সিরিয়ায় তুর্কি বাহিনীর রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের অভিযোগ নিয়ে কাজ করছে। দেশটিতে হামলায় তুর্কি সেনাদের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ আসার পর থেকে তারা তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ শুরু করেছে।

কুর্দিস রেড ক্রিসেন্ট এক বিবৃতিতে জানায়, সামরিক ও বেসামরিক ছয়জন রোগী এখন অজানা অস্ত্রের দ্বারা অগ্নিদগ্ধ হয়ে হাক্কার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তারা এটা বিশ্লেষণ করে দেখার চেষ্টা করছে, দগ্ধ এসব মানুষের ওপর কোন্‌ ধরনের অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে। সংস্থাটির বিবৃতিতে আরও বলা হয়, তারা এখনো পুরোপুরি নিশ্চিত নয়, রাসায়নিক অস্ত্রের ব্যবহার করা হয়েছে কিনা। বিষয়টি নিয়ে জাতিসংঘের অধীনে তদন্তের কাজ শুরু করেছে তারা। তদন্ত শেষে তা জানা যাবে।

গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, সংঘাতকবলিত রাস আল-আইন শহরের কাছে তাল তামির শহরের এক হাসপাতালে ১৩ বছর বয়সী এক ছেলে শিশু মারাত্মক রকম পুড়ে গেছে। এতে মনে হচ্ছে, বিতর্কিত রাসায়নিক অস্ত্রের চেয়েও ভয়ঙ্কর কোনো কিছুতে পুড়ে গেছে সে।

যুক্তরাজ্যের রাসায়নিক, জীবাণু, তেজস্ক্রিয় ও পারমাণবিক অস্ত্র বিশেষজ্ঞ হামিশ ডে ব্রেট্রন গর্ডন বলেন, 'আক্রান্ত ছেলেটির ছবি সাদা ফসফরাস ব্যবহারের ইঙ্গিত দিচ্ছে। যুদ্ধের সময় বিশ্বজুড়ে বৈধভাবে এই অস্ত্র ব্যবহার হয়ে আসছে। এটি ব্যবহার করে রাতের বেলা কোনো এলাকাকে আলোকিত করা যায়। আবার দিনে সেনাবাহিনীকে ধোঁয়ার আড়ালে রাখা যায়। তবে বেসামরিক নাগরিকদের ওপর এর ব্যবহার নিষিদ্ধ। কারণ এতে চামড়ায় মারাত্মক ক্ষত ও তীব্র যন্ত্রণা হতে পারে।'

সিরিয়ায় ট্রাম্পের কৌশলের সমালোচনা ম্যাককনেলের

এদিকে, মার্কিন কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশের নেতা মিচ ম্যাককনেল সিরিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেছেন। 'ওয়াশিংটন পোস্টে' লেখা এক নিবন্ধে তিনি মার্কিন সেনা সরিয়ে নেয়ার সঙ্গে সঙ্গে সিরিয়ায় তুরস্কের অভিযানকে 'কৌশলগত দুঃস্বপ্ন' হিসেবেও অ্যাখ্যা দিয়েছেন।

এর আগে বুধবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তুরস্ক-সিরিয়ার এখনকার সীমান্ত পরিস্থিতিকে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য 'কৌশলগতভাবে অসাধারণ' বলে অভিহিত করেছিলেন। বৃহস্পতিবার মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়ে্যপ এরদোয়ানের বৈঠকের পর আঙ্কারা পাঁচদিনের জন্য অভিযানে 'বিরতি টানার' ঘোষণা দেয়। তবে শুক্রবার সকালেও কুর্দি নিয়ন্ত্রিত শহরগুলোর কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্ন যুদ্ধের খবর পাওয়া গেছে।

জঙ্গিদের ফেরত নেবে ইউরোপীয় দেশগুলো : দাবি ট্রাম্পের

অন্যদিকে, কিছু ইউরোপীয় দেশ ইরাক ও সিরিয়ায় এক সময় তৎপর উগ্র জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসে যোগ দেয়া নাগরিকদের ফেরত নিতে রাজি হয়েছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুক্রবার এক বার্তায় ট্রাম্প বলেন, 'এই প্রথম কিছু ইউরোপীয় দেশ তাদের যেসব নাগরিক এক সময় আইএসের হয়ে জঙ্গি তৎপরতা চালিয়েছিল, তাদের ফেরত নিতে রাজি হয়েছে।'

ইউরোপীয় দেশগুলোর এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানানোর পাশাপাশি এসব দেশ তাদেররাপীয় দেশগুলোকে হুশিয়ার করে দিয়ে বলেছিলেন, পশ্চিমা দেশগুলো তাদের দেশের নাগরিকদের (জঙ্গি) ফেরত না নিলে ইরাক ও সিরিয়া থেকে আটক এসব জঙ্গিকে যুক্তরাষ্ট্র মুক্ত করে দেবে। এছাড়া সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে তুর্কি বাহিনীর সঙ্গে কুর্দিদের প্রাণঘাতী লড়াই-সংঘাতকে দুই শিশুর মারামারির সঙ্গে তুলনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুক্রবার টেক্সাসে এক সমাবেশে ট্রাম্প বলেন, 'তুরস্ক আর কুর্দিরা যেন শিশু। তাই তাদেরকে একটু মারামারি করতে দিয়েছেন তিনি।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে