শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১

সাতকানিয়ায় অর্ধযুগ পর ছাত্রলীগের কমিটি

সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি
  ১৭ মে ২০২৪, ১১:১৩
আপডেট  : ১৭ মে ২০২৪, ১৬:২৮
ছবি-যায়যায়দিন

দীর্ঘ অর্ধ যুগের বেশি সময় পর চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার আওতাধীন বাজালিয়া ইউনিয়ন শাখা ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এতে বান্দরবান সরকারি কলেজের অনার্স ৪র্থ বর্ষের ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী এমরান হোসেন রিফনকে সভাপতি ও বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের ২য় বর্ষের আতিথেয়তা এবং পর্যটন ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী দিবস দাশ অমিকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৬ মে) রাত ১১ টায় সাতকানিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। ৫ সদস্যের আংশিক কমিটিতে সহ-সভাপতি পদে মো. পারভেজ আলম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদে রিপন দাশ ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদে রিগেন বিশ্বাসকে রাখা হয়েছে। এছাড়াও আগামী ২১ দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

বাজালিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, এ ইউনিয়নে ছাত্রলীগের সর্বশেষ এক বছর মেয়াদি কমিটি করা হয়েছিল অর্ধযুগেরও বেশি আগে। পরবর্তীতে সে কমিটির মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার পর তাদের অধিকাংশই বৈবাহিক জীবনে পদার্পণ করেন এবং অনেকে যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত হন। সে থেকে নতুন কমিটি আর দেওয়া হয়নি। ২০২৩ সালে উপজেলা ছাত্রলীগ সেই কমিটির কার্যক্রম বিলুপ্ত ঘোষণা করে। সেই সঙ্গে নতুন কমিটির জন্য পদপ্রত্যাশীদের জীবনবৃত্তান্ত আহ্বান জানানো হলে প্রায় অর্ধশতাধিক ছাত্রলীগ কর্মী পদ পেতে জীবনবৃত্তান্ত জমা দেন।

এদিকে কমিটি না থাকায় ৩-৪টি উপদলে বিভক্ত হয়ে পড়েছিলেন বাজালিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। নিজেদের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোন্দল, ব্যক্তিগত রেষারেষি ও আধিপত্য বিস্তারসহ বিভিন্ন ইস্যুতে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পরে বিভিন্ন কর্মী সভায় যোগ দিয়ে দ্রুত কমিটি ঘোষণার কথা জানিয়েছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

নতুন কমিটির সভাপতি এমরান হোসেন রিফন যায়যায়দিনকে বলেন, বর্তমান কমিটিতে যাঁরা স্থান পেয়েছেন, তাঁরা প্রত্যেকেই দীর্ঘ সময় ধরে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে। কমিটি না থাকার পরও দলীয় কার্যক্রমে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেছে। নিজেদের মধ্যে সকল ছোটখাটো বিবাদ ভুলে ভবিষ্যতে সবাইকে নিয়ে ছাত্রদের অধিকার আদায়, বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রমসহ ছাত্রলীগকে সুসংগঠিত ও সুশৃঙ্খল করতে কাজ করে যাবেন এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক সংগঠনের যে উদ্দেশ্য, তা সফল করতে সচেষ্ট থাকবেন।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে