logo
রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২১ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

বিএনপির বিদ্রোহীদের সতর্কবার্তা

যাযাদি রিপোর্ট

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির কাউন্সিল পদে বিদ্রোহী প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে এতদিন মৌখিকভাবে অনুরোধ করলেও এবার চিঠি দিয়ে চূড়ান্তভাবে সতর্ক করেছে বিএনপি। দুই সিটির প্রায় ৩০ বিদ্রোহীকে প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন থেকে সরে গিয়ে দলের মনোনীত মেয়র প্রার্থী সমর্থিত কাউন্সিল প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার অনুরোধ করা হয়েছে। পাশাপাশি নির্দেশনা না মানলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দেয়া হয়েছে।

বিএনপি সূত্র মতে, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৫৪টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে ১৭টিতে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন। এর মধ্যে ৩ নম্বর ওয়ার্ডে জামাল হাসান বাপ্পী, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে বুলবুল মলিস্নক, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে হাবিবুর রহমান ও মোহাম্মদ রিপন, ৭ নম্বরে গোলাম রাব্বানী, ৮ নম্বরে সোলাইমান খান দেওয়ান, ১৬ নম্বরে সৈয়দ ইকরাম হোসেন, ১৮ নম্বরে কাজী আব্দুর লতিফ, ২০ নম্বরে সেলিম আহমেদ রাজু, ২৩ নম্বরে আবুল মেসের, ২৫ নম্বরে হাসেম মিয়া ও শেখ জিয়াউর রহমান, ৩০ নম্বরে আবুল হাসেম, ৩১ নম্বরে হাসিনা মোর্শেদ কাকলী ও ফরিদউদ্দিন ফরহাদ, ৩৭ নম্বরে আহমদ আলী এবং ৪৭ নম্বর ওয়ার্ডে হেলাল তালুকদার বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন। দক্ষিণ সিটির ৭৫টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে ১৩টিতে রয়েছেন বিদ্রোহী প্রার্থী। এর মধ্যে ১০ নম্বর ওয়ার্ডে আনোয়ার হোসেন লিপু, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে নজরুল ইসলাম জুয়েল, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে আবু নাছের লিটন, ৩৭ নম্বরে সুমন ভূঁইয়া, ৩৯ নম্বরে মোজাম্মেল হক মুক্তা, ৪৬ নম্বরে মো. সোহেল ও ঢালী মামুনুর রশীদ, ৫০ নম্বরে আনোয়ার হোসেন স্বাধীন, ৫১ নম্বরে কবির আহম্মেদ, ৫২ নম্বরে বাদল রানা, ৫৫ নম্বরে শহিদুল হক, ৫৯ নম্বরে খোরশেদ আলম খোকন, ৬১ নম্বরে শাহ আলম এবং ৬৬ নম্বরে নুরুদ্দিন মিয়া বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন।

সূত্র মতে, প্রতিপক্ষের বাধা এবং প্রশাসনিক চাপের পাশাপাশি বিদ্রোহী প্রার্থীদের নিয়ে চরম বেকায়দায় আছে বিএনপি। প্রতিকূল অবস্থা উত্তরণে বিদ্রোহীদের বসিয়ে দেয়ার সর্বাত্মক চেষ্টা করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে দুই সিটির বিদ্রোহী প্রার্থীদের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

উত্তর সিটির নির্বাচনের প্রধান সমন্বয়ক গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এবং সদস্য সচিব মো. শাহজাহান স্বাক্ষরিত এই সিটির বিদ্রোহী প্রার্র্থীদের কাছে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়, আপনি নির্বাচনে স্বতন্ত্র কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করায় দল মনোনীত মেয়র প্রার্থীর বিজয়ে বাধা সৃষ্টি হতে পারে। দলের বিজয় ও ঐক্য অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে আপনার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে দল মনোনীত ও মেয়র ও সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীর পক্ষে কাজে অংশ নিয়ে সহযোগিতা কামনা করা হয় চিঠিতে।

বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে দক্ষিণের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির নেতা আব্দুস সালাম যায়যায়দিনকে বলেন, দক্ষিণের বিদ্রোহীর সংখ্যা খুব বেশি নয়। ৭ জনের মতো হতে পারে। বিদ্রোহীদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে দল সমর্থিতদের পক্ষে কাজ করার জন্য বলা হয়েছে। নইলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানানো হয়েছে।

শেষ পর্যন্ত বিদ্রোহীরা দলের হয়ে কাজ করবে বলে আশা করছে বিএনপি। ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আহসান উলস্নাহ হাসান জানান, দলের আদেশ মেনে বিদ্রোহীরা শেষ পর্যন্ত থাকবে না। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, উত্তর সিটির ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী হলেন হাবিবুর রহমান রাব্বী। ওই ওয়ার্ডে আরেক প্রভাবশালী নেতা কাফরুল থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ইকরাম বাবু। বিএনপির হাইকমান্ড থেকে বাবুকে বোঝানোর চেষ্টা হয়েছে। এরই মধ্যে বাবু নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে রাজি হয়েছেন। এমন করে সবাই দলের আদেশ মেনে নেবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে