রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

অর্থের অপচয় রোধ এবং মিতব্যয়িতার সাথে ব্যবহার হচ্ছে কিনা দেখার দায়িত্ব সিএজি কার্যালয়ের : পরিকল্পনা মন্ত্রী

যাযাদি ডেস্ক
  ২৫ নভেম্বর ২০২২, ১৭:১৬
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম. এ. মান্নান এম.পি-যাযাদি

বৃহস্পতিবার রাজধানীর রেডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন হোটেলে বাংলাদেশের কম্পট্রোলার এন্ড অডিটর জেনারেল এর কার্যালয়ের অধীন অডিট অধিদপ্তরসমূহে ডিজিটাল অডিট ব্যবস্থাপনার অংশ হিসেবে অডিট ম্যানেজমেন্ট এন্ড মনিটরিং সিস্টেম (এএমএমএস-২.০) এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। অডিট ডিপার্টমেন্ট এবং অডিটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অধিকতর কার্যকর যোগাযোগ প্রতিষ্ঠায় ব্যয় ও সময় সাশ্রয়ী এ সফটওয়্যারের উদ্বোধনে ডিজিটাল অডিট ব্যবস্থাপনা (এএমএমএস-২.০) শীর্ষক ডকুমেন্টরী প্রদর্শন এবং লাইভ ডেমোনেস্ট্রেশন করা হয়। সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব, সচিব, দপ্তর/সংস্থার প্রধানগণ ও পদস্থ কর্মকর্তাগণ এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন। এএমএমএস-২.০ সফটওয়্যারের বৈশিষ্ট্য হলো এটি ওয়েব বেইজড এবং এতে অডিটি প্রতিষ্ঠানের প্রবেশাধিকার থাকবে। ফলে কস্ট সেন্টার ভিত্তিক এবং বছর ভিত্তিক অডিট আপত্তির সংখ্যা, গৃহীত ব্যবস্থা, নিষ্পত্তিকৃত এবং অনিষ্পন্ন আপত্তির সংখ্যা ও জড়িত অর্থ ইত্যাদি সম্পর্কে অডিটি প্রতিষ্ঠান হালনাগাদ তথ্য জানতে পারবে। এ সফটওয়্যার ব্যবহার করে অডিট অধিদপ্তর এবং অডিটি প্রতিষ্ঠান অডিট আপত্তির জবাব প্রমাণকসহ আদান-প্রদান করতে পারবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম. এ. মান্নান এম.পি। 

তিনি বলেন সরকারী অর্থের অপচয় রোধ এবং মিতব্যয়িতার সাথে ব্যবহার হচ্ছে কিনা তা দেখার দায়িত্ব সাংবিধানিকভাবে সিএজি কার্যালয়ের। সাইবার সিকিউরিটি এবং ডিজিটালাইজেশনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বে বেশ ভালো। ডিজিটাল অডিট ব্যবস্থাপনা সফটওয়্যার সরকারের মন্ত্রণালয়/বিভাগ/দপ্তরের নির্বাহীগণের সরকারী অর্থ ব্যবহারের ক্ষেত্রে অপচয় রোধ ও মিতব্যয়িতা চর্চার ক্ষেত্রে অডিট মনিটরিং কাজে অত্যন্ত সহায়ক হবে।

বিশেষ অতিথি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী তাঁর বক্তবে এই সফটওয়্যারের সিকিউরিটি এবং সাসটেইনেবলিটি নিশ্চিতকরনের উপর গুরুত্বারোপ করেন। বিশেষ অতিথি অর্থ মন্ত্রণালয়, অর্থ বিভাগ এর সিনিয়র সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন তাঁর বক্তব্যে বলেন আইবাস++ এবং অন্যান্য ডিপার্টমেন্ট যে সমস্ত একাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে সেগুলির সাথে এর ইন্টারফেসিং হলে এ সফটওয়্যারের কার্যকারিতা বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের কম্পট্রোলার এন্ড অডিটর জেনারেল মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরী। 

তিনি তার বক্তব্যে বলেন বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন এবং বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে ডিজিটাল অডিট ব্যবস্থাপনা সফটওয়্যার সহায়ক হবে; যেখানে সার্ভিস প্রোভাইডার তথা অডিট অধিদপ্তর সমূহ এবং ইউজার তথা নির্বাহীগণ লিংকড থাকবে। এর মাধ্যমে মন্ত্রণালয়, বিভাগ এবং দপ্তরসমূহ আপত্তির সংখ্যা, চলমান অডিট এবং আপত্তিসমূহসহ সামগ্রীক কার্যক্রম মনিটরিং করতে পারবে।

যাযাদি/ সোহেল

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে